দুঃখবিলাস কেন

সঙ্গতকরনে অন্যায় সমীকরণ; পুরোনো বোঝা,
চাইনি,
যা আমার নয়, ছেড়ে আসা, প্রয়োজনহীন
এতদিন পরে; কেন?

উবে যাওয়া অস্তিত্বহীন অকারণ অনুভব স্মৃতি;
অপরিণত,
খেয়ালি চারপাশের স্বয়ংক্রিয় স্বাভাবিক জটিলতা;
উপরি অস্বস্থি আলিঙ্গন, কেন?

অস্বচ্ছ আবর্জনা ছুঁড়ে ফেলে সম্পূর্ণ দৃশ্যমান
আমি,
কোমল সবুজ প্রান্তরে পুনরায় একান্ত একাকী
সময়াতিক্রান্ত, তবু প্রশ্নবিদ্ধ; কেন?

ভাবনা; যেভাবেই হোক, অন্তত সে অভিজ্ঞ;
আলোময়,
পিছলে যেতে আপারগ; এবং সত্ত্বা; মার্যাদাভক্ত,
প্রায় সম্পূর্ণ, নয় কেন?

About the Author:

মুক্তমনা ব্লগার। আদ্দি ঢাকায় বেড়ে ওঠা। পরবাস স্বার্থপরতায় অপরাধী তাই শেকড়ের কাছাকাছি থাকার প্রাণান্ত চেষ্টা।

মন্তব্যসমূহ

  1. বাশার আগস্ট 30, 2012 at 12:54 পূর্বাহ্ন - Reply

    কবিতা লেখার অভ্যাস নেই। পড়তে ভাল লাগে, লেখতে ইচ্ছে হয়। ভাল লাগলো কবিতাটা পরে।

  2. কাজী রহমান জুলাই 9, 2011 at 7:43 অপরাহ্ন - Reply

    হযরত গুগুল :))

  3. রাজেশ তালুকদার জুলাই 9, 2011 at 7:00 অপরাহ্ন - Reply

    আপনি তো ভাই সাংঘাতিক লোক 🙂
    গোয়েন্দা বিভাগে কাজ করলে বোধ হয় ভালো করতেন 😉
    আপনি ঠিকই ধরেছেন এটাই আমার পাহাড়ি কোলে বনাঞ্চলের ছায়া ঢাকা গ্রাম। কিন্তু এত সব তথ্য আপনি পেলেন কোথা থেকে :-s

  4. রাজেশ তালুকদার জুলাই 9, 2011 at 5:40 পূর্বাহ্ন - Reply

    আপনার কবিতা নিয়ে আমার কোন অভিযোগ নেই। কবিতাটি নিঃসন্দেহে কঠিন ভালো। তবে আমার অভিযোগ কবিতাটির নাম “দুখবিলাস”করন নিয়ে। আবশ্য এটা আপনি অজান্তেই করেছন। মূল রহস্যটা খুলে না বলল্লে আপনার কাছে বিষয়টা পরিষ্কার হবে না। আমার গ্রামের নাম “সুখবিলাস”।

    “দুখবিলাস” নামটি দেখার পরে মনে হল আমার সুন্দর গ্রামের নামটিকে আপনি ভেংচি কাটছেন :))

    • কাজী রহমান জুলাই 9, 2011 at 6:00 পূর্বাহ্ন - Reply

      @রাজেশ তালুকদার,

      অদ্ভুত সুন্দর নামের এমন একটা গ্রাম যে আছে জানতামই না। গ্রামটার নামকরনে গ্রামবাসী হিসেবে আপনিও নিশ্চই দায়ী। তাই আপনাকে অভিনন্দন।

      দুঃখবিলাস তো সুখেরই আরেক রূপ, তাই মনে হয় ওটা আসলে সুখই। আর সুখকে বিলাসী হতে না দিলেই হয়ত ভালো, কারন ওটাকে স্পর্শবৃত্তে ভেতর রাখাই কাজের কথা।

      খুব ভালো থাকুন আর সহজ করে নতুন করে আমাদের আঞ্চলিক গৌরবের কথাগুলো আরো বেশী করে লিখে আলসেদেরকে ঋণী করুন। (D)

    • কাজী রহমান জুলাই 9, 2011 at 1:37 অপরাহ্ন - Reply

      @রাজেশ তালুকদার, আর একটু যোগ করি……নামটি নিয়ে আপনার স্পর্শকাতরতার কারনে নিতান্তই কৌতূহলবশত একটু অনুসন্ধান করলাম। ঐতিহাসিক মূল্য ছাড়াও ঐ পাহাড়ি এলাকায় যে প্রাকৃতিক বিপর্যয় ঘটছে তা নিয়ে লিখুন না কেন?

      রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পদুয়া ইউনিয়নের দূর্গম পাহাড়ি এলাকা সূখবিলাস, সপ্তদশ শতাব্দীর চাকমা রাজা সুখদেব রায়ের প্রাচীন রাজধানী হিসেবে পরিচিত। ব্রিটিশ শাসনামলে ইংরেজদের আক্রমণে এ রাজধানীর সকল অবকাঠামো ধ্বংস হয়ে যায়। কালক্রমে এলাকাটি বনভূমিতে রূপান্তরিত হয়। গতবছর এই বনভূমিতেই চট্টগ্রাম দক্ষিন বনবিভাগের আওতায় সংরক্ষিত বনাঞ্চল গড়ে তোলা হয়।
      পদুয়া ইউপি চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন জানান, দেশ স্বাধীন হওয়ার পরও খুরুশিয়ার সংরক্ষিত বনাঞ্চল ছিল গভীর জঙ্গলে ঢাকা। সে সময় বনাঞ্চল জুড়ে ছিল সেগুন, গামারি, গর্জন, মেহগণিসহ নানা প্রজাতির মূল্যবান বনজ, ফলজ ও ফুলজ গাছ। ছিল হরিণ, বাঘ, মেছো বাঘ, হাতি, ভালুক, বানর, হনুমান, বনবিড়াল, বনমোরগ, শিয়াল, বনকুকুর, শুকরসহ নানা প্রজাতীর হিংস্র বন্যপ্রানী। দিন দুপুরেও মানুষ বনাঞ্চলে যেতে ভয় পেত। কিন’ আশির দশকের শুরু থেকে মানুষ হানা দেয় এ বনে। ক্রমান্বয়ে কমতে থাকে মূল্যবান গাছ। নির্মম শিকার হতে থাকে বন্যপ্রাণী। ফলে অল্পসময়ে এই বনাঞ্চলের আশপাশের অনেক পাহাড় ন্যাড়া হয়ে পড়ে। বিলুপ্ত হয়ে পড়ে নানা প্রজাতীর বন্যপ্রাণী।

      এই গ্রামের কথাই বলেছেন তো তাই না?

  5. লাইজু নাহার জুলাই 8, 2011 at 9:18 অপরাহ্ন - Reply

    ভাবনা; যেভাবেই হোক, অন্তত সে অভিজ্ঞ;
    আলোময়,
    পিছলে যেতে আপারগ;

    খুব সুন্দর!

    কবির কাছে আরও কবিতা আশা করছি!

    • কাজী রহমান জুলাই 8, 2011 at 11:16 অপরাহ্ন - Reply

      @লাইজু নাহার,
      আলোময় কথাটা হয়ত একটু বাড়াবাড়ি হয়ে গেছে তবে; কবিতার গঠনের খাতিরে আরকি। আংশিক আলোময় বলতে পারা যায় বৈকি।
      মন্তব্য দেখে ভালো লাগলো। ভালো থাকুন। (F)

  6. টেকি সাফি জুলাই 8, 2011 at 9:08 অপরাহ্ন - Reply

    আচ্ছা আরেকটা প্রশ্ন মনে এলো,

    উবে যাওয়া অস্তিত্বহীন অকারণ অনুভব স্মৃতি;
    অপরিণত,
    খেয়ালি চারপাশের স্বয়ংক্রিয় স্বাভাবিক জটিলতা;
    উপরি অস্বস্থি আলিঙ্গন, কেন?

    এই “কেন” এর উত্তর আপনার জানা আছে? অথবা যেদিন জানবেন সেদিন এই কবিতাটা কতটা আবেদনময়ী হবে আপনার কাছে?

    • কাজী রহমান জুলাই 8, 2011 at 10:44 অপরাহ্ন - Reply

      @টেকি সাফি,

      সব উত্তর আসলে আমরা ইচ্ছা করেই হয়ত জানতে চাই না, দুঃখবিলাস ভালো লাগে তাই। বৈজ্ঞানিক উত্তরটা জানলেও। কেউ কেউ হয়ত এমনিই বিলাসী আবার কারো কারো ক্ষেত্রে হয়ত শুধুই বাস্তবতা, তা তিরিশ বছর পরে হলেও। স্মৃতি শব্দটা ভীষণ গোলমেলে। সবকিছুর পরও, এমনটা অনেকেই চাই বলেই তা পাওয়ার ভেতর বেঁচে রয়।

      সরি উত্তরটা গম্ভীর হয়ে গেল। :))

  7. টেকি সাফি জুলাই 8, 2011 at 9:03 অপরাহ্ন - Reply

    কী হে কাজী ভাই, মনের মধ্যে কী কেমন কেমন করে? হেঃ হেঃ :))

    কবিতাটা বেশ ভালো লেগেছে (Y)

  8. আফরোজা আলম জুলাই 8, 2011 at 10:49 পূর্বাহ্ন - Reply

    বেশ ভালো লাগল কবিতা’টা।

    • কাজী রহমান জুলাই 8, 2011 at 11:06 পূর্বাহ্ন - Reply

      @আফরোজা আলম,
      উবে যাওয়া অস্তিত্বহীন অকারণ অনুভব স্মৃতি……দুঃখ বিলাস ভালো লেগেছে জেনে ভালো লাগলো। (F)

  9. সংশপ্তক জুলাই 8, 2011 at 8:25 পূর্বাহ্ন - Reply

    আমার সুখবিলাস আছে যথেষ্ট পরিমানে , বসবাস সেখানেই । চটপটি খাওয়ার মত দূঃখ বিলাসের স্বাদ সেজন্য কখনও কখনও মন্দ লাগে না , যদি ঘরে ফিরে আবার বিরিয়ানী খাওয়া যায়।

    • কাজী রহমান জুলাই 8, 2011 at 9:52 পূর্বাহ্ন - Reply

      @সংশপ্তক,
      জবাবটা এখনই দিচ্ছি না; তবে দেবো হয়ত। আপনার কবিতাভাবনায় যেমন বাস্তবতা স্বপ্নকে ম্লান করে চলে যায় নতুন নতুন উচ্চতায়, ঠিক তেমনি ধরনের একটা উত্তর, অথচ বাস্তব।

      ইত্যবসরে সুখ বিলাসে ডুবে থাকুন। ওহ একটা কথা, দুঃখ বিনে সুখের আবার সুখ কি, দুঃখ তাই বিলাস হয়েও সুখ ভালোবাসার আবীর ছড়ায়।

      • সংশপ্তক জুলাই 8, 2011 at 10:15 পূর্বাহ্ন - Reply

        @কাজী রহমান,

        দুঃখ বিনে সুখের আবার সুখ কি,

        স্বার্বভৌম সুখ হচ্ছে সর্বোচ্চ পর্যায়ের সুখ। সে সুখ অন্য কোন কিছুর উপর নির্ভরশীল নয়। দূঃখের উপনিবেশে সেন্সরশীপ থাকায় অধিবাসীরা স্বার্বভৌম সুখের সাথে পরিচিত নন , বরং তারা কেবল ‘তুলনামুলক সুখকেই’ সুখ বলে ভ্রম করেন। :))

        • কাজী রহমান জুলাই 8, 2011 at 10:34 পূর্বাহ্ন - Reply

          @সংশপ্তক,
          :)) :)) :)) উত্তর পছন্দ হয়েছে, হোক তা ইউটোপিও তবু পছন্দ হয়েছে :)) :)) :))

মন্তব্য করুন