তোমার কণ্ঠ শোনা যায়
প্রেতাত্মার ভয়ে ভীত তুমি।
যা যা একসময় তোমার ছিলো সবই এখন তোমার,
এপারের খুঁটিটা থেকে ওপারের সীমান্ত চৌকি বরাবর।
আর আমি তোমার পেছনে দাঁড়িয়ে,
তোমার চোখে চোখ রেখে ।
তোমার কণ্ঠ আবার শোনা যায় ;
প্রেতাত্মার ভয়ে ভীত তুমি
তোমার জীবনে এরা এখন পরজীবি
অন্তরের অন্তস্থল পর্যন্ত একই সুরে বাঁধা।
তোমার নাম চুরি করে তোমারই সমাধিতে বসবাস
সেখানে চলে তাদের সৈন্যদলের কুচকাওয়াজ।
এখন তোমার সব ভাবনাগুলো ধুলায় লুটোপুটি খায়‌;
অবিশ্বাসের কাছে এভাবেই সব লড়াইয়ের অকাল সমাপ্তি।
তোমার বিকৃতির আবরণে এখন রংতুলির প্রয়োজন;
ভয় পেও না যখন তারা বাতি নিভিয়ে দেবে,
ভয় পেও না আলোর মধ্যকার অন্ধকারে,
ভয় পেও না সমুদ্রের আর্তনাদে।
তোমার কণ্ঠ আবার শোনা যায়;
যদি মৃত হয়ে থাকো তাতে অবাক হবার কিছু নেই ।
জীবনের ভয়ে ভীত এক প্রেতাত্মা তুমি !
শব্দের আড়ালে লুকিয়ে উল্টে দাও এবার পাশার দান।

[12 বার পঠিত]