তবুও থামিনি আমি

তোমার যাত্রা শুভ হোক ​
এ কথা কেউ আমাকে বলেনি ​
আমি কবিতা লিখতে বসলাম।​
পকেটে ময়লা মন​
তবু আমার যাত্রার শুভক্ষণ​
হঠাৎ গাড়ী নষ্ট হলো
নামলাম হাটলাম অনেকদূর​
তবুও থামিনি ​
তোমার যাত্রা শুভ হোক ​
এ কথা কেউ আমাকে বলেনি ।

প্রিয় আরণ্যক

প্রিয় আরণ্যক বৃদ্ধ বাবার পাঞ্জাবীটা পরেই ক্যাম্পাসে ঘুরিস​
শ্রমজীবী মায়ের হাতের তৈরি টুপিটা মাথায় রাখিস​;

যুদ্ধ করা স্বভাব তোর যুদ্ধ করে হেরে থাকিস​
সে মেয়েটার দেওয়া কষ্ট, কষ্ট করেই সয়ে থাকিস​
নষ্ট হওয়া স্বভাব তোর, ভালো হয়ে বেঁচে থাকিস​

ক্যাম্পাসের ছেলে হয়ে অন্ধ মেয়ের সাথে প্রেম ঠুকিস​
প্রতিদিন রাত করে, দেরি করে ঘরে ফিরিস​
অন্ধ‌কে বি‌য়ে অন্ধের সা‌থেই সংসার ক‌রিস​

দেখ তোর দুই পায়ে দুই রকমের জুতো​
মনে তোর বড্ড অহংকার রয়েছে বেদামী​

আজ তাহলে বট গাছের নীচে বসে থাকিস​
গালে হাত দিয়ে অন্ধ মেয়েটার কথায় ভাবিস​
যতটা তাড়াতা‌ড়ি পা‌রিস সংসারটা শুরু ক‌রিস।

তোমার হাত কেউ ধরবে না

প্রিয় আরণ্যক ঘুমিয়ো না রাত জেগে বসে থাকো​
প্রতিদিন জেল মাখা চুল ‍দিয়ে​
টি শার্ট পরে হেটে যেও​
লম্বা হয়ে​
দেখবে তাও তোমার হাত কেউ ধরবে না।​

‍প্রিয় আরণ্যক প্রতিদিন কবিতা লিখো​
প্রতিদিন সুন্দর গানটি গেয়ো​
মেয়ে দেখলে দাড়িয়ে যেয়ো​
সুন্দর করে কথা বোলো কেমন আছেন?​
তাও তোমার হাত কেউ ধরবে না।​

প্রিয় আরণ্যক মানুষের সাথে বেশী মিশো​
বেশী করে কথা বোলো
ভালো প্রেমের বইটি পোড়ো​
ভালো প্রেমের সিনেমা দেখো​
তবু তোমার হাতটি কেউ ধরবে না।

[866 বার পঠিত]