বিজ্ঞান বিষয়ক পত্রিকা

মাটি- মহাকাশের সঙ্গে জীবনের যোগ খুজতে

জামাল নজরুল ইসলাম (১৯৩৯ সাল ২৪ ফেব্রুয়ারি -২০১৩ সালে ১৬ মার্চ) ১৯৮৮ সালের কথা। কৃষ্ণবিবর বা ব্লাকহোল নিয়ে ভীষণ আগ্রহ। এ সম্পর্কে টুকরো টুকরো লেখা পড়েছি। দ্রুত কোনো কিছু পাওয়ার জন্য ইন্টারনেট ব্যবস্থা ছিল না তখন। ব্রিটিশ কাউন্সিল, জার্মান সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ও ভারতীয় হাইকমিশন এবং ব্যান্সডকের মতো গ্রন্থাগারগুলো একমাত্র সহায়। এ রকম একটি সময় ব্রিটিশ [...]

সবার একজন হয়ে ওঠার যাত্রা

সূর্য ওঠে নাকি ডোবে।। প্রশস্ত এক রাস্তা ধরে রিক্সা দিয়ে এগিয়ে গেলেও মিনিট বিশেক লাগে পৌঁছতে। জায়গাটা পতেংগা সমুদ্র সৈকতের নিকটবর্তী জেলে পাড়ার কাছে; খাড়ির মতো একটা জায়গা; মাঝে মাঝে হাওয়া এসে কেমন এলোমেলো করে দেয়। যেখানে অজস্র জেলে নৌকা ভাটায় দাড়িয়ে থাকে আর জোয়ারে চলে যায় সমুদ্রের গভীরে, মাছ ধরতে। রাস্তার কিছুটা প্রারম্ভে চট্টগ্রামে [...]

চেতনার মহাসমুদ্রে যাত্রা

২৭ বছরের একটি পথ আমি অতিক্রম করেছি। সময়টা একজন মানুষের জীবনে কম নয়, কাজের ক্ষেত্রে প্রায় পুরোটাই। এভাবে বক্তৃতা দিয়ে এত দীর্ঘ সময় ব্যায় করে ফেলেছি তা বিশ্বাসই হয় না। মনে হয় এই তো সেদিন। সবার সঙ্গে বিজ্ঞানের আনন্দ বিনিময়ের জন্য এই বক্তৃতা শুরু করেছিলাম। সময় অথবা নক্ষত্রকে জানা বা মহাবিশ্বকে বোঝার জন্যই শুধুই এই [...]

By |2019-09-28T21:02:02+06:00সেপ্টেম্বর 28, 2019|Categories: দর্শন, বিজ্ঞান, মহাবৃত্ত, শিক্ষা, সমাজ|4 Comments

পৃথিবীর পথে

মানবী মাঝে মাঝে অদ্ভুত সব কাহিনী এসে জড়ো হয়। কোনোটা প্রবল ঘোর লাগায়, কোনোটা আচ্ছন্নের মতো টানে। এটাও সেরকম- ঘর আর পথ, পথ আর ঘর, গল্প শোনা আর অনুভব। বহুদিন আগে : গাছ আর ঘাসে ভরা ছোট্ট এক পথ। সামনে শীতল্ক্ষ্যা আর তীরিবিনি খালের সংযোগ স্থল। এখানে আনমনে হেটে বেড়াতো এক কিশোর। কখনো প্রান্তে এসে [...]

জলের ভেতর জলের নাচন

মানুষ স্বপ্ন আর সংঘর্ষের মধ্যে দিয়ে এগিয়েছে। ভাবলে অবাক হতে হয়, একটা শহর পানির তলে ডুবে গেছে, দেশের ৯০ শতাংশ জায়গা বন্যায় আক্রান্ত, অথচ আমরা সময়ের প্রহেলিকা শীর্ষক আপেক্ষিক তত্ত্বের সময় সংক্রান্ত বক্তৃতা দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি, হাটু সমান পানি ঠেলে পোস্টার লাগাচ্ছে, টিকিট বিক্রি করছে বিজ্ঞান কর্মীরা, পত্রিকা প্রকাশের জন্য প্রেসে যাতায়াত করছি। অনেক সুবিধা [...]

মহাকাশ যাত্রায় নারীর অর্ধশত বছর..

লেখাটি ১৬ জুন দেওয়ার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছিল। কিন্তু পোস্ট করতে একটু দেরি হয়ে গেলো। মানবসভ্যতার অগ্রযাত্রার শুরুতে নারী-পুরুষের অগ্রাধিকার ছিল প্রায় সমান। ধারণা করা হয় কৃষিকাজ করার পদ্ধতি, মৃতপাত্র তৈরি, সুতা তৈরি এমনকি আগুন জ্বালানোর কৌশলও নারীরাই উদ্ভাবন করেছিল। তাছাড়া পরিবার প্রথার শুরুতে নারীরাই পরিবার নিয়ন্ত্রণ করতো এবং প্রতিষ্ঠিত ছিল মাতৃতান্ত্রিক পরিবার প্রথা। এরপর [...]

জীবনের বাঁকে দাঁড়িয়ে

কখনো মানুষ অদ্ভুতসব ভাবনার ঘোরে পড়ে যায়। কেমনভাবে তা জীবনের গভীর অনুভবের সঙ্গে জড়িয়ে যায়। তখন অতীত ভবিষ্যত আর বর্তমানটা সেলুলয়েডের ফিতার মতো আগুপিছু হতে থাকে। নিজে যেন ভাসতে থাকি সময় নদীর ভিতর দিয়ে। সেই কিশোরবেলায় একাকি দাড়িয়ে বহমান নদীকে দেখতাম আর দিগন্তের পাড় থেকে শীতলক্ষ্যা ছাড়িয়ে মেঘনার উচ্ছাস ভেসে আসতো- পৌরাণিক সৌন্দর্য ছড়িয়ে থাকা [...]

নক্ষত্রেরও আয়ু শেষ হয়…

পৃথিবী চলছে তার নিজস্ব গতিতে। তার পিছু নিচ্ছি আমরা। পৃথিবী আমাদের অনেক দিচ্ছে ঠিকই, তবে কেড়েও নিচ্ছে বিস্তর! তবু আমরা পৃথিবীর মায়া ছাড়তে পারি না। প্রতিনিয়ত তার শরীরে হেলান দিয়ে স্বপ্নের পথে হেঁটে যাই। হলুদ ফিতার মতো আমাদের বেণিরোগা নদীগুলো আজও আমাদের স্বপ্ন দেখিয়ে যাচ্ছে। মেঘনার পাশ দিয়ে যতবার গিয়েছি ততবারই ইতিহাসের স্বর্ণরেণু ঘিরে ধরেছে। [...]

থাকা না থাকার কাব্যকথা

আমাদের অজ্ঞাতে, অবহেলায় পৃথিবীর বুক থেকে প্রতিনিয়ত হারিয়ে যাচ্ছে অনেক কিছু। আর এভাবে নিজেদের ভুলে ও দোষে আমরা মানুষরাই দিনদিন পরিবেশ-প্রতিবেশকে করে তুলছি এমন আতঙ্কজনক। একদিন হয়তো ডোডরা পাখি কিংবা ডাইনোসরের মতো মানুষদের অস্তিত্বও খুঁজে পাওয়া যাবে না পৃথিবীর বুকে। কার্ল সাগানের The Backbone of night পড়ে এক অদ্ভুত অনুভূতি হয়। কাউকে কাউকে অনেক কাছের [...]

সাইকোহিস্ট্রি : অন্য পৃথিবীর আলো

পৃথিবীতে সুন্দরভাবে বেঁচে থাকার স্বপ্ন কমবেশি সবাই ধারণ করে। কারণ, এখনও পর্যন্ত জীবন ধারণের উপযোগী আর কোনো গ্রহের সন্ধান জানা যায়নি। তবু থেমে নেই অনুসন্ধান। কেপলার ছুটে চলেছে। কিসের সন্ধানে? এটা চিঠির আকারে লেখা। এক ধরনের ব্যাক্তিগত পরিভ্রমণও হয়তো গায়া, তোমার কথা শুনে একটা গল্প মনে আসছে। অনেকদিন আগের। কৈশোরের। দিনগুলো ছিল ছুটে বেড়ানোর। কোনো [...]