কিছুদিন আগের ঘটনা। সকালে আমি বিশ্ববিদ্যালয়ে যাচ্ছিলাম। বাসা থেকে বেরিয়ে রিক্সায় চেপে বসলাম পরিবাগের উদ্দেশ্যে। যখন প্রায় কাছাকাছি পৌঁছে গেছি তখন হঠাৎ রিক্সাওয়ালা আমাকে বললেন, আপনি কি পড়ালেখা করেন? আমি বললাম, হ্যা। এরপর তিনি রাস্তার ধারে রিক্সা থামেলেন। বুঝলাম আমাকে তিনি কিছু বলতে চান। ধারণা করেছিলাম এখানে সাহায্য চাওয়া সংক্রান্ত কোন ব্যাপার থাকবে।
এরপরের কথোপকথন ছিল এরকমঃ
রিক্সাওয়ালাঃ বুঝলেন, আপনি খুব ভাগ্যবান। আপনার বাবা-মা আপনাকে অনেক ভালবাসে। (আমার বাবা যে মারা গেছে একথা না বলে আমি ভুরু কুচকে অপেক্ষা করতে লাগলাম জানতে যে সে আসলে কি বলতে চায়)
দেখি দেখি আপনার বাম হাত উপুড় করেন তো।

আমিঃ (আমি বা হাত উপুড় করে দেখালাম)
রিক্সাওয়ালাঃআপনি এক চামচ মধু আর আধ ছটাক কালিজিরা একসাথে নিয়ে এই হাতের উপরে প্রতিদিন সকালে একবার করে মাখবেন।

(আমি বুঝতে পারছিলাম যে ব্যাটা কিছু একটা বুজরুকির তালে আছ। তবুও তার কথা গুরুত্ব দিচ্ছি এমন মুখে তাকিয়ে রইলাম তার কথা শেষ পর্যন্ত শোনার জন্য)

রিক্সাওয়ালাঃ আপনি এক কাজ করবেন।দোকানে যাবেন গিয়ে এক দামে আধা কেজি আপেল কিনবেন। দামাদামি করবেননা।

আমিঃ(সিরিয়াস চেহারায়) এরপর?

রিক্সাওয়ালাঃ ওখান থেকে এরপর একটা আপেল খাবেন আর পরের শুক্রবার রোজা রাখবেন। তাহলে আপনার মনের সব আশা পূর্ণ হবে।ভাল রেজাল্ট করতে চান, ভাল বিয়ে চান সব আশা পূরণ হবে, সব।

আমিঃ(হাসি চেপে) হুমমম…
উনি এরপর রিক্সা চালিয়ে আমার গন্তব্যে নিয়ে গেলেন। আমি ভাড়া দেবার সময় তিনি বললেন

রিক্সাওয়ালাঃআর আপনি এখন আমাকে ১৭১ টাকা যে দেবেন তা কিন্তু খাস দিলে হতে হবে।

আমিঃ কি?(মোটামুটি বিস্ফোরিত চোখে)

রিক্সাওয়ালাঃ (একটুও বিচলিত না হয়ে) বললাম আপনি এখন আমাকে যে ১৭১ টাকা দিবেন সেটা কিন্তু খাস দিলে দিতে হবে। নইলে কিন্তু আপনার ইচ্ছে পূরণ হবেনা।

আমিঃ (ভাড়া দিয়ে নেমে গিয়ে) আমি এসব বিশ্বাস করিনা। মানিওনা।

রিক্সাওয়ালাঃ অসুবিধা নেই। এই টাকাটা যদি মসজিদে দেন তাহলেও হবে। নামাজ কালাম পড়বেন নিয়মিত। যা যা বললাম ওগুলো করবেন। আমার কথা স্মরণ করবেন। আমার নাম জাহেদুল ভাই।

(আমি সেই লোকের চোখের পাতি না ফেলে মিথ্যে কথা বলার ক্ষমতা দেখে অবাক না হয়ে পারিনি।)

যাহোক বিশ্ববিদ্যালয়ে যেয়ে যখন আমার বন্ধুদের একথা বলছিলাম তখন এক বন্ধু আমাকে বলল, ‘দোস্ত পরের বার যখন ঐ রিক্সাওয়ালাকে দেখবি তখন তাকে বলবি,ভাই জানেন আপনাকে আপনার বাসার লোকজন অনেক ভালবাসে।
এরপর বলবি,দেখি আপনার হাত উপুড় করেন তো? হুমমমম… আপনি প্রতিদিন শুকনা মরিচ গুড়া এখানে ডলে ডলে মাখবেন। আর এখনি বাজারে গিয়ে এক দামে এক কেজি করলা কিনবেন। দামাদামি করা যাবেনা কিন্তু। এরপর বাজারে দাড়িয়েই ওই করলাগুলো কাঁচা খেয়ে ফেলবেন। আর এক কেজি শুকনা মরিচ কিনে ওগুলো পাটায় বেটে সারা গায়ে মেখে বসে থাকবেন প্রতি শুক্রবার। তাহলে আপনার সকল মনের আশা পূরণ হবে।

আর শোনেন, এখন আমি রিক্সা থেকে নামার পর আপনি যে আমার কাছ থেকে রিক্সা ভাড়াটা নিবেননা এটা কিন্তু আপনাকে খাঁস দিলে করতে হবে, বুঝেছেন? নইলে কিন্তু আপনার মনের আশা পূরণ হবেনা।’
সেই থেকে আমি জাহেদুল ভাইকে খুঁজছি।

[351 বার পঠিত]