এক দুর্ঘটনার পর কিংবদন্তীর মহান প্রেমিকদের অন্যতম দন খুয়ান (Don Juan ) সাগর তীরে অচেতন হয়ে পড়ে ছিলেন। সেসময় তিসবেয়া নামের এক তরুণী তাকে সেখানে আবিস্কার করে। তাদের মধ্যকার সংলাপের কিছু অংশ তিরসো দে মলিনা (১৫৭‍১-১৬৪৮) রচিত কালজয়ী বিয়োগান্তক নাটক ‘এল বুরলাদোর দে সেবিয়া’ (সেভিলের কামচোর ) থেকে নিচে তুলে দিলাম :

তিসবেয়া : জাগো , হে সকল সুপুরুষদের মধ্যে সুন্দরতম ! আবার নিজের মত হও।

দন খুয়ান : যদি সাগর আমাকে দেয় মৃত্যু , তাহলে তুমি দাও জীবন । তবে সাগর আমাকে বাঁচিয়েছে শুধু তোমার হাতে মৃত্যুবরণ করার জন্য। সাগর আমায় এক যন্ত্রনা থেকে আরেক যন্ত্রনায় প্রতিনিয়ত ছুঁড়ে দিচ্ছে । জল থেকে উঠতে না উঠতেই এই মোহিনী জলকন্যা – তোমার সাথে দেখা । আমার কানে গলা মোম কেন ঢালছ যখন তোমার ঐ দু নয়ন দিয়েই আমাকে হত্যা করেছ ? আমি সাগরেই ডুবে মরতাম কিন্তু আজ আমার মৃত্যু হবে ভালোবাসায়।

তিসবেয়া:
জলে ডুবেও তোমার শ্বাস ঠিকমতো চলছে , অনেক কষ্ট নিশ্চয় হয়েছে , কিন্তু কে জানে আর কোন কষ্ট তুমি আমার জন্য তুলে রেখেছো ?…….. আমি তোমাকে খুঁজে পেয়েছি হাঁটু জলে । আর এখন তুমি পুরোদস্তুর জ্বলন্ত অগ্নিশিখা ! ভেজা শরীরেই যদি এত জ্বলতে পারো , গা শুকালে তখন কি হবে ? । কথা দাও , আমাকে তোমার ঝলসানো শিখা দেবে । ঈশ্বরের কাছে কামনা করি যে তুমি মিথ্যে বলছ না !

দন খুয়ান : হে তরুণী , তোমার আগুনে পুড়ে কয়লা হবার আগেই ঈশ্বরের উচিৎ ছিলো আমাকে সাগর জলে ডুবিয়ে মারা। হয়তো , তোমার গরম বাষ্পের ছোঁয়া পাওয়ার আগ মূহুর্তে আমাকে ভালোবাসায় সিক্ত করে প্রেমদেব যথেষ্ট জ্ঞানীর পরিচয় দিয়েছেন। তবে , তোমার আগুন এমনই তীব্র যে পানিতে থাকলেও আমি জ্বলে যাই !

তিসবেয়া : এত ঠান্ডা তারপরও জ্বলছ ?

দন খুয়ান : তোমার আগুন এমনি তীব্র !

তিসবেয়া : কি সুন্দর কথা বলতে পারো !

দন খুয়ান : কি সুন্দর বুঝতে পারো !

তিসবেয়া : ঈশ্বরের কাছে কামনা করি যে তুমি মিথ্যে বলছ না !!

[52 বার পঠিত]