ঠোঁটের কোনে জেগে উঠা;
এক নদী হাসি,
ভেসে যায়,
বেহুলাহীন লখিন্দরের ভেলায়।
কপালের রেখা বেয়ে নেমে আসা,
গঙ্গার কূলে তখন চণ্ডাল;
একাকী দাপিয়ে বেড়ায়।

সঙ্গম সুখ হত;
মানব-মানবী প্রার্থনারত।

যোনী-লিঙ্গের অর্থ বদলে যায়;
যূথীবনে চাঁদের মেলায়।

কণ্ঠে নেমে আসা সুরের জোয়ারে;
কে আর জেগে রয়, রাত ?
রাত নেই এখানে।
আলোর প্লাবনে সবকিছু ঝাপসা, অর্থহীন;
তবুও অর্থের পেছনে, আর্তনাদ;
ঢাকা পড়ে রয়,
খাজনার চেয়ে বাজনার গুণ।

তুমিই নমস্য, আরাধ্য।
আমিই তোমার অনায়স বধ্য।

[216 বার পঠিত]

এই লেখাটি শেয়ার করুন:
0