ক্ষিধে আর ঈশ্বরের যুদ্ধ

আলোগতি ছোঁয়া জানবার কালে,
বেশিদিন ধুঁকবে না মানুষ,
পেটে টান ধরলেই,
ঈশ্বর পেড়ে খাবে।
ঈশ্বর হবে বর্জ্য।

তারপর শোবে।
শুয়ে শুয়ে ছোঁবে।
ছুঁয়ে শুয়ে, নিজেরাই ঈশ্বর হবে।

এবং ঈশ্বর মিলনের নবজাতক, দেবে উপহার।

ক্রমশঃ উত্তপ্ত হয়ে ওঠা গ্রহে,
অনাগত ক্ষিধে আর ঈশ্বরের যুদ্ধে,
কোনঠাসা ক্ষিধেই আবার জিতবে।

ক্রমাগত নোনাজলে ডুবে,
ক্ষিধে লাগবেই চেনা মানুষের।
মানুষ; তোমায় যে জিততেই হবে।

একদিন হিংস্র হায়েনাগুলো
নিজেদের খোঁয়াড়ে আবদ্ধ হয়ে যাবে,
কয়েকটি খোঁয়াড়ে দেশের নাগরিক হবে,
তারপর; লাগাতার ছিঁড়েখুঁড়ে খাবে ওরা নিজেদের।
এবং; মুক্ত আলো-পৃথিবীতে, ওদের জায়গা দেবেনা কেউ।

About the Author:

মুক্তমনা ব্লগার। আদ্দি ঢাকায় বেড়ে ওঠা। পরবাস স্বার্থপরতায় অপরাধী তাই শেকড়ের কাছাকাছি থাকার প্রাণান্ত চেষ্টা।

মন্তব্যসমূহ

  1. Debashish Bhattacharya জুন 5, 2017 at 7:20 পূর্বাহ্ন - Reply

    সাবাস কাজী রহমন রচনাটির মধ্যে বেদনা বিদ্রূপ ক্রোধ তীব্র, আপনার লিখনি খুব নিজস্ব, বাঃ।

    • কাজী রহমান জুন 5, 2017 at 12:05 অপরাহ্ন - Reply

      আপনার পর্যবেক্ষন ও সহৃদয় মন্তব্যের জন্য অনেক ধন্যবাদ।

      ভালো থাকুন।

  2. Debashish Bhattacharya এপ্রিল 19, 2017 at 1:40 অপরাহ্ন - Reply

    কবিতাটি পড়ে ভাল লাগল। ” ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময় / পূর্ণিমা চাঁদ যেন ঝলসান রুটি” মনে পড়ল। অনিবার্যভাবে।

  3. সাফায়েতুল ইসলাম মার্চ 1, 2017 at 12:07 অপরাহ্ন - Reply

    পেটে টান ধরলেই,
    ঈশ্বর পেড়ে খাবে।
    ঈশ্বর হবে বর্জ্য।

    তারপর শোবে।
    শুয়ে শুয়ে ছোঁবে।
    ছুঁয়ে শুয়ে, নিজেরাই ঈশ্বর হবে।

    এই লাইন গুলো বেশী সেরা ছিল।

  4. ইন্দ্রনীল গাঙ্গুলী জানুয়ারী 27, 2016 at 10:53 পূর্বাহ্ন - Reply

    খুব ভালো কবিতা , এবার একটা লেখা দিন , অপেক্ষায় রয়েছি , আর আমিও কিছু লেখা দিতে চাই।

  5. ইন্দ্রনীল গাঙ্গুলী ডিসেম্বর 30, 2015 at 1:01 অপরাহ্ন - Reply

    একজন ভন্ডের থেকে একজন স্পষ্টবাদী নাস্তিক ভাল , এই কথা তো স্বামী বীবেকানন্দ তো নিজেই বলে গেছেন। যে
    ঈশ্বর দুঃখ ঘোচাতে পারে না , গরিবি ঘোচাতে পারে না তেমন ঈশ্বর আমার দরকার নেই ।
    পৃথিবীতে দুটোই জাতি আছে,

    একটা পুরুষ জাতি , আরেকটা মেয়ে জাতি ,
    আর বাকি যে গুলো তা হল মানুষের বজ্জাতি ।

    শুধু ধর্ম ই নয় , বর্ডার , দেশ এইগুলো মানুষের তৈরি
    আসলে পৃথিবী ত একটাই ।
    বড় শান্তি পেলাম দাদা , আপনার কবিতা পড়ে , আরো লিখুন।

  6. গীতা দাস ডিসেম্বর 28, 2015 at 8:40 অপরাহ্ন - Reply

    “অনাগত ক্ষিধে আর ঈশ্বরের যুদ্ধে,
    কোনঠাসা ক্ষিধেই আবার জিতবে।” —— চমৎকার , যেন স্লোগান!

    • কাজী রহমান ডিসেম্বর 29, 2015 at 1:01 পূর্বাহ্ন - Reply

      :rose: , কফি পেলাম না। ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

  7. সীমান্ত ডিসেম্বর 27, 2015 at 10:19 অপরাহ্ন - Reply

    শুয়ে শুয়ে ছোঁবে।
    ছুঁয়ে শুয়ে, নিজেরাই ঈশ্বর হবে।
    এবং ঈশ্বর মিলনের নবজাতক, দেবে উপহার।

    সব ধর্মেই ঈশ্বর মিলনের কথা বলে কিন্তু তারা মিলনের ফলাফল কক্ষনও বলেনা , অসাধারন লিখেছেন।

  8. সায়ন কায়ন ডিসেম্বর 27, 2015 at 1:33 পূর্বাহ্ন - Reply

    একদিন হিংস্র হায়েনাগুলো
    নিজেদের খোঁয়াড়ে আবদ্ধ হয়ে যাবে,
    কয়েকটি খোঁয়াড়ে দেশের নাগরিক হবে,
    তারপর; লাগাতার ছিঁড়েখুঁড়ে খাবে ওরা নিজেদের।
    এবং; মুক্ত আলো-পৃথিবীতে, ওদের জায়গা দেবেনা কেউ।

    বিজ্ঞানের ইতিহাস সব-সময় সে-ই সাক্ষীই দেয়।
    ভাল থাকুন,সুস্থ্য থাকুন।

    • কাজী রহমান ডিসেম্বর 27, 2015 at 8:00 পূর্বাহ্ন - Reply

      চতুর হায়েনাগুলোকে আলাদা ভাবে চিহ্নিত করে পেরেকের একেবারে মাথায় দিয়েছেন এক ঘা। বাহ্।
      পড়ে মন্তব্য করবার জন্য বরাবরের মত আবারো ধন্যবাদ।
      আপনিও ভালো থাকুন সায়ন কায়ন।

  9. আদু ভাই ডিসেম্বর 26, 2015 at 8:42 অপরাহ্ন - Reply

    আমি নাস্তিক জন্য গর্ববোধ করি, কারন ইশ্বর থাকলেও থাকতে পারে আবার নাও পারে কিন্তু ইশ্বর থাকলে তার শুরু অবশ্যই আছে। কিন্তু পৃথীবিতে যতগুলো ধর্ম সৃষ্টি হয়েছে সবগুলোই মানুষের তৈরি

    • কাজী রহমান ডিসেম্বর 27, 2015 at 7:52 পূর্বাহ্ন - Reply

      কিন্তু পৃথীবিতে যতগুলো ধর্ম সৃষ্টি হয়েছে সবগুলোই মানুষের তৈরি

      🙂 এই উপলব্ধিটুকুই তো অনেক বড় ব্যপার।

      ভালো থাকুন।

  10. সুজন ডিসেম্বর 26, 2015 at 7:12 অপরাহ্ন - Reply

    অসাধারণ

    • কাজী রহমান ডিসেম্বর 27, 2015 at 7:42 পূর্বাহ্ন - Reply

      আপনাকে ধন্যবাদ সুজন। ভালো থাকুন।

মন্তব্য করুন