মেঘনাদ সাহা – জ্যোতিঃপদার্থবিজ্ঞানের অগ্রদূত

শুধু ভারতীয় উপমহাদেশে নয় - সমগ্র বিজ্ঞানের জগতে আধুনিক জ্যোতিঃপদার্থবিজ্ঞানের ভিত্তি গড়ে উঠেছে যে ক’জন মানুষের মৌলিক তত্ত্বের ওপর - অধ্যাপক মেঘনাদ সাহা তাঁদের অন্যতম। ১৯২০ সালে মেঘনাদ সাহার তাপীয় আয়নায়নের সমীকরণ (আয়নাইজেশান ইকুয়েশান) প্রকাশিত হবার পর থেকে ১৯৩৮ সাল পর্যন্ত জ্যোতিঃপদার্থবিজ্ঞানে যত গবেষণা হয়েছে তাদের প্রায় সবগুলোই সাহার সমীকরণ দ্বারা প্রভাবিত। নরওয়ের বিখ্যাত জ্যোতিঃপদার্থবিজ্ঞানী [...]

শিশির কুমার মিত্র – উপমহাদেশের বেতার-পদার্থবিজ্ঞানের পথিকৃৎ

বেতার যোগাযোগের ক্ষেত্রে গবেষণায় স্যার জগদীশচন্দ্র বসুর অবদানের কথা আমরা জানি। ভারতীয় উপমহাদেশে বেতার যোগাযোগ সম্পর্কিত গবেষণা প্রতিষ্ঠান ও প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাদান শুরু হয়েছে যাঁর হাত দিয়ে - তিনিও আরেকজন বাঙালি - ডক্টর শিশির কুমার মিত্র। তিনিই কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে বেতার-পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের সূচনা করেন। তিনিই উপমহাদেশের প্রথম বেতার সম্প্রচার চালু করেন - কলকাতা থেকে তাঁর ‘রেডিও টু-সি-জেড’ [...]

বিজ্ঞানী গোপালচন্দ্র ভট্টাচার্য

বর্ষাকাল,অনবরত বৃষ্টি চলছে। দূরে মাঠে,মাটি থেকে ৩/৪ হাত উপরে বৃষ্টির মধ্যেই হঠাৎ যেন একটা আগুনের গোলা জ্বলে উঠল। কিছুক্ষন এদিক ওদিক ছুটাছুটি করে মিলিয়ে গেল। ব্যাপারটা অনেকেই দেখল। স্বাভাবিক ভাবেই ভৌতিক ব্যাপার নিয়ে অলোচনা উঠল।একজন কেবল চুপ করে থেকে মাথা নাড়ছেন।তিনি বিশ্বাস বা অবিশ্বাসের কোন দলেই থাকলেন না। তিনি গোপালচন্দ্র  ভট্টাচার্য। একজন সকলকে জানান দিয়ে [...]

বিজ্ঞানী দেবেন্দ্রমোহন বসু

বাঙালি পদার্থবিজ্ঞানীদের মধ্যে দু’জন বসুর কথা আমরা অনেকেই জানি। তাঁরা হলেন স্যার জগদীশচন্দ্র বসু ও অধ্যাপক সত্যেন্দ্রনাথ বসু। জগদীশচন্দ্র বসু ছিলেন প্রথম বাঙালি পরীক্ষণ পদার্থবিজ্ঞানী - যাঁর কথা উঠলেই আমরা বাঙালিরা এই ভেবে কষ্ট পাই যে বেতার যোগাযোগে অগ্রগতি সাধনের জন্য ১৯০৯ সালে গুগলিয়েলমো মার্কনি ও কার্ল ফার্দিনান্দ ব্রাউন যে নোবেল পুরষ্কারটা পেয়েছেন তা আমাদের [...]

ড. ম. আখতারুজ্জামান স্যার …

ড. ম. আখতারুজ্জামান স্যার আর নেই। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক জামান স্যার দীর্ঘদিন ধরে ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন। চিকিৎসার জন্য বেশ কয়েকবার তাঁকে দেশের বাইরে যেতে হয়েছিলো। শেষবার বিদেশ যাওয়ার আগে এবং আসার পর কথা হয়েছিল। এরপর অনেক দিন যোগাযোগ হয়নি। সপ্তাহ তিনেক আগে ফোন দিলে জানতে পারলাম স্যার আইসিইউ তে ভর্তি আছেন। আজ [...]

পাটের জিন মানচিত্র- রাজনীতি না, মাকসুদল আলমের পথই সমাধানের পথ

খবরটা নানান বাংলাদেশী ব্লগে কালকেই পড়েছিলাম। আজ আরেকটু জানলাম। জেনেটিক্স বিজ্ঞানী মাকসুদল আলম ঢাকাতেই তৈরী করেছেন পাটের জেনোম। যার ফলে তৈরী করা যাবে নতুন ধরনের পাট-যা পাটচাষ এবং শিল্পের অনেক সমস্যার সমাধান করবে। তৈরী করা যাবে উন্নত মানের ফাইবার, খরচ কমানো যাবে জাগ দেওয়ার ( জলে পাট পচানো) । অথবা সেচের। মাকসুদল আলম আমেরিকাতে বিজ্ঞানী [...]

জগদীশচন্দ্র বসু

জগদীশচন্দ্র বসু প্রদীপ দেব ৩০ নভেম্বর, স্যার জগদীশ চন্দ্র বসুর জন্মদিন। বিজ্ঞানীদের স্মরণ শুধুমাত্র জন্মদিন বা মৃত্যুদিনের মত বিশেষ দিনের জন্য অপেক্ষা করে থাকে না। আমাদের অজান্তেই জগদীশ চন্দ্র বসু প্রতিদিন প্রতিমুহূর্তে স্মরণীয় - তাঁর বৈজ্ঞানিক অবদানের জন্য। আমরা হয়তো অনেকেই জানি না তাঁর উদ্ভাবন ও আবিষ্কারের অনেকগুলো দিক। ১৯০৯ সালের শেষের দিকে ইতালির গুগ্লিয়েল্‌মো [...]

ভালবাসার গন্ধ কত

এই মর্মে কমিটি সর্বসম্মতিক্রমে প্রাণরসায়ণবিদকে একটি “ভালবাসার গতি সঞ্চারন ও ইভ-টিজিং বন্ধকরণ গবেষণা কমিটি” করতে দায়িত্ব দিয়ে বর্তমান কমিটির বিলুপ্তি ঘোষণা করলেন। কমিটি এই সিদ্ধান্তে পৌঁছালেন যে, মশার কামড় থেকে বাঁচার যে পদ্ধতিতে বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানো হয়েছিল, একই পদ্ধতি নারী-পুরুষের ভালবাসার গন্ধ আবিষ্কারেও ব্যবহার করা হবে। এই পরীক্ষার একটি বাড়তি ফল হিসেবে ইভ-টিজিং এর প্রতিষেধক গন্ধও আলাদা খরচ ছাড়াই আবিষ্কার করা যাবে। শরীয়ৎ বিশেষজ্ঞ মৌলানা হাসান মাহমুদ এই বলে মত দিলেন যে, যেহেতু এই পদার্থগুলো আল্লাহ পাক আমাদের দেহেই তৈরি করেন, নিজেদের কল্যাণে এদের নিয়ন্ত্রণ করা কোন মতেই ধর্ম বিরোধী নয়। তা ছাড়া ‘মকসুদুল মু'মেনিন’ বই পড়ে, তাবিজ দিয়ে স্ত্রী-পুরুষ বা পরকীয়া ভালবাসা আদায়ের অনৈসলামিক ও অনিশ্চিত চেষ্টার চেয়ে বৈজ্ঞানিক উপায়ে আমাদের সামাজিক সমস্যাগুলো সমাধান করাই আল্লাহর কাছে অধিক শ্রেয়:।

বৈজ্ঞানিক সত্যেন্দ্রনাথ বসু

বৈজ্ঞানিক সত্যেন্দ্রনাথ বসু জন্মঃ ১ জানুয়ারি ১৮৯৪ মৃত্যুঃ ৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৪ আলবার্ট আইনস্টাইন আমাদের কাছে যতটা পরিচিত, সত্যেন্দ্রনাথ বসু ততটা নন। কারণ প্রচার মাধ্যমে আইনস্টাইন সুযোগ পেয়েছেন সত্যেন বসুর চেয়ে বেশি। তাছাড়া স্বদেশী বিজ্ঞান সাধকের প্রতি আমাদের উৎসাহ বরাবরই কম। এ আমাদেরই দীনতা। তত্ত্বীয় পদার্থবিজ্ঞানের কিছু কিছু বিষয়ে সত্যেন বসুর অবদান আইনস্টাইনের অবদানের চেয়ে বেশি। [...]

সত্যেন্দ্রনাথ বসু-র পৌত্র ফাল্গুনী সরকারের সাক্ষাৎকার

২০০৭ সালের ২৯শে জুন থেকে ১লা জুলাই যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান অঙ্গরাজ্যের ডেট্রয়েটে অনুষ্ঠিত ২৭তম "নর্থ অ্যামেরিকান বেঙ্গলি কনফারেন্স" উপলক্ষে প্রকাশিত ব্রোশারে এই সাক্ষাৎকারটি ছাপা হয়েছিল। (পৃষ্ঠা: ৭৭-৭৯) :line: সত্যেন্দ্রনাথ বসুর নাম যেন বিজ্ঞানের জগতে একটি সৌধ হয়ে আছে, বিশেষত কোয়ান্টাম পদার্থবিজ্ঞানের জগতে। মৌলিক কণা "বোসন", বোসনের ক্রিয়াকর্ম ব্যাখ্যায় সক্ষম "বোস-আইনস্টাইন পরিসংখ্যান" এবং "বোস-আইনস্টাইন কনডেনসেট"- সবগুলো নামই [...]