কেন তুমি জীবনভর
অন্যের খাঁচায় অবরুদ্ধ,
কেন তোমার নেই কোন অধিকার
নিজের মতো ক’রে বাঁচার?

কেন তুমি তালাবদ্ধ
শুধু গৃহকোণে?
কেন তুমি প্রথায় প্রথায় আপাদমস্তক বিদ্ধ,
তোমার প্রতি শত অবিচারেও
কেন তুমি নীরব-নিস্তব্ধ?
কেন তুমি ক্ষুদ্র হয়ে থাক নিজের মনে?
নিজের অধিকারের তরে কেন তুমি করনা যুদ্ধ?

কেন তোমার নিজের জীবনখানি
অপরের কাছে গচ্ছা রাখ,
কেন তুমি অন্যের সম্পত্তি হয়ে বাঁচ?
কেন তুমি অন্যের নির্দেশে
আপনাকে অন্ধকার-আড়ালে ঢাক?

কেন তুমি আজন্ম একটি বৃত্তে আবদ্ধ
কেন তোমার জীবন অন্যে করেছে জব্দ?
কেন তুমি সকল আঘাত নাও শরীর পেতে,
কেন তুমি সকল অপমান নাও হৃৎপিণ্ড পেতে?
কেন তুমি কষ্ট পেলে অশ্রুজলে ভাস
কেন তুমি নিঃশেষ হও কেঁদে কেঁদে?

তুমি সয়ে যাবে আর কত আঘাত
এবার কেন তুমি করনা প্রতিবাদ
এবার কেন তুমি করনা প্রতিঘাত?

[29 বার পঠিত]