শাহবাগের এই জাগরণ যদি থেমে যায়, যদি খুনি-হন্তারকদের কালো হাতে থেমে যায় জনতার দৃঢ় কণ্ঠস্বর, ছাপ্পান্ন হাজার বর্গ মাইল ব্যাপি ছড়ানো শ্যামলিমা যদি বেদখলে চলে যায়, তবে আমরা সবাই যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে যাবো।

যদি বাঙলাদেশ হয়ে ওঠে সিরিয়া-আফগানিস্তান, সমস্ত নদি জলশূন্য রোদনে হাহাকার করে, মানচিত্র হয়ে যায় সংকুচিত এক বর্বর কুটির, যদি মধ্যযুগিয় মঙ্গাক্রান্ত হয় সব ফসলি জমিন, তবে আমরা সবাই যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে যাবো।

যদি বাঙলার নারীদের সৌন্দর্য বস্তাবন্দি করে রাখা হয়, অন্ধ করা হয় রমনীর নক্ষত্র চোখ, যদি হেরেমে সেবাদাসী হয় মা-বোন-প্রেমিকা, মহিলারা হয় পাল পাল শুয়োরের জননী, তবে আমরা সবাই যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে যাবো।

প্রতিবাদী মিছিল যদি থেমে যায়, পা বাড়ায় ভুল পথে, যদি দেশ ফিরে যায় একাত্তরে আবার, দেশদ্রোহী, বৈদেশিক দালালের খপ্পরে পড়ে ‘তোমার আমার ঠিকানা/ পদ্মা-মেঘনা-যমুনা, যদি মুছে যায় পরিচয়, ‘তুমি কে আমি কে/ বাঙালি বাঙালি’, আমরা সবাই যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে যাবো।

যদি রাজাকার ও দেশদ্রোহী, মানবতা বিরোধী অপরাধির ফাঁসি না হয়, যদি সুষ্ঠু বিচারে ঘুচানো না হয় কলঙ্কের ইতিহাস, বারবার যদি পার পেয়ে যায় অপরাধি-জঙ্গি চক্র, যদি গণজাগরণ মঞ্চ হয়ে পড়ে ব্যর্থ, আমরা সবাই যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে যাবো।

[8 বার পঠিত]