বিবর্তনের বিপক্ষে সাধারনত যে যুক্তিগুলো ব্যবহৃত হয় কিংবা বিবর্তন তত্ত্ব সম্পর্কে জনপ্রিয় যে ভুল ধারণাগুলো আমাদের মাঝে প্রচলিত সেগুলোকে প্রশ্নাকারে উত্থাপন করে আলোচনা করাই বইটির লক্ষ্য। প্রশ্নগুলোর তালিকা এখানে দেওয়া হলো। মুক্তমনা পাঠকদের সাথে আলোচনার মাধ্যমে প্রশ্ন সম্পাদনা, সংযোজন, বিয়োজন করা হবে।

১। বিবর্তন তো শুধুই একটি তত্ত্ব।
২। বিবর্তন তো পর্যবেক্ষণ করা যায়না। ঈশ্বরের মতো অদৃশ্য বিবর্তনবাদকেও কী তবে বিশ্বাস করে নিতে হয়?
৩। বিবর্তন তো শুনেছি অনেক আগে ঘটেছে। অতীতে যেয়ে বিবর্তন পর্যবেক্ষণ করা তাই অসম্ভব। সেক্ষেত্রে এটিকে মিথ্যা প্রমাণের তো কোনো উপায় নেই।
৪। নিউটনের মহাকর্ষ তত্ত্ব দিয়ে যেমন মুক্তিবেগ অনুমান করা সম্ভব হয়েছে বিবর্তন তত্ত্বও কি এমন কিছু অনুমান করতে পারে?
৫। বোঝা গেলো বিবর্তন একটি ধীর প্রক্রিয়া। তারপরও নিশ্চয়ই পৃথিবীর কোথাও না কোথাও বিবর্তনের কারণে এক প্রজাতি থেকে ভিন্ন প্রজাতির উদ্ভব ঘটছে। এমন উদাহরণ কি আছে?
৬। বিবর্তনের মাধ্যমে এক প্রাণী থেকে অন্য প্রাণীর উদ্ভব হওয়ার সম্ভাবনা প্রায় শূন্য।
৭। চোখের মতো জটিল অঙ্গ কখনও বিবর্তনের ফলাফল হতে পারেনা।
৮। বিবর্তন তাপগতিবিদ্যার দ্বিতীয় সূত্রকে লংঘন করে।
৯। বিবর্তন নিয়ে বিজ্ঞানীদের মধ্যে বিতর্ক থেকে বোঝা যায় যে, বিবর্তনবাদ আসলে ভুল, ডারউইনের তত্ত্বের কোন ভিত্তি নেই।
১০। বিবর্তনের পক্ষে কী কী প্রমান আছে, শুনি?
১১। বিবর্তন সত্যি হলে বেশিরভাগ মানুষ কেনো এটাতে বিশ্বাস করেনা?
১২। বিবর্তনের সাক্ষ্য হিসেবে যে নিষ্ক্রিয় অঙ্গগুলোর কথা বলা হয় সেগুলো নিষ্ক্রিয় নয়, অতি সূক্ষ্ম কোন জৈবনিক কর্মকান্ড তারা করে থাকে যা
এখনও বিজ্ঞানীরা বের করতে পারে নি।
১৩। বিবর্তন তত্ত্বের কোন ব্যবহারিক প্রয়োগ নেই।
১৪। উঁচু গাছের পাতা খাওয়ার জন্য জিরাফ যদি তার গলা লম্বা করে নিতে পারে, আমরা কেনো আমাদের ঘাঁড়ে পাখা গজিয়ে নিতে পারি না?
১৫। মানুষ বিবর্তিত হয়ে কী হবে?
১৬। সাগর বা হ্রদের পানির নীচের মাছগুলো অত অপরূপ রঙীন হতে গেল কেন?
১৭। দু’চারটি আংশিক ফসিল বা হাড়গোড় পেয়েই বিজ্ঞানীরা বিবর্তনের সপক্ষে বড় বড় সিদ্ধান্ত টানেন।
১৮। কোনো ধরণের ট্রাঞ্জিশনাল প্রাণীর ফসিল পাওয়া যায়নি?
১৯। তেজস্ক্রিয় ডেটিং দিয়ে কীভাবে ফসিলের সঠিক বয়স নির্ধারণ করা যায়?
২০। মানুষ কী তাহলে বানর থেকে আসছে?
২১। পৃথিবীতে তাহলে এখনও কেনো বানর দেখা যায়?
২২। নূহের মহাপ্লাবনের পর আবার কেমন করে জীব বৈচিত্রের উদ্ভব ঘটলো?
২৩। বিবর্তন লিঙ্গের উদ্ভব ব্যাখ্যা করতে পারেনা।
২৪। প্রকৃতিতে তবে কেনো সমকামীতে দেখা যায়?
২৫। নৈতিকতাও কি বিবর্তনের ফলাফল?
২৬। বিবর্তন মানে তো মারামারি-কাটাকাটি।
২৭। বিবর্তনবাদ থেকে হিটলার ইহুদি নিধনের প্রেরণা নিয়েছেন।
২৮। বিবর্তন প্রাণের উৎপত্তি ব্যাখ্যা করতে পারে না (প্রশ্নটা শুরুর দিকে থাকবে)।
২৯। জাকির নায়েক তার বক্তৃতায় প্রমাণ করেছেন যে বিবর্তন ভুল।
৩০। কিছু জৈববৈজ্ঞানিক সিস্টেম অহ্রাসযোগ্য জটিল, বিবর্তন দিয়ে ব্যাখ্যা করা যায় না।
৩১। এই মহাবিশ্ব কিংবা আমদের জীবদেহ দেখলেই বোঝা যায় এগুলোনিখুঁতভাবে ডিজাইন করা হয়েছে, এরা বিবর্তিত হয়নি।
৩২। বিবর্তন তো নাস্তিকতাকে শক্ত ভিত্তি দিয়েছে।
৩৩। ইন্টেলিজেন্ট ডিজাইন একটি বৈজ্ঞানিক তত্ত্ব।
৩৩। বিবর্তন ধর্মের সাথে সাংঘর্ষিক, কিন্তু বিজ্ঞান আর ধর্মের মাঝে কোনো সংঘাত নেই।

[183 বার পঠিত]