নীলগ্রহ

By |2013-11-06T12:30:31+00:00নভেম্বর 3, 2013|Categories: কবিতা|12 Comments

মন ক্যালেন্ডারের পাতায় যুগান্ত বছরের ছাপ,
অজান্তে, জেনেশুনে; পেন্সিল; মার্কারের আনমনা দাগ।
বাতাসে সোঁদা গন্ধ ছাপানো পোড়া পাতার হাওয়া,
অনেক বছর পরেও হার মানে সব, কি এক বসন্ত দাপট।

মহুয়ার বন, কোয়েল নদী; হিমালয় গড়ানো ঝাউবন।
চকচকে সাঁওতাল মেয়ে; দোলে আর দোলে, মাদল।
চমকায়। বুনো গন্ধে ডুব সাঁতার, আহা, নেবে যাই,
ভিজে যাই, আকণ্ঠ ডুবে যাই, এই দূরান্তেও। আহা।

মুক্তি নেই, অসীম ইলাস্টিক ব্যাসার্ধে মুক্তি নেই,
নীলগ্রহ, তোমার নাগরিক হয়েও, আমার মুক্তি নেই।
আমি সসীম প্রাণ এক। তারাভৃত্য সামান্য একটা গ্রহ,
সেও টানে কৃষ্ণগহব্বরীয় টান, মুক্তপ্রানে আমার মুক্তি নেই।

About the Author:

মুক্তমনা ব্লগার। আদ্দি ঢাকায় বেড়ে ওঠা। পরবাস স্বার্থপরতায় অপরাধী তাই শেকড়ের কাছাকাছি থাকার প্রাণান্ত চেষ্টা।

মন্তব্যসমূহ

  1. উদয় শংকর চাঙমা নভেম্বর 7, 2013 at 10:56 পূর্বাহ্ন - Reply

    আসলে যুগ যুগ ধরে মানবতার বাণী উপেক্ষিত হচ্ছে কিছু স্বার্থেন্বষী মহলের অনাকাঙ্কিত পদচারণায়।

    • কাজী রহমান নভেম্বর 8, 2013 at 7:34 পূর্বাহ্ন - Reply

      @উদয় শংকর চাঙমা,

      মন্তব্য করে অংশ নিয়েছেন, সেজন্য অনেক ধন্যবাদ।

  2. ফরিদ আহমেদ নভেম্বর 5, 2013 at 11:30 পূর্বাহ্ন - Reply

    ছিলেন তো কবিতা আর সুন্দরী নারী নিয়ে। গ্রহের ফেরে পড়লেন ক্যান আবার?

    • কাজী রহমান নভেম্বর 5, 2013 at 11:35 পূর্বাহ্ন - Reply

      @ফরিদ আহমেদ,

      সবই বয়েসের দোষ;

      ‘বয়স বৃদ্ধকাল,
      হরিন চাটিছে
      বাঘের গাল’

      গ্রহ হইলো গিয়া রিস্ক ফ্রি বিজনেস; ভালো না? :))

      • ফরিদ আহমেদ নভেম্বর 5, 2013 at 11:45 পূর্বাহ্ন - Reply

        @কাজী রহমান,

        গ্রহ-ট্রহো কোনো কিছুই গৃহে রিস্ক ফ্রি না কবি। গৃহিণীই হচ্ছে একমাত্র গ্রহণযোগ্য জিনিস। ওতেই মন দেন।

        • কাজী রহমান নভেম্বর 5, 2013 at 11:59 পূর্বাহ্ন - Reply

          @ফরিদ আহমেদ,

          র-ফলা আর রি-কার কি এক হৈলো? কইলেই হৈলো?

  3. গীতা দাস নভেম্বর 5, 2013 at 7:12 পূর্বাহ্ন - Reply

    আসলেই আমাদের মুক্তি নেই। মানবের মুক্তি নেই।

    • কাজী রহমান নভেম্বর 5, 2013 at 10:23 পূর্বাহ্ন - Reply

      @গীতা দাস,

      সেই তো এমন মায়ার জালে জড়ানো এই পৃথিবী, চাইলেই কি আর উড়াল দেয়া যায়?

      মন ক্যালেন্ডারের পাতায় যুগান্ত বছরের ছাপ,
      অজান্তে, জেনেশুনে; পেন্সিল; মার্কারের আনমনা দাগ।
      বাতাসে সোঁদা গন্ধ ছাপানো পোড়া পাতার হাওয়া,
      অনেক বছর পরেও হার মানে সব, কি এক বসন্ত দাপট।

      আপনি এলেই কফি খাওয়াতে ইচ্ছে করে; এই যে (C)

  4. অরণ্য নভেম্বর 4, 2013 at 7:28 অপরাহ্ন - Reply

    নীলগ্রহ, তোমার নাগরিক হয়েও, আমার মুক্তি নেই!

    • কাজী রহমান নভেম্বর 5, 2013 at 3:39 পূর্বাহ্ন - Reply

      @অরণ্য,

      !

      আমাদের সব স্বার্থ এই নীলগ্রহ ঘিরেই আবর্তিত যেন। জ্ঞানভাবনার দিগন্তও কোন এক দিগন্তরেখায় থেমেই যায়। আমরা ভেবেই চলেছি, অথচ সবটাই যেন চেনা এই পৃথবী কেন্দ্রিক। এমনি পূর্বশর্ত মেনে নিয়ে ভাবনা আমাদের। এই কি মুক্তি? অন্য কোথাকার নাগরিক যদি হতেও পারতাম, তাও কি এড়ানো যেত এই প্রিয় আর চেনা পৃথিবী? তুলনার জন্য গ্রহান্তরের আগন্তক কিংবা অনেক তথ্য মেলেনি যথেষ্ট এখনো। সসীম প্রাণমন আমাদের। অন্য কিছু ভাবতে, কেউ বা কিছু হতে মন চায় হয়ত। তবু নীলগ্রহ এখনো সকল অনুভবের কেন্দ্রবিন্দু।

      (C) চলবে? নাকি (D)

  5. শাখা নির্ভানা নভেম্বর 3, 2013 at 10:13 অপরাহ্ন - Reply

    মুক্তি নেই, অসীম ইলাস্টিক ব্যাসার্ধে মুক্তি নেই,
    নীলগ্রহ, তোমার নাগরিক হয়েও, আমার মুক্তি নেই।
    আমি সসীম প্রাণ এক। তারাভৃত্য সামান্য একটা গ্রহ,
    সেও টানে কৃষ্ণগহব্বরীয় টান, মুক্তপ্রানে আমার মুক্তি নেই।

    — এই শেষ অংশটা খুব সুন্দর হয়েছে। মুক্তির একটা উপায় তো বলবেন! হোক তা যতই অসম্ভব।
    কবিতার শক্তি অফুরান। চেষ্টা যেন অব্যাহত থাকে। ধন্যবাদ।

    • কাজী রহমান নভেম্বর 5, 2013 at 3:35 পূর্বাহ্ন - Reply

      @শাখা নির্ভানা,

      মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

      চেষ্টাটা কিসের? মুক্তির না অন্য কিছুর?

মন্তব্য করুন