আলোদ্বীপ

অরোরা বোরিয়েলিসের বর্ণিল বিষন্নতা,
কেউ কি দেখেছ সেদিকটায় চেনা জগতের অবয়ব?
বিমূর্ত তুলির আচড়ে দেখেছ কি গোয়েন্দা দৃশ্যপট; অচেনা?


.
.
.
.

শাব্দিক কম্পনে দুর্বোধ্য এক আকর্ষণ,
ভেবেছ কি কখনো, কেমনে টোকা মারে খামোখা?
বয়সী গুহায় ঝুলন্ত স্ফটিক থেকে আসে স্বরমিশ্রণ; স্নায়ু শিহরণ?

কত অজানারে একা, শুধু ভাবনার তরে,
একবারো দূরে গিয়ে হারিয়েছ তুমি; শুধু আপনারে নিয়ে?
ছুঁড়ে দিয়ে হিসেবের খাতা, দূরে; দূষিত আলো-বৃত্তের ওপারে?

রোপিত ভাবনায় চেনা ভাবা জীবনেই
রফা করে গেলে, এক দিন প্রতিদিন যাহাদের লাগি;
হে বন্ধু, বেঁচে গেলে; না দিয়েই অর্থ ওহে; অর্থহীন জীবনেরে?

আলোধরাদের খুঁজে দেখেছ কি তোমরা?
আলোদ্বীপে শুনেছি তাদের বাস, নিতান্তই কয়েকটি।
আলো-ইটে গাঁথা বাতিঘরে; আগ্রহে তারা, তোমাদের প্রতীক্ষায়।

About the Author:

মুক্তমনা ব্লগার। আদ্দি ঢাকায় বেড়ে ওঠা। পরবাস স্বার্থপরতায় অপরাধী তাই শেকড়ের কাছাকাছি থাকার প্রাণান্ত চেষ্টা।

মন্তব্যসমূহ

  1. গীতা দাস মার্চ 26, 2014 at 7:59 অপরাহ্ন - Reply

    আলোদ্বীপ শব্দটিই টেনেছে কবিতাটি পড়তে।

    আলোদ্বীপে শুনেছি তাদের বাস, নিতান্তই কয়েকটি।
    আলো-ইটে গাঁথা বাতিঘরে; আগ্রহে তারা, তোমাদের প্রতীক্ষায়।

    চমৎকার!

    • কাজী রহমান মার্চ 26, 2014 at 8:34 অপরাহ্ন - Reply

      @গীতা দাস,

      যাক আপনার দেখা পাওয়া গেল শেষ পর্যন্ত :))

  2. রিয়াদ হোসেন মার্চ 26, 2014 at 1:21 অপরাহ্ন - Reply

    Nice bro…!

  3. সুহা মার্চ 25, 2014 at 9:26 পূর্বাহ্ন - Reply

    আপনাকে ও ধন্যবাদ ।

  4. সুহা মার্চ 24, 2014 at 11:07 পূর্বাহ্ন - Reply

    কবিতাটি পড়ে বেশ ভালো লাগলো কিন্তু আলোদ্বিপ হতে এত দূরে বসবাস যে কিছু কথার মানে বুঝতে কষ্ট হয়। মাঝে মাঝে জানতে খুব ইচ্ছে করে কি বুঝাল এই দুটো লাইন দিয়ে । আপনি যদি সময় করে এই দুটো লাইন ব্যাখ্যা করতেন তাহলে বেশ খুশি হতাম ।

    রফা করে গেলে; এক দিন প্রতিদিন যাহাদের লাগি;
    হে বন্ধু, বেঁচে গেলে; না দিয়েই অর্থ ওহে; অর্থহীন জীবনেরে?

    • কাজী রহমান মার্চ 25, 2014 at 6:45 পূর্বাহ্ন - Reply

      @সুহা,

      রফা করে গেলে; এক দিন প্রতিদিন যাহাদের লাগি;
      হে বন্ধু, বেঁচে গেলে; না দিয়েই অর্থ ওহে; অর্থহীন জীবনেরে?

      বাক্সবন্দী ভাবনার মানুষ সংখ্যায় অনেক বেশি বলে জানি। এরা তাদের গণ্ডির ভেতর পচা পুরোনো চিন্তা চেতনার সাথে আপোষ মানে রফা করে বাঁচে। মুক্তমন নিয়ে জন্মায় অথচ আরোপিত সমাজ ধর্ম চেতনা নিয়ে বদ্ধমনে জীবন কাটায়। জানতেও পায় না যে ছোটবেলাতেই তাদের মগজ ধোলাই করেছে তাদের আপন জনেরা। মুক্ত মনের মানুষ আর তাদের হয়ে ওঠা হয়না। ধর্মকে ভয় করে তাদের জীবন হয়ে পড়ে জ্ঞানহীন; অর্থহীন। এ দুটো লাইনে সেইসব মানুষদের আমন্ত্রণ; মুক্ত জীবন বেছে নেবার।

      মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ;

      (C) র সাথে সাথে এই ক্লিপখানি ভালো লাগবে আশা করি:

      আমার প্রানের মানুষ আছে প্রাণে তাই হেরি তায় সকল খানে

  5. কাজি মামুন মার্চ 22, 2014 at 7:48 অপরাহ্ন - Reply

    এক দিন প্রতিদিন যাহাদের লাগি;
    হে বন্ধু, বেঁচে গেলে; না দিয়েই অর্থ ওহে; অর্থহীন জীবনেরে?

    কবিতার শরীর থেকে ভুস ভুস করে বেরুচ্ছে ঊণবিংশ শতাব্দীর পুরা-গন্ধ , রহমান ভাই।
    অতীত পানে নিয়ে যাবার জন্য ধন্যবাদ, হে কাজী রহমান ভাই। :))

    • কাজী রহমান মার্চ 22, 2014 at 8:52 অপরাহ্ন - Reply

      @কাজি মামুন,

      ও খালি উল্টাপাল্টা; এইসব ই ইচ্ছে হয় তাই না, দেখতে? তা ব্রেশ ব্রেশ। হাজার হাজার বছরের পুরানো বাক্স বন্দীদের মুক্ত জ্ঞানের আলো ছড়ানো মানুষদের কাছে যেতে বললেই খালী ভূস ভূস না? হে জ্ঞানদ্বীপের আলোকিত বিরল মুক্তমনের বিশিষ্ট নাগরিক; পুরানো নতুন বাক্সবন্দী যারা, তারা যদি কেউ বাতিঘর দেখে কাছে আসে তবে হুস ভূস না করে কূলে পৌঁছুতে সাহায্য করুন কাজি মামুন। আসল কামে নাই, হুদাই উল্টাপাল্টা :-[

  6. এম এস নিলয় মার্চ 21, 2014 at 5:08 অপরাহ্ন - Reply

    সম্ভবত আপনি “কেমনে” লিখতে গিয়ে “ক্যামনে” লিখে ফেলেছেন। আর ২ বার “দূরে” লিখতে গিয়ে “দুরে” লিখে ফেলেছেন।

    সুন্দর কবিতা (Y)

    • কাজী রহমান মার্চ 21, 2014 at 8:40 অপরাহ্ন - Reply

      @এম এস নিলয়,

      ধন্যবাদ নিলয়। ঠিক করে দিয়েছি।

মন্তব্য করুন