লিখেছেনঃ রঞ্জন নন্দী
.
টগবগে পাঁচ পাঁচটি যুবক, একই পাড়ায় ঘর
ধর্ম জাতি ভিন্ন হলেও বন্ধু হরিহর
একটি ছিল নাস্তিক টাইপ মানতো না সে কিছু
চাপাতিবাজ আস্তিকে তার ছুটতো পিছু পিছু
একদিন এক দুপুরবেলা কুপিয়ে গেল তাকে
চারবন্ধু দৌড়ে পালায় কে বাঁচাবে কাকে
একটি তাদের বৌদ্ধ ছিল মাছ মাংস মানা
এক সন্ধ্যায় তার বাড়িতেও চাপাতি দেয় হানা
তিনবন্ধু খবর পেয়ে লুকিয়ে কাঁদে খুব
যেন কিছুই হয়নি তারা প্রকাশ্যে নিশ্চুপ
আরেক জনাও ধার্মিক খুব প্রিস্ট হবে গির্জায়
প্রাণ হারালো একই ভাবে মৌলবাদীর ঘায়
দুইবন্ধু দুঃখ পেল রা নেই তবু মুখে
বললে কিছু তারও যদি ছুরি চালায় বুকে?
আরেক বন্ধু হিন্দু ছিল, থাকতো সে মন্দিরে
আগুন দিল তার আবাসে রাতেই ম’লো পুড়ে
শেষ বন্ধু বাক্রুদ্ধ এখন সে যে একাই
নিঃসঙ্গ সময় কাটে পিছন ফিরে দেখায়
তবুও মনে সাহস বেজায়, পায়নি কিছু ভয়
নাস্তিক নয়, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীস্টান-ও সে নয়
ভয় কী আমার? ভাবতে ভাবতে কিনতে গেল জামা
মরে গেলো, টের পেল না, শপিং মলে বোমা ।।
.
( যোগীন্দ্রনাথ সরকারের কবিতা ‘হারাধনের দশটি ছেলে’ র অনুকরনে লেখা এই ছড়া/কবিতাটি )

[352 বার পঠিত]

এই লেখাটি শেয়ার করুন:
0