About বিপ্লব দাস

পশ্চিমবঙ্গ নিবাসী মুক্তমনা লেখক। লেখার বিষয় বিজ্ঞান, ধর্ম, সমাজ, যুক্তিবাদ, রাজনীতি, পরিবেশ। লেখা বইগুলি হল-''ফেংশুই ও বাস্তুশাস্ত্র কি ভাগ্য ফেরাতে পারে?'' (প্রকাশক- মুক্তচিন্তা), ''গ্লোবাল ওয়ার্মিং'' (প্রকাশক- দে'জ পাবলিশিং, কলকাতা), ''পরমাণু বিদ্যুৎ'' (প্রকাশক- দে'জ পাবলিশিং, কলকাতা) এবং "বিজ্ঞান ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনের ইতিহাস" ( যৌথ ভাবে প্রবীর ঘোষের সাথে লেখা) (প্রকাশক- দে'জ পাবলিশিং, কলকাতা)। 'ভারতীয় বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী সমিতি'র প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক। ২০১০ সালে 'RATIONALIST AWARD' পেয়েছেন।

ডাইনি সন্দেহে হত্যা বন্ধ হল পুরুলিয়ার গ্রামে

বছর দেড়েক আগে, পুরুলিয়া জেলার মানবাজার ও বরাবাজার থানা অন্তর্ভুক্ত গ্রামগুলিতে পরপর কিছুদিন ধরেই ডাইনি সন্দেহে অনেকের ওপর নেমে আসছিল নির্মম অত্যাচার। সিন্দ্রি, শশাংডি, জিলিং গ্রামের পর একদিন কপড়রা গ্রামে এরকম পরিস্থিতির সৃষ্টি হল। সেখানের সীতারাম মান্ডির ছেলে এবং স্ত্রী এর জ্বর দীর্ঘদিন ধরে ছাড়ছেনা। গ্রামবাসীদের অনেকেই এর পেছনে কোনো ভুত-প্রেত বা ডাইনির অশুভ নজর [...]

ইমামভাতা- একটি নির্লজ্জ সাম্প্রদায়িক পদক্ষেপ

এ রাজ্যের মসজিদের ইমামদের মাসিক ভাতা দেওয়ার ব্যাপারে রাজ্য সরকারের সাম্প্রতিক বিজ্ঞপ্তি নিয়ে রাজ্যের প্রধান বিরোধী দলগুলির মৌনতা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ। ইমামদের মাসিক ভাতা, বাসস্থান নির্মানে অর্থসাহায্য, সন্তান পালনে অর্থসাহায্য – সবে মিলে যে বিশাল প্যাকেজের সগর্ব ঘোষণা হল তারপর কেবলমাত্র বিজেপির রাহুল সিনহা ছাড়া কারোর কোনো ফোঁসফাঁস দেখা গেল না। সবাই যেন কোনো এক কারনে [...]

মুক্তমনাতে ফিরে তাকাই

সেই পদ্মা রুইদাস যাকে নিয়ে একটা সময়ে বেশ হৈ হৈ ব্যাপার হয়েছিল, আমি মুক্তমনাতে একটা লেখাও লিখেছিলাম সেসময়ে। সেই পদ্মা রুইদাস আজ রাজধানী এক্সপ্রেসে চাপলো। রাষ্ট্রপতির হাতথেকে তার বিদ্রোহিণী ভুমিকার সম্মান নিতে। পদ্মাকে নিয়ে আগের লেখার লিঙ্ক https://blog.mukto-mona.com/?p=2095

বুজরুকেরা ধরা পড়ল

আমরা জানি দু পাঁচটা প্রতারককে ধরে নর্দমা পরিস্কার করা যায় না কিন্তু নর্দমা পরিস্কার করার কৌশল সবাইকে শিখিয়ে দেওয়া যায়, উৎসাহিত করা যায়। তাই মাঝে মাঝে এরকম দৃষ্টান্তের প্রয়োজন সাধারন মানুষের চেতনায় কিছু ধারণা পৌঁছে দিতে। জনসাধারণও যখন প্রথম কোনো অলৌকিক কিছু দেখবে প্রথমেই অন্ধের মত বিশ্বাস করবে না অন্তত দুবার ভাববে।

প্রিয় পাঠকেরা একটি মানবিক আবেদন

সামনেই।পাঠ্যস্থানে এই নারকীয় দৃশ্য তাদের মনে যে ভয়ঙ্কর রকম কুপ্রভাব ফেলে তা নিশ্চয় বলার অপেক্ষা রাখেনা। পুজোর উদ্যোক্তারা এবছরেও আগস্ট মাসের তৃ্তীয় সপ্তাহে এই কুকাজটি করবে। এই পিটিশনের মাধ্যমে বিষয়টি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্যপালকে জানানো হবে তারা যেন অবিলম্বে ব্যাবস্থা নেন। জনমত গড়ে তুলতে আপনার অনলাইন স্বাক্ষর আমাদের একান্ত প্রয়োজন।

লড়াই চলছে। পাশে পেয়েছি অনেককে।

প্রথমত অ্যাসিড কেসটির ক্ষেত্রে জানগুরু মানিক যুগী কদিন আগে গ্রেপ্তার হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে শেষ কবে জানগুরু গ্রেপ্তার হয়েছে মনে পড়ছে না। দ্বিতীয়ত কাটু হেমব্রমের কেসটিতে জানগুরু নেপাল বাউরি যে কিনা আবার বন দপ্তরের কর্মচারী, প্রশাসনিক দপ্তর গুলিতে বারা বারে হত্যে দিয়ে তাকে চাকরী থেকে বহিস্কার করানো গেছে

বাঁকুড়ার হোটেলে আবার ভবিষ্যত বলা জ্যোতিষির প্রতারণা

পন্ডিত সীতারামজি মহারাজ গত ১৩ মে ২০১০ থেকে বাঁকুড়া শহরের দেবর্ষি হোটেলের ১০৪ নম্বর রুমে বসছিলেন। তিনি একটি লিফলেট প্রচারিত করেন যাতে তিনি দাবি করেন যে, শুধুমাত্র চেহারা এবং হাতের রেখা দেখে ভূত-ভবিষ্যত বলতে পারেন। মাথা ভর্তি কাঁচা-পাকা চুল, লম্বা দাড়ি, গেরুয়া বসন পরিহিত তান্ত্রিক চেহারার জ্যোতিষি সীতারাম যুক্তিবাদী সমিতির প্রশ্ন বানে ভেঙে পড়ে এবং সঠিক যুক্তিপূর্ন কোনো জবাবই সে পরিস্কার ভাবে দিতে পারেনি। তরুন, চন্দ্র, সুধীর, প্রশান্ত মন্ডল সহ আমরা সবাই বাঁকুড়া সদর থানায় প্রতারনার অভিযোগ জানাতে যাই।

ডাইনি অপবাদে মুখে অ্যাসিড দিল জানগুরু

জলপড়ার নাম করে সে বৃ্দ্ধা কিরনবালার মুখে ঢেলে দেয় তীব্র অ্যাসিড। অ্যাসিডে মুখ, গলা, বুক, পিঠ, হাত ভয়ঙ্কর ভাবে পুড়ে যায়। আশঙ্কাজনক ভাবে বৃদ্ধাকে রাইপুর গ্রামীন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আন্তর্জাতিক নারী দিবসে নাবালিকা বিবাহ

আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে যখন ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে হাজার রাজনৈতিক দলের লক্ষ লক্ষ গনসংগঠণ নারীদের মর্যাদা রক্ষার্থে গলা ফাটাচ্ছেন সেই সময় এই দেশেরই একটি ঘটনা তুলে দিতে বাধ্য হচ্ছি। এটি কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয় বরং ভারতের বেশীরভাগ মেয়েদের জীবন সংগ্রামের সাথে খুবই মিল আছে এতে [...]

এত রক্ত কেন ?

কোনো এক কালে নরবলির প্রচলন ছিল, সতীদাহপ্রথা ছিল। শুধুমাত্র সচেতনতা বৃদ্ধিতে এই প্রথাগুলি দূর হয়নি, হয়ওনা। জনসচেতনতা এবং কঠোর আইনের সঠিক প্রয়োগে এই কুপ্রথাগুলিকে আমরা প্রায় বিদায় করতে পেরেছি। রবীন্দ্রনাথও তো বলিপ্রথার বিরুদ্ধে ছিলেন। আমাদের হয়েই লিখে গেছেন বিসর্জনের মত নাটক।