প্রেরণার অন্ধকারে নিমগ্ন বোধ রুদ্র সময়ের প্রতীক্ষায়
ফ্যাঁকাসে অনুভূতির নিমজ্জনে বর্ণীল আলোকময় স্বপ্ন পিপাসা,
যেন শত শত কোটি নির্ঘুম রজনীর অন্ধকার ভেদে
নব আলোয় ধরিত্রী জেগে উঠবে আবার, বীজয়ের অহংকারে।
শূন্য চিত্তের প্রতিটি অঙ্গন ভরে উঠবে আরেকবার
অঙ্গারময় দহনের অবসানে, প্রেরণার তৃপ্ত আভার রুদ্রময়তায়,
হাজারো বিপ্লবীর দৃপ্ত কণ্ঠে উচ্চারিত হবে মুক্তির নিনাদ-.
শ্লোগানের বজ্রধ্বনিতে হবে দাসত্বের বস্ত্রহরণ।

শোষিতের চোখে সরু অশ্রুরেখা বিভেদ গড়বে সময়ের,ব্যর্থ চল্লিশের
সন্ন্যাসিনী সবিতারা এবার সত্যের প্রাপ্তিতে বলে উঠবে ‘পেয়েছি’।
শোষকের নয়,সময় এবার সারথি হবে শোষিতের,স্পৃহা হবে স্বপ্নের।
কেটে গেছে নিরবধি অনেক অপিরিমেয় যুগ, কুণ্ঠিত তন্দ্রায়-
বয়ে গেছে চলিষ্ণু সময়-শোষকের হিংস্র ইচ্ছের দ্বিধাহীন নির্মমতায়
তবু সে সময় মুক্তির পিপাসার আজন্ম নীরব সাক্ষী।

-কৌশিক আজাদ প্রণয়

[49 বার পঠিত]