বাংলা একাডেমী সাহিত্য পুরস্কার (২০১০) এর জন্য ছয়জন বিশিষ্ট ব্যক্তির নাম ঘোষণা করা হয়েছে। আমরা আনন্দের সাথে জানাচ্ছি মুক্তমনার সম্পাদকমণ্ডলীর অন্যতম অধ্যাপক অজয় রায় এবারের বাংলা একাডেমী পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন।তিনি পুরস্কার পেয়েছেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগে।

পুরস্কারের জন্য মনোনীতরা হলেন, বুলবুল চৌধুরী (কথাসাহিত্য), রুবী রহমান ও নাসির আহমেদ (কবিতা), গোলাম কিবরিয়া (শিশু সাহিত্য) , খান সারওয়ার মুর্শিদ (গবেষণা)  এবং অজয় রায় (বিজ্ঞান)। পুরস্কার প্রাপ্তদের হাতে আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৪টায় পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে।

আজকের (২১শে ফেব্রুয়ারি) দৈনিক সমকালে প্রকাশিত সংবাদ :

(ছবিতে ক্লিক করে বড় করে পড়ুন)

উল্লেখ্য যে, অধ্যাপক অজয় রায় দীর্ঘদিন ধরেই মুক্তমনার সাথে জড়িত আছেন এবং মুক্তান্বেষার সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিদ্যা বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক। অজয় রায় দেশের জনপ্রিয় বিজ্ঞান লেখক, প্রাবন্ধিক এবং কলাম লেখক হিসেবে সুপরিচিত। তিনি আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাতিমান বিজ্ঞানী, শিক্ষাবিদ এবং নিবেদিতপ্রাণ গবেষকও। বাংলাদেশের বিজ্ঞান আন্দোলনের তিনি একজন অগ্রগণ্য কর্মী, চিন্তা চেতনায় সংশয়বাদী এবং মনেপ্রাণে সেক্যুলারিস্ট। তিনি ছাত্রাবস্থা থেকেই ভাষা আন্দোলনসহ সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে অংশ নিয়েছিলেন, এবং একাত্তুরের মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ ছিলো তারই স্বাভাবিক পরিনতি। তিনি নিজের গবেষণার বাইরেও বিভিন্ন সামাজিক বিষয়ে লিখেছেন সহস্রাধিক প্রবন্ধ। রবীন্দ্র ভূবনের নানাদিকে তাঁর রয়েছে সাচ্ছন্দ্য বিচরণ। তাঁর লেখা ‘আদি বাঙালি: নৃতাত্ত্বিক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষণ’ এবং ‘জড়ের সন্ধানে’ গ্রন্থ দুটি পাঠকপ্রিয়তায় ধন্য। তিনি মুক্তমনা লেখকদের প্রবন্ধ সংকলন সম্পাদনা করে বের করেছেন ‘স্বতন্ত্র ভাবনা’ (২০০৮) নামের দুঃসাহসী সংকলন। এ ছাড়া মুক্তমনার বহুল আলোচিত ই-গ্রন্থ ‘বিজ্ঞান ও ধর্ম : সঙ্ঘাত নাকি সমন্বয়’ এ বছর তার সম্পাদনায় বেরুনোর পথে।  এ ছাড়া বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত পাঁচ খণ্ডে লেখা ‘বাংলা একাডেমি বিজ্ঞান কোষের’ অন্যতম সম্পাদক এবং লেখক।

গ্রন্থ প্রকাশনা ও সম্পাদনা :

১. পদার্থবিদ্যা (চারখণ্ড), বাংলা একাডেমী

২. বাংলা একাডেমী বিজ্ঞান বিশ্বকোষ’, ৫টি খণ্ড (অন্যতম সম্পাদক ও লেখক), ১৯৯৮-২০০৫, বাংলা একাডেমী, ঢাকা

৩. স্বতন্ত্র ভাবনা : মুক্তচিন্তা ও বুদ্ধির মুক্তি (প্রবন্ধ সংকলন, সম্পাদক ও লেখক), চারদিক, ফেব্রুয়ারি ২০০৮

৪. ধর্ম ও বিজ্ঞান : সঙ্ঘাত নাকি সমন্বয়? (প্রবন্ধ সংকলন, সম্পাদক ও লেখক), চারদিক, ফেব্রুয়ারি (২০১১ সালে প্রকাশিতব্য )

৫. বিজ্ঞান ও দর্শন : জডের সন্ধানে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ১৯৯৪

৬. আদি বাঙালী : নৃতাত্ত্বিক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষণ, বাংলা একাডেমী, ১৯৯৭

৭. Concepts of Electricity and Magnetism, 1969 (Students & Publications),

৮. বাঙালির নৃতাত্ত্বিক পরিচয় (মনোগ্রাফ), বাংলা একাডেমী, ১৯৮৭

৯. বাঙালীর আত্মপরিচয় : একটি পুরাবৃত্তিক ও নৃতাত্তি্বক আলোচনা (মনোগ্রাফ), ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ স্টাডিজ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী, ১৯৯১।

এর বাইরে অধ্যাপক অজয় রায় বর্তমানে বেশ কটি জার্নাল সম্পাদনার সাথে জড়িত আছেন;  তন্মধ্যে সায়েন্স জার্নাল অব এশিয়াটিক সোসাইটি (২০০৮) অন্যতম। তিনি মুক্তান্বেষা পত্রিকার সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন; অতীতে বিভিন্ন সময়ে বহু একাডেমিক জার্নালের সম্পাদনার সাথেও জড়িত ছিলেন।

 

তিনি দেশের শিক্ষা, সংস্কৃতি ও মানবাধিকার সংগঠনের সাথে যুক্ত, এবং বাংলাদেশে সংখ্যালঘুদের অধিকার রক্ষায় একজন নিবেদিতপ্রাণ ব্যক্তিত্ব। তিনি শিক্ষা আন্দোলন মঞ্চের সভাপতি এবং দক্ষিণ এশীয় মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতাবিরোধী সংগঠনের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য। এর বাইরে তিনি জ্ঞান-বিজ্ঞান চর্চায় নিবেদিত নানা  পেশাজীবী সংগঠনের সাথে ফেলো বা সদস্য হিসেবে সক্রিয়ভাবে সংশ্লিষ্ট;  তার মধ্যে বাংলাদেশ ফিজিক্যাল সোসাইটি (ফেলো), কেমিক্যাল সোসাইটি (যুক্তরাজ্য, ফেলো) ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন অব কৃস্টালোগ্রাফি (যুক্তরাষ্ট্র, আজীবন সদস্য), বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি (ফেলো), বাংলা একাডেমী (ফেলো), বাংলাদেশ ইতিহাস পরিষদ (আজীবন সদস্য),  সমপ্রীতি মঞ্চ (সভাপতি) প্রভৃতি অন্যতম। তিনি এর আগে বাংলা একাডেমী ফেলোশিপ পুরস্কার (২০০৮), এবং এশিয়াটিক সোসাইটি ফেলোশিপ পুরস্কার (২০০৯) অর্জন করেন। তাঁর ‘আদি বাঙালি: নৃতাত্ত্বিক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষণ’ পুস্তকটি ১৯৯৭ সালে বাংলাদেশ সরকারের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ ইতিহাস পরিষদ কর্তৃক শ্রেষ্ঠ পুস্তক হিসেবে বিবেচিত হয় এবং লেখককে সম্মানিত করা হয়। এ ছাড়া ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে সপ্রশংস ভূমিকা রাখার জন্যও বেশ কয়েকটি বেসরকারী প্রতিষ্ঠান অধ্যাপক অজয় রায়কে অতীতে সম্মাননা প্রদান করেছে। মুক্তমনায় তাঁর বিভিন্ন সময়ে লেখা গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রবন্ধ রাখা আছে এখানে এবং এখানে

ছবি – মুক্তমনা সদস্যদের সাথে আলোচনারত অধ্যাপক অজয় রায়

আমরা মুক্তমনার পক্ষ থেকে অধ্যাপক অজয় রায় সহ সকল পুরস্কারপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের অভিনন্দন জানাচ্ছি।

[20 বার পঠিত]

এই লেখাটি শেয়ার করুন:
0