বাংলাদেশের কথা ভাবলেই
চোখের সামনে একটা দুর্ভিক্ষ পীড়িত ধুসর মানচিত্র ভেসে ওঠে
যেখানে মনুষত্ব প্রতিনিয়ত ধর্ষিত হয়
মানবতা রুগ্ন থেকে রুগ্ন হয় প্রতিদিন
যেখানে দেখা যায় অসততার হিংস্র উল্লাস
দেখা যায় বুনো সুখপাখীর ব্যর্থ জীবন, বাধ্য পরবাস
আরও দেখা যায় মেকি জাতীয়তাবাদ এবং সাথে
দারিদ্রের চমৎকার বাস্তব অনুবাদ।

বাংলাদেশ মানে হল সর্বোচ্চ স্থবিরতা
যেখানে শোষকের মার্সিডিজ মটর শুধুমাত্র সচল
বাংলাদেশ মানে সাজানো স্বাধীনতা
আগুন ছাড়া চুলো, উদর ভর্তি অনল।

বাংলাদেশ মানে আশি এবং আরও পাঁচ ভাগ কৃষক
যাদের আমরা আদর করে বলি চাষা
বাংলাদেশ মানে পঁচাশি জন দরিদ্র
আর পনেরো ভাগ হতাশা।

বাংলাদেশ মানে অপবিত্র রাজনীতি, কুলষিত শিক্ষাঙ্গন
বাংলাদেশ মানে ধনীর হাসি আর দরিদ্রের ক্রন্দন
বাংলাদেশ মানে শৈল্পিক দুর্নীতি আর নেতার উত্তপ্ত ভাষন
বাংলাদেশ মানে গরীবের না খেয়ে থাকা আর ধনীর খাবার পঁচন।

আমি ঘৃনা করি সর্বোচ্চ মাত্রায় তাদেরকে, যারা
আমার বাংলাদেশকে রুগ্ন করেছিল এবং করছে
আমি তাদের মুখে ছিটিয়ে দিতে চাই একদলা নোংরা থুথু
যারা বাংলাদেশকে পরিনত করেছে জারজে
তীক্ষ্ণ নখরে খামচে ধরতে চাই ওদেরকে
যেমন করে বাজ খামচে ধরে শিকারকে।
উপস্থিত করতে চাই জনতার মঞ্চে, যেখানে
বিচারক হবে আসামী আর আসামী হবে বিচারক।

[116 বার পঠিত]