কি ঘর বানাইমু আমি শূন্যের মাঝার!  – (পাঠ-প্রতিক্রিয়া : ‘শূন্য’)

মীজান রহমান পেশায় গণিতবিদ। শুধু গণিতবিদ বললে ভুল হবে, বাংলাদেশের যে কয়জন একাডেমিয়ার সাথে যুক্ত শিক্ষাবিদ আন্তর্জাতিক খ্যাতি পেয়েছেন, বাংলাদেশকে পরিচিত করতে পেরেছেন দর্পভরে বিশ্বের অঙ্গনে, তার মধ্যে মীজান রহমান অন্যতম। সেই ১৯৬৫ সালে কানাডার অটোয়াস্থ কার্লটন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনায় যোগ দিয়েছিলেন, সেখানে একটানা তেত্রিশ বছর ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের গণিতের সাথে পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে সেরা [...]

শূন্য (শেষ পর্ব)

পূর্ববর্তী পর্বের পর... বিশ কুয়ান্টাম তত্ব এক অভিনব সংযোজন আধুনিক বিজ্ঞানে। আপাতদৃষ্টিতে মনে হয় অনেক জটিল সমস্যার সহজ সমাধান দিয়ে ফেলছে, অথচ ভাবতে গেলে মাথা ঘুরে যায়। ধাঁধার ঘোর যেন কিছুতেই কাটতে চায় না। এ আবার কেমনতরো কথা যে বস্তুজগতের ছোটবড় সব জিনিসই আণবিক দৃষ্টিতে একই সাথে ভরযুক্ত কণা, এবং ভরমুক্ত তরঙ্গ? কণা নয তরঙ্গ [...]

শূন্য (৪র্থ পর্ব)

পূর্ববর্তী পর্বের পর ... সতেরো কলেজে আমি বিজ্ঞান নিয়েছিলাম---বড় বিজ্ঞানী হব সে আশায় নয়, ভাল চাকরি পাওয়া যাবে সে স্বপ্নে। ভুল করেছিলাম কিনা জানিনা, কিন্তু ওটাতে ঢুকে বুঝতে পারলাম আমি আর যা’ই হই, রাসায়নিক হব না। সবচেয়ে অপছন্দ করতাম আমি রসায়নের ক্লাসটাকেই। বিশেষ করে ল্যাব। ল্যাবের ধারেকাছে গেলে আমার বমি উগড়ে আসত, যখন বড় বড় [...]

শূন্য (৩য় পর্ব)

পূর্ববর্তী পর্বের পর... বারো এবার কিছুক্ষণের জন্যে জেনোর ধাঁধাতে ফিরে যাব আমরা। ধাঁধাটির সূত্রপাত কোথায় সে ইঙ্গিত তো আগেই দিয়েছি। সেকালের পণ্ডিতরা বুঝতে পারছিলেন না ১,১/২,১/৪,১/৮,….,১/২*(ন),…এই যে অন্তহীন সংখ্যামালা, এগুলো তো যাচ্ছে না কোথাও---এদের কোন গন্তব্য নেই। শুধু তাই নয়, এগুলোকে যোগ করলে দাঁড়ায় আরেক অদ্ভূত জিনিসঃ ১+১/২+১/২*(২)+১/২*(৩)+….+১/২*(ন)+… এরই বা শেষ কোথায়? অন্তহীন সংখ্যার যোগফল [...]

শূন্য (২য় পর্ব)

পুর্ববর্তী পর্বের পর ... নয় ব্রুনো ছিলেন ডমিনিকান মতবাদী (১২১৫ সালে সেন্ট ডমিনিক প্রতিষ্ঠিত একটি ক্যাথলিক ধর্মগোষ্ঠী) ধর্মযাজক। পেশা ও বিশ্বাসে ধর্মগতপ্রাণ হলেও বুদ্ধি ও চিন্তার জগতে তিনি ছিলেন স্বাধীনচেতা ও জ্ঞানপিপাসু মানুষ, যাঁর নৈতিক আনুগত্য গীর্জার প্রতি থাকলেও বৌদ্ধিক আনুগত্য ছিল যুক্তি ও বিজ্ঞানের প্রতি। ষোড়শ শতাব্দীর আশির দশকে তিনি On the Infinite Universe [...]

শূন্য (১ম পর্ব)

এক ছোটবেলায় এক পাগলাটে শিক্ষক ছিলেন আমাদের স্কুলে। সারাক্ষণ বিড়বিড় করে কি বলতেন আপন মনে। উস্কোখুস্কো চুল, কোনদিন আঁচড়াতেন কিনা সন্দেহ, অনেকগুলো উকুন পরিবার সেখানে নিরাপদ বাসা করেছিল নিশ্চয়ই। বিয়েথা করেননি জীবনে, পোষাকআশাক এলোথেলো, ময়লা, এখানে ওখানে তালি দেওয়া। হেডমাস্টারসাহেব সুযোগ পেলেই তাঁকে ধমকাতেন, চাকরি খোয়াবার হুমকি দিতেন, অন্যান্য শিক্ষকরা তাঁর সংসর্গ এড়িয়ে চলতেন। কিন্তু [...]