কি ছিলো তোমার চোখের নীলে
আমি দেখিনি- আমি তো মশগুল ছিলাম
তুমুল সুগন্ধি ছড়ানো- তোমার গহীন কালো চুলে,
আমি তো ভুলে গেছিলাম নিঃশ্বাস নিতে, আসলে
আমি বিভোর ছিলাম তুল তুলে সান্দ্র ফুলে;
মখমল বিছানো বুকের আনন্দ উপকূলে।

চন্দ্রশিলা খচিত মসৃণ শরীর তোমার
পারিজাত শিল্পের তারা খচিত আকাশ, শৈলী ভরা রাতের গহ্বরে
আমি তো মগ্ন ছিলাম নির্লিপ্ত ধ্যানে- গুপ্তচারী অভিসারে;
আমি তো পেয়েছি বাগে
নিশি কান্তার সুপ্ত আবেগে, উচ্চাঙ্গ নৃত্যে
রূপে তোমার জগত কাঁপে-
আমি তো চেয়েছি মন- নতুন করে বাঁচতে।

অথচ!
তোমাকে ছুঁতে শিখিনি, ছুঁতে গেলে বেমালুম গলে যাই
সন্তাপে- উত্তাপে ভুলে যাই স্পর্শের ধর্ম
যদিও ওষ্ঠে তোমার অহল্যা ঝুলে, আলিঙ্গন মেলে দেয় ডানা
কানায় কানায় ভরে উঠে পূর্ণিমা তিথি…
সরোজ শ্রাবণে আমিই একা অতিথি,
আহ: লোভী জীবন…।

-দা উ দু ল ই স লা ম

[228 বার পঠিত]