এ অরণ্য বধ্যভূমি

হত্যাকারীরা আজও ওৎ পেতে আছে ঘুমোব কি'করে যতই সুন্দর হোক এ পৃথিবী ঋতু দৃশ্য অরণ্য ঘাতকের হাতে নিজের লোকেদের রেখে ঘুমোব কি'করে। যে পাহাড় দেখে চোখ জুড়াল যে ঝর্নার গান মধ্যরাতে ঝংকার তুলল যেসব মেঘের কথা স্বপ্নে বোনা নদীর মতন, তাদেরও পিছনে অদৃশ্য ঘাতক দাঁড়িয়ে বন্দুকের নল আমার ভাই বোন আত্মীয়ের দিকে। যতই জ্যোৎস্না হোক [...]

লিখেছেন |এপ্রিল ১৪, ২০১৭|বিষয়: কবিতা|৩ টি মন্তব্য|

খালিদ মোশারফ’এর তিনটি কবিতা

তবুও থামিনি আমি তোমার যাত্রা শুভ হোক ​ এ কথা কেউ আমাকে বলেনি ​ আমি কবিতা লিখতে বসলাম।​ পকেটে ময়লা মন​ তবু আমার যাত্রার শুভক্ষণ​ হঠাৎ গাড়ী নষ্ট হলো নামলাম হাটলাম অনেকদূর​ তবুও থামিনি ​ তোমার যাত্রা শুভ হোক ​ এ কথা কেউ আমাকে বলেনি । প্রিয় আরণ্যক প্রিয় আরণ্যক বৃদ্ধ বাবার পাঞ্জাবীটা পরেই ক্যাম্পাসে [...]

জীবনানন্দের ব্যথিত মানচিত্র

লেখক: মাসুদ সজীব কলমীর গন্ধভরা রূপসী বাংলায় আপনি ফিরতে চেয়েছেন বারে বারে, কখনো ফিরতে চেয়েছেন শঙ্খচিল শালিখের বেশে, কখনো বা সোনালী ডানার চিল হয়ে। দেখতে চেয়েছিলেন কাঁঠালপাতা ঝরিয়া পড়িবে ভোরের বাতাসে; হয়তো দেখতে চেয়েছেন সুদর্শনা উড়িতেছে সন্ধ্যার বাতাসে। প্রিয় জীবনানন্দ, আপনাকে জানিয়ে রাখি দালান আর প্রাসাদের চাপায় কলমীর গন্ধ আজ হারিয়ে গেছে বাংলা থেকে, গন্ধহীন [...]

অমীমাংসিত ভাগফল

লেখক: মাসুদ সজীব আমি খাপ খাইনি বুকের মানচিত্র ঢেকে দেওয়া জামার বোতামে পদচিহ্ন মুছে দেওয়া জুতোর বাহারি ডিজাইনে। এমনকি আমি খাপ খাইনি সুগন্ধিভরা কোন সুদৃশ্য বোতলে। একাশ্বর প্রেমিকার শীতল চুম্বনে কিংবা গভীর কোন আলিঙ্গনে আমি চিরকাল অনাস্থা রেখেছি সযতনে। দল থেকে উপদলে, সংঘ থেকে সমাজে কোথাও আমি খাপ খাওয়াতে পারিনি নিজেকে আপোসের চাদরে ঢাকতে হবে [...]

লিখেছেন |ফেব্রুয়ারী ২৩, ২০১৭|বিষয়: কবিতা, দর্শন, দৃষ্টান্ত|৩ টি মন্তব্য|

বর্ণময়

বর্ষণমুখর দিনে বর্ষ-সেরা বর এসেছিল, ভাষাকে বরণ করে, বরেণ্য হবে বলে। বর্ণ-চোরার মত লুকিয়েছিল, একাকী, ব্যঞ্জন বর্ণের ঘরে, কেউ দেখেনি তাকে; স্বর বর্ণের এই যে খেলা, সক্রিয় হয়ে, বঙ্গবর্ষে ঝরেছিল অঝোরে, মুগ্ধকর; অবর্ণনীয় সেই বর্ষণধারায়, স্নাত; বর্ষভোগ্য হবার আগেই, বর্ণনাতীত, বরণডালা, সম্মুখে ধরি বরেন্দ্র তুমি, বরাসনে উপবিষ্ট, দিলে হে বরাভয়। নির্ভয়ে বর্ষণস্নাত, বর্ণে দেখি তোমাকে, [...]

লিখেছেন |ফেব্রুয়ারী ২১, ২০১৭|বিষয়: কবিতা|মন্তব্য নেই|

তখন কবিতা পাল্টে যাবে

লিখেছেন: যুক্তি পথিক তখন কবিতা পাল্টে যাবে, শিশুরা সকালে উঠেই প্রশ্ন করবে - এত আলো কেন? চাষীরা তখন নিরক্ষর নয় কিংবা অশিক্ষিতের তকমাও থাকবে না শ্রমিকের ঘাড়ে; বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছেলেটাও উন্নত ফসলের সন্ধানে -মাঠেই কাটাবে রাত ; প্রবাসী ভাইটা টাকা পাঠাবে : মসজিদ নির্মাণে নয় - এলাকার গ্রন্থাগারে কয়েকশ বই কিনতে ; গার্লস স্কুলের একদল [...]

লিখেছেন |ফেব্রুয়ারী ১, ২০১৭|বিষয়: কবিতা, বিশ্বাসের ভাইরাস|৪ টি মন্তব্য|

ও তে নয় ওড়না

লিখেছেন: রঞ্জন নন্দী ও তে যদি ওড়না তবে মেয়ে জেনে রাখ পৃথিবীটা তোর না তোর তরে রান্না অপমান কান্না রাতের আঁধার তোর সূর্যের ভোর না তোর তরে নতমুখ ভয়ে দুরুদুরু বুক জুবুথুবু দুর্বল তোর তরে জোর না তোর তরে আছে ওই আজেবাজে বুড়ো বই উচ্ছল হাসি খেলা এইসব তোর না তোকে তাই বলে যাই বুড়োরা [...]

লিখেছেন |জানুয়ারী ৪, ২০১৭|বিষয়: ছড়া, বিশ্বাসের ভাইরাস, শিক্ষা|৬ টি মন্তব্য|

বিরুদ্ধ কথা

লিখেছেন: প্রতিমা মাধুরী কল্যাণী ডাক্তারবাবু – ভেবেছিলাম এ সমস্ত কথা গোপন রাখবো, প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কিছু বলা, সামাজিক জীবদের তা বিশ্বাস করানো – বেশ কঠিন। ডাক্তারবাবু – ভেবেছিলাম এ সমস্ত কথা গোপন রাখবো, আপনি প্রায় দুই দশক আগে ডাক্তারি পাশ করেছেন.. বিগত দুই দশক ধরে চিকিৎসা করে প্রতিষ্ঠিত ডাক্তার - মাসে চল্লিশ-পঞ্চাশ হাজার টাকার মুখ [...]

লিখেছেন |ডিসেম্বর ২১, ২০১৬|বিষয়: কবিতা|২ টি মন্তব্য|

আমি বাংলাদেশ বলছি

লিখেছেনঃ যুক্তি পথিক আমি বাংলাদেশ একাত্তরের আমাকে মনে আছে নিশ্চয়ই ? রক্তে লেখা সেই গুচ্ছ কবিতা - এখনও পান্ডুলিপি! এখনও রাত্রির করোটিতে : হায়েনারা উৎসব করে; বহমান অন্ধকারে এখনও শুনি : মধ্যযুগের সংলাপ ! এখনও আমার পথে - বর্বরের অভিযাত্রা ; নির্বাসিত আমি? কেতাব-কংকাল এখনো এখানে নিশ্বাস নেয় , আমার পদ্মা, আমার মেঘনা এখনও রক্ত [...]

লিখেছেন |নভেম্বর ২৩, ২০১৬|বিষয়: কবিতা, বাংলাদেশ|৫ টি মন্তব্য|

টগবগে পাঁচ পাঁচটি যুবক

লিখেছেনঃ রঞ্জন নন্দী . টগবগে পাঁচ পাঁচটি যুবক, একই পাড়ায় ঘর ধর্ম জাতি ভিন্ন হলেও বন্ধু হরিহর একটি ছিল নাস্তিক টাইপ মানতো না সে কিছু চাপাতিবাজ আস্তিকে তার ছুটতো পিছু পিছু একদিন এক দুপুরবেলা কুপিয়ে গেল তাকে চারবন্ধু দৌড়ে পালায় কে বাঁচাবে কাকে একটি তাদের বৌদ্ধ ছিল মাছ মাংস মানা এক সন্ধ্যায় তার বাড়িতেও চাপাতি [...]

লিখেছেন |নভেম্বর ১৭, ২০১৬|বিষয়: কবিতা, ছড়া|৭ টি মন্তব্য|

জীবনানন্দের প্রতি রবীন্দ্রনাথ

লিখেছেনঃ সাত্যকি দত্ত ঝরা পালকের পাঠপ্রতিক্রিয়ায় রবীন্দ্রনাথ জীবনানন্দকে একটি চিঠি লিখেছিলেন , জীবনানন্দ তখন বরিশালে , চিঠির বক্তব্য - " তোমার কবিত্বশক্তি আছে তাতে সন্দেহমাত্র নেই । - কিন্তু ভাষা প্রভৃতি নিয়ে এত জবরদস্তি কর কেন বুঝিতে পারিনে । কাব্যের মুদ্রাদোষটা ওস্তাদিকে পরিহাসিত করে । বড় জাতের রচনার মধ্যে একটা শান্তি আছে , যেখানে তার [...]

হায় চিল…

রবীন্দ্রনাথের পরে জীবনানন্দ দাশই বাংলা কবিতার একমাত্র কবি যাঁর প্রভাবমুক্ত হ’তে গলদঘর্ম হ’তে হয়েছে পরবর্তী প্রজন্মের কবিদের। কেউ কেউ সচেতন ও অক্লান্ত প্রচেষ্টায় উৎরে যেতে পেরেছেন কিছুটা কিন্তু প্রায় সবাই ওই জীবনানন্দীয় কাব্যকথা ও কাব্যভাবনার জালেই জড়িয়ে পড়েছেন। একমাত্র বুদ্ধদেব বসু ছাড়া জীবনানন্দ দাশের জীবনকালে কেউ জীবনানন্দের কবিতা নিয়ে প্রশংসাসূচক মন্তব্য করেছেন ব’লে জানা যায় [...]

লিখেছেন |অক্টোবর ২২, ২০১৬|বিষয়: কবিতা, সংস্কৃতি, সাহিত্য আলোচনা|৪ টি মন্তব্য|

সাম্প্রদায়িক

লেখকঃ সৈয়দ ইমাদ উদ্দিন শুভ বিস্তীর্ণ এক শহরের মধ্য দিয়ে হেঁটে যাচ্ছি, চারদিকে মড়া আর লাশের স্তূপ; রক্তের গন্ধ, মাথার ওপর বিদীর্ন আকাশ, যেখানে চিল, কাক আর শকুনের মত শিকারিরা করে খেলা; চারদিকে কেবল মৃত উদ্ভিদ, শুকিয়ে যেন কাঠ; নদীতে কোন জল নেই, কেবল রক্তের স্রোত আছে মিশে, আর সেই লোহিত স্রোতে ভেসে আছে একগাদা [...]

ঠিকঠাক হয়ে যায়

সব সয়ে যায়। হয়ে যায়। একদিন; সবকিছু ঠিকঠাক হয়ে যায়। আজকাল ভাবি না; বুঝে যাই। ঘড়িটায়, চতুর্থ কাঁটা নেই, দাগগুলো কাটা নেই, তারপরও, চলে যায়। খামোখাই, লোকে বলে? সবকিছু ঠিকঠাক হয়ে যায়। অনন্ত সময়েতে; আছে নাকি সবটাই, তারাধুলো; মিহিদানা, হিসেবের শেষ নেই। সময়টা গোলমেলে, শুরুটাতে নেই সে, তারপর, ধরে নিই; ধরে টরে করে নিই, বেশ [...]

লিখেছেন |আগস্ট ১৯, ২০১৬|বিষয়: কবিতা, ছড়া, মুক্তমনা|১২ টি মন্তব্য|

শান্তিতে মারা যাবে তলাটা

দাড়ি চাঁছাচাঁছি নাই; হেঁহেঁ গোফ তবু চাঁছা চাই, মাথাটাও গেছে তাই, পাৎলুন টাক-নুর উপরে, উ-লালা, আঁট-সাঁট ফ্যাশনেতে হিজাবীও কম না, শিরকের কথা বলে; হালাকার নামে করে ফিৎনা। নাই সে'তো ঘরে নাই, নাই; হয়তো'বা দেশে নাই, গলাকাটা ক্রাশ লাগা দুষ্টুরা, সরকারি ঘরে নাই, ফিরে এলে দুষ্টু সে জঙ্গিরা; দশ লাখ পাবে ভাই, সরকারি কথা বটে, অপরাধ [...]