‘যুক্তি’: চতুর্থ সংখ্যা

By |2015-10-07T07:13:39+00:00অক্টোবর 7, 2015|Categories: ব্লগাড্ডা|6 Comments

৬ অক্টোবর, ২০১৫ তরুণ বিজ্ঞানলেখক, মুক্তমনা ব্লগার ও ‘যুক্তি’ ম্যাগাজিন সম্পাদক অনন্ত বিজয় দাশের ৩৩তম জন্মদিন। সিলেটের বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী কাউন্সিলের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক অনন্ত বিজয় ‘সেক্যুলারিজম, যুক্তিবাদ ও বিজ্ঞানমনস্কতা’ বিষয়ক তৎপরতার জন্য ২০০৬ সালে ‘মুক্তমনা-২০০৫’ পুরস্কারে ভূষিত হন। কুসংস্কার, সংস্কারবদ্ধ জীবনাচারণ, অপবিশ্বাস আর চিরায়ত প্রথার বিরুদ্ধে যুক্তি ও মুক্তচিন্তা দিয়ে তরুণ প্রজন্মকে উৎসাহিত করতে তাঁর সংগঠন ও ‘যুক্তি’ পত্রিকার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। অনন্ত বিজয়ের লেখা ও সম্পাদিত বইয়ের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো: (১) পার্থিব, (সহলেখক সৈকত চৌধুরী), শুদ্ধস্বর, ঢাকা, ২০১১। (২) ডারউইন : একুশ শতকে প্রাসঙ্গিকতা এবং ভাবনা, (সম্পাদিত), অবসর, ঢাকা, ২০১১। (৩) সোভিয়েত ইউনিয়নে বিজ্ঞান ও বিপ্লব : লিসেঙ্কো অধ্যায়, শুদ্ধস্বর, ঢাকা, ২০১২। (৪) জীববিবর্তন সাধারণ পাঠ (মূল: ফ্রান্সিসকো জে. আয়াল, অনুবাদ: অনন্ত বিজয় দাশ ও সিদ্ধার্থ ধর), চৈতন্য প্রকাশন, সিলেট, ২০১৪।

এক বছর আগে এইদিনে বন্ধু-বান্ধবদের অনুরোধ-আবদারে প্রথম বারের মতো ঘটা করে জন্মদিন পালন করা অনন্ত বিজয় আজ আমাদের মাঝে নেই। গত ১২ই মে কর্মস্থলে যাবার পথে নিজ বাসস্থলের সামনে মৌলবাদীদের চাপাতির আঘাতে নির্মমভাবে খুন হন অনন্ত বিজয়। অনন্ত বিজয়ের অকাল প্রস্থান বাংলাদেশের সেক্যুলার আন্দোলন এবং বিজ্ঞান ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার প্রয়াসে এক অপরিমেয় ক্ষতি সাধিত হয়েছে। কিন্তু এখানেই অনন্ত -উপাখ্যানের সমাপ্তি নয়। নশ্বর দেহের পরিসমাপ্তি ঘটলেও অনন্ত তার লেখনী, কীর্তির মধ্য দিয়ে অনন্তকাল ভাস্বর হয়ে থাকবেন, সহযোদ্ধাদের প্রেরণা যোগাবেন। অনন্ত বিজয়ের জন্মদিনে বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী কাউন্সিল এবং মুক্তমনা ব্লগ তার সম্পাদিত ‘যুক্তি’ পত্রিকার সর্বশেষ সংখ্যা অন্তর্জালে উন্মুক্ত করে দিচ্ছে।

ডাউনলোড লিংকঃ https://www.dropbox.com/s/wppbiukg1xtvkru/jukti-4th%20issue.pdf?dl=0

বিকল্প ডাউনলোড লিংক https://www.mediafire.com/?r1yz1cewrqsh6b9

অভিজিৎ রায় (১৯৭২-২০১৫) যে আলো হাতে আঁধারের পথ চলতে চলতে আঁধারজীবীদের হাতে নিহত হয়েছেন সেই আলো হাতে আমরা আজো পথ চলিতেছি পৃথিবীর পথে, হাজার বছর ধরে চলবে এ পথচলা।

মন্তব্যসমূহ

  1. রায়হান আবীর অক্টোবর 10, 2015 at 7:51 পূর্বাহ্ন - Reply

    মুক্তমনা সম্পাদককে ধন্যবাদ যুক্তির শেষ সংখ্যাটি পাঠকের জন্য উন্মুক্ত করে দেবার জন্য। এখন অনন্ত দা আর নেই আর কিন্তু তার ‘যুক্তি’র পথচলা কি আমরা এগিয়ে নিতে পারি সম্মিলিত প্রচেষ্টায়?

  2. সামসুন নাহার অক্টোবর 9, 2015 at 11:05 পূর্বাহ্ন - Reply

    যুক্তির নতুন সংখ্যাকে স্বাগত জানাই। যারা এর সাথে জড়িত, প্রাণের মায়া উপেক্ষা করে কাজ করেছেন, তাদেরকে স্যালুট। তাদের ঋণ কোনদিন শোধ হবার নয়। যুক্তির প্রকাশ নিয়মিত থাকুক এই প্রত্যাশা করি। পূর্ববর্তী সংখ্যাগুলো অনলাইনে উন্মুক্ত করা যাবে কি?

    • মুক্তমনা সম্পাদক অক্টোবর 10, 2015 at 12:01 পূর্বাহ্ন - Reply

      যুক্তির অন্যান্য সংখ্যা ও মুক্তমনার ই-বইগুলো ডাউনলোড করতে পারেন এই লিংক থেকে
      https://blog.mukto-mona.com/2009/10/27/2884/
      এবং ড. অভিজিৎ রায় এর দুটি বই ডাউনলোড করতে পারেন এই লিংক থেকে
      https://mukto-mona.com/publications/ebooks.php

  3. Samir অক্টোবর 7, 2015 at 9:55 পূর্বাহ্ন - Reply

    আচ্ছা যুক্তির ফেইসবুক পেইজ টা বন্ধ কেন ?

  4. আকাশ মালিক অক্টোবর 7, 2015 at 6:27 পূর্বাহ্ন - Reply

    যুক্তি ডাউনলোডের লিংকটা আসেনি, এখানে হয়তো পেতে পারেন।

    ফেইসবুকে সেই সময়ে তার সাথে আলাপন-

    আকাশ মালিক অগাস্ট ৪, ২০১৩ at ২:২১ পূর্বাহ্ন – Reply – Link
    @অনন্ত বিজয় দাশ,
    জন্মদিনের এই দিনে আমাদের সকল বন্ধু-দুশমন, শুভাকাঙ্ক্ষী, সুহৃদ, শত্রুমিত্র, লেখক-পাঠক-যুক্তিবিক্রেতা সকলকে জানাই আন্তরিক “অন্তহীন” (অনন্ত!) শুভেচ্ছা!

    ফেইসবুকে তোমার স্টেটাসটা দেখলাম আর নির্বাক বহুক্ষণ নির্লিপ্ত নয়নে তাকিয়ে রইলাম কোন দিকে জানিনা। বোধ হয় হারিয়ে গিয়েছিলাম সিলেটের কোথাও। তুমি যে জায়গা গুলোর নাম উল্লেখ করলে, হায়! সেই সারদা হল, রিকাবি বাজার, চৌহাট্টা। তোরা সবাই ছিলে আমি নেই কেন? যুক্তির এই সংখ্যাটি যোগাড় করে পড়বো। ভাল থেকো, সাবধানে থেকো।

    অনন্ত বিজয় দাশ অগাস্ট ৬, ২০১৩ at ২:৪৯ পূর্বাহ্ন – Reply – Link
    @আকাশ মালিক,
    ওই জায়গাগুলো সিলেটের প্রাণ। ওইখানে আমার জন্ম, বেড়ে উঠা, চলাফেরা। আমার নিঃশ্বাস, প্রশ্বাস, ঘাম সবই লেগে আছে সিলেটের এই স্থানগুলোয়। যুক্তি’র এই সংখ্যার একটা কপি আপনার হাতে তুলে দিতে পারলে খুব খুশি হতাম আমি।

    হাতে গননা করে তুমি বলতে পারবে অনন্ত তোমাকে বিগত দশ বছরে কতবার বলেছি ঐ একটি কথা- ‘তুমি সাবধানে থেকো’? আর কোনদিন কোনকিছু আমার হাতে তুলে দিতে পারবেনা ভাই। চোখের জল দিয়ে আমি শুধু এই টুকুই তোমায় লিখে দিতে পারি- তুমি আমার লেখালেখির প্রাণ, তুমি আমার একটি বইয়ের নাম। যেখানে আছো চির শান্তিতে থেকো।

মন্তব্য করুন