ফোটানিকা ডিব্বার জোয়াল

মহিলারা ভ্যানিটি ব্যাগ ব্যবহার করে। সত্তরের দশকে আমার মা ভ্যানিটি ব্যাগ নিয়ে সিনেমায় বা বেড়াতে যাবার সময় আমার সোনা কাকা ও চিনিকাকা আমার মাকে ক্ষেপাতেন ফোটানিকা ডিব্বা নিয়েছেন বলে।ভ্যানিটি ব্যাগের বাংলা ফোটানিকা ডিব্বা। ডিব্বা মানে কৌটা। ভ্যানিটি ব্যাগের অনুবাদ ফোটানিকা ডিব্বা কোত্থেকে পেয়েছেন জানি না।ফোটানি থেকে নিশ্চয়ই ফোটানিকা। ফোটানি মানে অহংকার।অহংকারের কৌটা।
কলকাতা থেকে প্রকাশিত সংসদ ইংরাজী–বাঙ্গালা অভিধানে এবং বাংলা একাডেমী থেকে প্রকাশিত ইংলিশ থেকে বাংলা অভিধানে vanity মানে অসার বস্তু।আর vanity – bag এর বাংলা প্রতিশব্দ (প্রধানতঃ স্ত্রীলোকগণ কর্তৃক ব্যবহৃত)আয়না ও প্রসাধন দ্রব্যাদি রাখার ক্ষুদ্র আধার, প্রসাধনপেটিকা।
আমার শৈশব কৈশোর কালে দেখা নারী মাত্রই কাঁধে ডিব্বা নিয়ে ফোটানি করার মত যোগ্যতা রাখত না। শ্রেণী ছিল।বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষকতা ছাড়া অন্য কোন পেশায় চাকরিজীবী নারী খুব একটা দেখিইনি। এক শ্রেণীর নারীরা চাকরি না করলেও ভাবে বা স্বভাবে যেভাবেই পারুক নিজেকে জাহির করার একটা নির্দেশক ছিল এ ফোটানিকা ডিব্বা।
এখন ফোটানিকা ডিব্বা নিয়ে ঘর থেকে বের হওয়া ছাড়া নারীর উপায় নেই। এ ডিব্বা পকেটের কাজ দেয়।

এ ডিব্বা, প্রসাধনপেটিকা নিয়েই নারীরা ঘুরে। পুরুষদের এ বালাই নেই। তাদের পকেট আছে। নারীদের তা নেই। কাজেই পথের সম্বল রিকসা ভাড়া,বাস ভাড়া, চিরুণী, রুমাল, ইদানিংকালে মোবাইল এর ভেতরে রাখে।পুরুষেরা টাকা পয়সা ছোট্ট মানিব্যাগে ঢুকিয়ে তা পকেটে পুরে।সাথে একটা ছোট্ট চিরুণীও।যদিও নারীরাই চুল আঁচরিয়ে অনেক সময় নষ্ট করে বলে অনুযোগ, অভিযোগ ও দুর্নাম রয়েছে। অথচ রাস্তাঘাটে, বাসে, ট্রেনে, যত্রতত্র পুরুষরাও মাথা আঁচড়ায়।

নারীমাত্রই এখন হয় কাঁধে নয় হাতে একটা ভ্যানিটি ব্যাগ নিয়ে বের হয়। পুরুষদের যেমন শার্ট ও প্যান্টের পকেট তার পোষাকের অবিচ্ছদ্য অংশ, তেমনি ভ্যানিটি ব্যাগ নারীদের জন্য আরোপিত ডাল বা শাখা। এমনই আঠা লাগানো আরোপিত ডাল যে হোটেল রেস্তোরায় খেতে গেলে ভ্যানিটি ব্যাগটি কাঁধেই লাগানো থাকে। আমি অন্তত একশত দিন তা পর্যবেক্ষণ করে দেখেছি। রেস্তোরায় টেবিলে কাপ, কাঁধে ব্যাগ।হোটেলে বসে ভাত খাচ্ছে তো কাঁধে ব্যাগ। বিয়ে বাড়িতে বর বা কনেকে নিয়ে মেয়েলি আচার অনুষ্ঠান করছে, কাঁধে ব্যাগ। বনভোজনে হুলস্থূল করছে, কাঁধে ব্যাগ।যে কোন লম্বা ভ্রমণের সময় সিটে বসে আছে, কাঁধের সাথী ব্যাগ।ওয়াসরুমে গেছে, কাঁধে ব্যাগ।সারাদিনব্যাপী সভা বা কর্মশালা? কাঁধে ব্যাগ। কর্মশালায় দলীয় কাজের সময়ও, প্ল্যানারিতেও কাঁধে ব্যাগ। কর্মশালায় থেতে বসেছে কাঁধে ব্যাগ নিয়ে।একি অভ্যাসবশতঃ? না কি ভুলে কোথাও রয়ে যাবে সে আশংকায়? চুরি হয়ে যাবার ভয়ে? রাখার নিরাপদ জায়গার অভাব? নাকি রাখার কোন জায়গাই নেই? কেন এ বাড়তি ডাল নিয়ে চলাফেরা? কেন এ ফোটানিকা ডিব্বা নামক একটি বোঝা বয়ে বেড়ানোর ঐতিহাসিক জোয়াল।
তা না বয়ে উপায় কি? তা না হলে তার চলার পথের প্রয়োজনীয়, ব্যবহার্য সামগ্রী কোথায় রাখবেন? অন্য অনেক কিছুর মত এরও উত্তর আমার জানা নেই। তবে সবার মত আমিও জোয়াল বয়ে বেড়াই। বলা বাহুল্য, অস্বস্তি নিয়েই বয়ে বেড়াই।

[46 বার পঠিত]