এই পোস্টটি যে মুহুর্তে আপনারা পড়ছেন , তখন সাইবার স্পেসে বাংলাদেশী এবং ভারতীয় হ্যাকার গ্রুপগুলোর মধ্যে তুমুল সাইবার যুদ্ধ চলছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশী হ্যাকাররা সহস্রাধিক ভারতীয় ওয়েবসাইট হ্যাক করেছে বলে জানা গেছে। অন্যদিকে ভারতীয় শীর্ষ হ্যাকার গ্রুপ ইণ্ডিশেল বাংলাদশের বিভিন্ন সরকারী দপ্তরের সাইট হ্যাক করেছে , যার মধ্যে বাংলাদেশ পুলিশও রয়েছে। ঠিক কি কারনে এই দুই প্রতিবেশী দেশের হ্যাকাররা একে অন্যের সাইবার স্পেসে ব্যাপকহারে হামলা শুরু করেছে তা সঠিকভাবে বলা সম্ভব না হলেও , ধারনা করা হচ্ছে যে সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশের সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষীদের বর্বরতা সর্বকালের সীমা অতিক্রম করার প্রতিবাদে বাংলাদেশী হ্যকার গ্রুপ ‘বাংলাদেশ সাইবার আর্মি’ সর্ব প্রথম শতাধিক ভারতীয় সাইটে হামলা করে বিকৃত করে দেয়। এর জবাবে ভারতীয় হ্যাকার গ্রুপ ইন্ডিশেল বাংলাদেশের বিরুদ্ধে সাইবার যুদ্ধ ঘোষনা করে প্রায় ৩০ টি বাংলাদেশী সাইট বিকৃত করে দেয়্। এর জবাবে বাংলাদেশী হ্যাকাররা সহস্রাধিক ভারতীয় সাইট হ্যাক করে একই ঘটনা ঘটায়। ভারত এবং বাংলাদেশ সরকারের দুইটি ‘প্রচন্ড প্রভাবশালী সংস্হার’ ওয়েব সাইট এবং সার্ভারের দখল নিয়ে এই মুহর্তে লড়াই চলছে । এই লড়াইয়ে চীন এবং আরও কয়েকটি দেশের বড় বড় হ্যাকার গ্রুপ বাংলাদেশী হ্যাকারদের সমর্থনে এগিয়ে এসেছে বলে জানা গেছে।

আমাদের করনীয়

এই মূহুর্তে বলা সম্ভব নয় কখন এবং কি ভাবে যুদ্ধ বিরতি ঘটবে কারন সেরকম কিছুর প্রচেষ্টা এখন পর্যন্ত পরিলক্ষিত হয় নি। এখানে সরকার পক্ষেরও কিছু করার নেই কারণ এ ধরনের ঘটনা মোকাবেলা করার মত সুযোগ অথবা সামর্থ বাংলাদেশ কিংবা ভারত সরকারের নেই। এর ফলে দুই দেশেরই সাইবার স্পেসের ক্ষতি বৈ লাভ কারও হবে না। এমতাবস্থায় আপনাদের নিজ নিজ সাইটের নিরাপত্তা জোরদার করার পাশাপাশি সার্ভার কোম্পানীর সাথে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রাখার জন্য অনুরোধ করছি।

[372 বার পঠিত]