আমরা পালাচ্ছি মধ্যরাতের কূয়াশা পেরিয়ে
দূরের কোনো গ্রামে কিংবা কোনো স্বপ্নরাজ্যে
আমরা পালাচ্ছি।
হেমন্তের শীতে সোনালী ধানের ডগা মাড়িয়ে
আমরা পালাচ্ছি।
প্রিয় লাটিম-ঘুড়ি-ফুটবল
প্রথম পড়া বাল্যশিক্ষা সব ফেলে
আমরা পালাচ্ছি।
বাড়ির উঠোন, আম-জাম-নারকেল
ফুলের বাগান প্রজাপতি ফড়িং সব পেছনে ফেলে
আমরা পালাচ্ছি।
খেলার সাথীদের ছেড়ে
আমরা পালাচ্ছি।
ছোটো ছো্টো পায়ে ঘুম চোখে
মায়ের হাত ধরে
আমরা পালাচ্ছি।

আমরা পালাচ্ছি কোথায় জানি না
তবুও আমরা পালাচ্ছি
পেছনে হায়েণা দস্যু
আমরা পালাচ্ছি
কখন পংখীরাজের ঘোড়ায় চড়ে
এক রাজকুমার উড়িয়ে নেবে স্বপ্নরাজ্যে
সেই আশায় ভোরের কূয়াশার দিকে
ছোটো ছো্টো পায়ে ঘুম চোখে
মায়ের হাত ধরে
আমরা পালাচ্ছি।

(সেই থেকে মুক্তিযোদ্ধারাই আমার স্বপ্নের রাজকুমার। বাংলাদেশ এক স্বপ্নরাজ্য।)
……
কিন্তু তবু আমরা পালাচ্ছি
এখনও পালাচ্ছি।
কার ভয়ে? কিসের ভয়ে?

আমরা পালাচ্ছি
স্বাধীন দেশ থেকে
স্বাধীনতার স্বপ্ন থেকে
জাতীয়তাবাদ ও গনতন্ত্র থেকে
ধর্মবিশ্বাস কিংবা ধর্ম-অবিশ্বাস থেকে
ধর্মনিরপেক্ষতা ও সমাজতন্ত্র থেকে
সাম্য-সৌহার্দ্য ও পরমত সহিষ্ণুতা থেকে
হায়েণা দস্যুর ভয়ে
পরাজিত শত্রুর ভয়ে
আমরা আবার পালাচ্ছি…
এখনও আমরা পালাচ্ছি…

পলায়ণপর পথের এক আলোকিত সমাপ্তির আশায়
আমরা যেন আজ একযোগে সবাই পালাচ্ছি…

আবার আসবে কোনো রাজকুমার
সেই আশায় ভোরের কূয়াশার দিকে
এখনও আমরা পালাচ্ছি…

[325 বার পঠিত]

এই লেখাটি শেয়ার করুন:
0