শান্ত জলের সবুজ কচুরিপানার মত সে একটা জীবন ছিল
নির্বিঘ্ন, নিশ্চিন্ত মৃদুমন্দ দুলুনিতে; বিশাল অশত্থের ছায়ায়।
একটু করে বেড়ে উঠতেই বড্ড ঘুরে বেড়ানোর সাধ হলো;
ভাব হলো বেশ; কথা হলো শ্যাওলা আর জলপদ্মের সাথে।

একদিন হঠাৎ গল্প শুনলাম ছটফটে ঝিলমিল পাখিটার কাছে;
অনেক দুরদেশ, উজ্জ্বল শীতের গল্প, আর উদ্ভিন্ন বিদেশীনির।
প্রলোভন আর আনমনে প্রাচীন জলধারাকে করলাম অস্বীকার,
চাপা আভিমানে জলপদ্ম; শ্যাওলা আড়ি নিলো আমার সাথে।

বহুদিন কেটে গেছে তারপর, বেশ অবিরাম একাগ্র বাগ্রতায়;
হীম তাড়াতে পশমী মোটা পোশাকের প্রয়োজনে, ঐ শালহীন।
অশত্থের কথা তো মনেই পড়েনি বিদেশিনীর মোহের আড়ালে,
মনে পড়েনি যে বেড়ানোর নেশায়, কড়া পানীয়ের ঝিমুনিতে।

হলিউড ফুটপাত পানশালায় আমি যেন উদাস তরুণীর অগত্যা,
নতুন বিস্ময়ে দেখলাম যেদিন নির্বিকার কিছু সুন্দরীর পাশকাটা;
সেইদিনই আবার পড়লো মনে শ্যাওলা এবং জলপদ্মের কথা,
বাকি সবটুকু ধোঁয়াটে ঝাপসা হয়ে গেলো অনভিজ্ঞ আবিস্কারে।

[69 বার পঠিত]