About নৃপেন্দ্র সরকার

ড. নৃপেন্দ্র নাথ সরকার পেশায় শিক্ষক ও গবেষক। সম্প্রতি একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অবসর নিয়ে বর্তমানে টেক্সাস এ এন্ড এম ইউনিভার্সিটিতে সিনিয়র লেকচারার হিসেবে কর্মরত।

মরণ-বেষ্টনীতে আমার মায়ের শেষ দিনগুলি

[এই ক্ষুদ্র লেখাটি লিখতে গিয়ে ডঃ অভিজিৎ রায়ের কথা বড়ই মনে পড়ছে। অভিজিতের কাছে এই লেখাটির একটি বিশেষ মূল্য থাকতো, কারণ এরকম একটি লেখা মুক্তমনায় তিনি লিখেছিলেন ২০১০ সালের দিকে। ওর সেই লেখা ধরেই আমিও একটা লেখা লিখেছিলাম মুক্তমনায়। আমি এই লেখাটি বিনম্র চিত্তে অভিজিতকেই উৎসর্গ করতে চাই।] আমার মা মৃত্যুর আগের প্রায় সাতদিন মরণ-বেষ্টনীর [...]

ওস্তাদ আলাউদ্দিনকে মনে পড়লো

Agricultural Engineering এ পিএইচডি ডিগ্রী শেষে চাকুরী জুটলো না। তখন Texas A&M University এর এক প্রফেসর বন্ধুর পরামর্শে Electrical Engineering দ্বিতীয় পিএইচডি শুরু করি। তিনি Robust Control এ পৃথিবীর একজন নামকরা প্রফেসর। কিন্তু ওস্তাদ আলী আকবর খানের একজন প্রিয় ছাত্র। তিনি খান সাহেবের কলেজের ফি দিতেন নিয়মিত। বিনিময়ে ক্লাশের অডিও ক্যাসেট পেতেন। সেটা শুনেই তিনি [...]

তারাদের ধূলিকণার ধূলিকণায় মিশে যাওয়ার মূহুর্ত সমাগত

আমার মায়ের বেঁচে থাকার দিনের সংখ্যা হ্রাস হচ্ছে। নব্বই ছুই-ছুই করছে। মা এখন বার্ধক্যজনিত শারিরীক কষ্টে আছে। খেতে পারছে না। বমি হয়ে যাচ্ছে। আজ সকালে পোলাও চালের এক চামচ ভাত খেয়েছে। এখন সন্ধ্যা। আর কিছু খেতে পারছে না। জীবন ধরে রেখে কষ্ট করা অমানবিক, অর্থহীন। ত্বড়িৎ জীবনাবসানই শ্রেয়। তাই মায়ের জীবনাবসানে আমার কোন খেদ নেই। [...]

ভবিষ্যৎ ডঃ অভিজিৎ রায়কেই শ্রেষ্ঠ বাঙালি হিসেবে অভিষিক্ত করবে

সহজ সত্যটা বুঝতে হবে। এটা বুঝার জন্য রকেট বিজ্ঞানী হওয়ার দরকার নেই। বুঝতে চাইলেই বুঝা যায়। "ধর্ম", "অন্ধ বিশ্বাস", "কুসংস্কার", এবং "CULT" একই জিনিষের ভিন্ন ভিন্ন নাম। অন্ধ ধর্ম বিশ্বাস থেকে বেরিয়ে আলোকে আসার সাহস থাকতে হবে। কাগজে লেখা থাকলেই এবং পছন্দের কেউ একটা কিছু বললেই ধ্রুব সত্য না ভেবে নিজস্ব বুদ্ধিমত্তা এবং যুক্তিবোধ দিয়ে [...]

“আগামীকাল টিসি নিয়ে যাবেন” এই কথা বলে দেওয়ার জন্য গার্ডিয়ান ডাকার রীতিনীতি কোন পৃথিবীতে আছে?

বাংলাদেশ কৃষিবিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষায় ছাত্রদের নকল করা নিয়ে ছাত্র-শিক্ষকদের অপ্রীতিকর ঘটনা প্রাত্যহিক ব্যাপার ছিলো। ১৯৮৬ সালে সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে Academic Council এ সবচেয়ে নবীন সদস্য এবং কাউন্সিল মিটিং এ আমার প্রথম যোগদান। ভিসির Conference Room এ জায়গা হয় না, তাই কোন এক ক্লাশ রুমে মিটিং। আমার বক্তব্য পেশ করার জন্য ক্লাশের ব্ল্যাকবোর্ডের সাহায্য চাইলাম। ভিসি প্রফেসর [...]

By |2018-12-11T02:05:36+06:00ডিসেম্বর 11, 2018|Categories: ব্লগাড্ডা, শিক্ষা, সমাজ|2 Comments

হিন্দু কন্যার কন্যাদায়গ্রস্থ এক মুসলিম পিতা

প্রথম পর্ব দ্বিতীয় (শেষ) পর্ব। ঈশ্বর চন্দ্র বিদ্যাসাগর ১৮৫৫ সালে হিন্দু বিধবা বিবাহের উপর দুইখানা বই লেখেন। তাঁর যুক্তির ভিত্তিতে একই সালে হিন্দু বিধবা বিবাহ আইন পাশ হয়। এই আইন পাশের ১৫৫ বছর পরে ভারতের বহরমপুরের নলখোলাতে দেখে এলাম ঈশ্বর চন্দ্রের সমস্ত শ্রম পন্ডশ্রম হয়ে গেছে। হিন্দু সমাজ ব্যবস্থা আগে যা ছিলো এখনও তাই আছে। [...]

এক হিন্দু কন্যার কন্যাদায়গ্রস্থ মুসলিম পিতা

প্রথম পর্ব। একটা হিন্দুর দুই সন্তান। সে ছেলে সন্তানের বেলায় বাবা বা পিতা। কিন্তু মেয়ে সন্তানের বেলায় "কন্যাদায়গ্রস্থ পিতা"। এটা খাচ্চর হিন্দু সমাজের একটা চিত্র। বাবার মাথায় দুই মন ওজনের একটা পাথরের চেয়েও বেশী ভারী কন্যাটি। ভারমুক্তি ঘটে যেকোন একটা ছেলে বা কোন ঘাটের মরা বুড়োর সাথে বিয়ে দিতে পারলে। খাচ্চর হিন্দু সমাজের দ্বিতীয় চিত্রটি [...]

Intelligent উদ্ভিদ

দুষ্টু উদ্ভিদ। অভিমানী উদ্ভিদ। অবিশ্বাস্য রকম Intelligent উদ্ভিদ। মানুষের একমাত্র মগজে (Brain) আছে Multiple Control Units। উদ্ভিদেরও Multiple Control Units রয়েছে, কিন্তু তা ডিস্ট্রিবিউটেড, বিচ্ছিন্ন। এখন ল্যাপটপ, ডেস্কটপেও ব্যবহৃত হচ্ছে মাল্টিপ্রসেসর। অনেক আগেই স্পেস মিশন সহ গবেষনা প্রতিষ্ঠানে ব্যবহার শুরু হয়েছে হাজার হাজার প্রসেসর যোগে বহুজায়গায় অবস্থিত কিন্তু একক কম্পিউটার সিস্টেম - Distributed Multiprocessor system. [...]

ধর্মের শক্ত পাঠ যার হাতে তিনি চলে গেলেন

দাসদার মাথায় ছিলো না যে তিনি কোনদিন মারা যাবেন। গতকাল তিনি শেষ পর্যন্ত চলেই গেলেন। গতবছর একদিন চারটে বেগুন ভাজি, লাউয়ের সাথে ক্যাটফিসের তরকারী আর লাল শাক দিতে গিয়েছিলাম। ঘরে ঢুকতেই বললেন - "নৃপেন, খাবার এনেছো? দাও।" সাথে সাথেই খেতে শুরু করলেন। অত্যন্ত তৃপ্তি নিয়ে খেয়ে বললেন - "রাজভোগ খেলাম।" মিনু লাল শাক করেছিলো। গতকাল [...]

“আলো হাতে আঁধারের অভিযাত্রী” আমার মস্তিস্ক কোষের একটি অংশে স্থায়ী বাসিন্দা

অপ্রিয় সত্য বলতে নেই, লিখতে নেই। লতিফ সিদ্দিকী মন্ত্রীত্ব হারিয়েছেন অপ্রিয় সত্য কথনের জন্য। প্রাণে বেঁচে গেছেন - কারণ তিনি সরকার দলের লোক। বিপদে পড়ে বুঝে গেছেন - অপ্রিয় কিছু বলতে নেই। আব্দুল গাফফার চৌধুরীও বিপদে পড়েছিলেন। তিনি সরকারী দলের একনিষ্ঠ সেবক। তাই বেঁচে গেছেন। বিপদে পড়ে বুঝে গেছেন - অপ্রিয় কিছু বলতে নেই। আরজ [...]