ঠিকঠাক হয়ে যায়

By |2016-08-19T14:23:53+00:00আগস্ট 19, 2016|Categories: কবিতা, ছড়া, মুক্তমনা|12 Comments

সব সয়ে যায়।
হয়ে যায়। একদিন;
সবকিছু ঠিকঠাক হয়ে যায়।

আজকাল ভাবি না;
বুঝে যাই। ঘড়িটায়,
চতুর্থ কাঁটা নেই,
দাগগুলো কাটা নেই,
তারপরও, চলে যায়।

খামোখাই, লোকে বলে?
সবকিছু ঠিকঠাক হয়ে যায়।

অনন্ত সময়েতে;
আছে নাকি সবটাই,
তারাধুলো; মিহিদানা,
হিসেবের শেষ নেই।

সময়টা গোলমেলে,
শুরুটাতে নেই সে,
তারপর, ধরে নিই;
ধরে টরে করে নিই,
বেশ দেখি চলে যায়,
গা-ণিতিক সমাধান;
বেশ দেখি মিলে যায়;
তেমনটা, বয়ে যায়।

ঠিকঠাক তাল মেপে,
খুব চেনা লয় রেখে,
কত কিছু টিকে রয়,
তারপরও কেউ কয়,
নিজে মরে বেঁচে থাকো,
কিছু করে টিকে থাকো,
জেনে শুনে, দিতে থাকো,
এইসব, ইত্যাদি, ওরা কয়।

দাও বলে নিতে থাকে,
রশিদটা সাদা থাকে,
বাকি থাকে, তবু চায়,
কবে নাকি বুঝে নেবে।

জীবনটা বয়ে যায়,
লোকে কথা কয়ে যায়,
কত কিযে হয়ে যায়,
তারপরও হেসে কেঁদে;
ঠিক ঠাক হয়ে যায়।

অনন্ত সময়েতে;
আছে নাকি সবটাই,
এইভাবে, অনিয়ম নিয়মে,
সবটাই ঠিকঠাক হয়ে যায়?

About the Author:

মুক্তমনা ব্লগার। আদ্দি ঢাকায় বেড়ে ওঠা। পরবাস স্বার্থপরতায় অপরাধী তাই শেকড়ের কাছাকাছি থাকার প্রাণান্ত চেষ্টা।

মন্তব্যসমূহ

  1. নীলাঞ্জনা আগস্ট 20, 2016 at 10:04 অপরাহ্ন - Reply

    কতকিছুই তো নাই!
    কত মহামূল্যবান কিছুই তো গেলো হারাই!
    তবুও চ’লে যায়
    যাক না
    চলে যদি চলুক না ছাই!

    • কাজী রহমান আগস্ট 22, 2016 at 5:08 পূর্বাহ্ন - Reply

      !
      .
      দাও বলে নিতে থাকে,
      রশিদটা সাদা থাকে,
      বাকি থাকে, তবু চায়,
      কবে নাকি বুঝে নেবে।
      .
      !
      🙁

      • নীলাঞ্জনা আগস্ট 22, 2016 at 6:53 পূর্বাহ্ন - Reply

        নেবে তো নিক না!
        তবে রশিদটা কালো করে দিক না!

        • কাজী রহমান আগস্ট 22, 2016 at 1:45 অপরাহ্ন - Reply

          কেনো কেনো , কালো কেনো? কেন কালো?
          আমরা যে সব দিয়ে গেলাম এত্তো আলো;
          ভেবে দেখো, কালো নাকি আলো ভালো?
          সস্তা তো না, কষ্ট জাগা দিন এবং রাত্রিগুলো,
          রোদ পোড়াদের এমনি দেওয়া এত আলো,
          তবু; মগজধোপার ছানারা সব পালায় কেন?

  2. যুক্তি পথিক আগস্ট 20, 2016 at 3:53 অপরাহ্ন - Reply

    অভিজিৎ দা র কোন একটি লেখায় হুমায়ন আজাদ স্যারের কোন একটি উদ্ধৃতিতে ‘কাব্যানুভূতি’নামক শব্দটি পাই।মনে হচ্ছিল,শব্দটি তাঁর নিজেস্ব সৃষ্টি।এখানে প্রাসঙ্গিক না হলেও কবিতার বিশেষত্ব বোঝানোর জন্যই শুধু শব্দটি আনা।দুঃখিত নির্দিষ্ট কোন রেফারেন্স দিতে না পারায়।

    • কাজী রহমান আগস্ট 20, 2016 at 7:51 অপরাহ্ন - Reply

      🙂 রেফারেন্স লাগবে না 🙂

      কি বলেছেন তা’ই শুধু বুঝতে চেয়েছিলাম; এইবার ঠিক আছে।

      ভালো থাকুন।

  3. গীতা দাস আগস্ট 20, 2016 at 3:18 অপরাহ্ন - Reply

    ঘড়িটায়,
    চতুর্থ কাঁটা নেই,
    দাগগুলো কাটা নেই,
    তারপরও, চলে যায়।

    অসাধারণ !

  4. যুক্তি পথিক আগস্ট 20, 2016 at 12:40 পূর্বাহ্ন - Reply

    বন্ধু,ভিতরের অভিব্যক্তি প্রকাশের শক্তিশালী একটি পদ্ধতি হল কবিতা।তবে আবেগ আর চিরপুরাতনকে আকড়ে ধরে কবিতাকে বাড়িয়ে তুলে বড় কবি হওয়া গেলেও সমাজকে পরিবর্তন করা যায় না।আপনার কবিতায় আমার এই কাব্যানুভূতিকে(আজাদ স্যারে একটি শব্দ) খুজে পেলাম।

    • কাজী রহমান আগস্ট 20, 2016 at 9:37 পূর্বাহ্ন - Reply

      আপনার কবিতায় আমার এই কাব্যানুভূতিকে(আজাদ স্যারে একটি শব্দ) খুজে পেলাম।

      একটু বুঝিয়ে বললে ভালো হতো 🙂

  5. যুক্তি পথিক আগস্ট 19, 2016 at 4:21 অপরাহ্ন - Reply

    এখানে যেকোন লেখায় নিজের অভিমত দিতে পারায় অনেকটা আনন্দবোধ করি।কেননা যুক্তিবাদীদের আনন্দ যুক্তিতেই। আপনার খানিকটা নির্লিপ্ত ছন্দের ভিতরে এক সুতীব্র চিৎকার শুনতে পেলাম ।অনেকটা সময় লেগেছে আপনাকে উপলব্ধি করতে।আসলে কবিতাকে এরকমই হতে হয়।ধন্যবাদ,আমাদেরকে,নব্য মুক্তমনাদেরকে এভাবে জাগিয়ে রাখার জন্য।

    • কাজী রহমান আগস্ট 19, 2016 at 11:26 অপরাহ্ন - Reply

      অন্যকে শুনতে চাওয়াটাই তো অনেক। আপনি শুধু শুনতেই চান’নি, বুঝতেও চেয়েছেন। পাশে থাকবার জন্য অনেক ধন্যবাদ বন্ধু।
      নিরাপদে থাকুন।

মন্তব্য করুন