সমালোচনা আর বিদ্বেষের মাঝে পার্থক্য মনে হয় বেশিরভাগ মানুষই বুঝতে পারে না। সমালোচনার মধ্যে সংশয়বাদ থাকা বাঞ্চনীয়। যখনই সমালোচনা থেকে সংশয়বাদ দূর হয়ে যায় তখনই সেটা হয়ে যায় বিদ্বেষ, যা প্রকৃতিগতভাবেই অন্ধ এবং উগ্র। কার্ল স্যাগানের সেই বিখ্যাত উক্তি “extraordinary claims require extraordinary evidence” এর আলোকেই বলতে চাই, ধর্ম যেহেতু বড় বড় দাবি করে তাই ধর্মের সমালোচনাটাও তীব্র হওয়া উচিত। কিন্তু ঠিক কতটুকু তীব্র? আমি বলব বিদ্বেষের পর্যায়ে না গেলেই হল। বর্তমানকালে সবচেয়ে বেশি প্রতিক্রিয়াশীল ধর্ম হল ইসলাম, এই ধর্মের অনুসারীরা কার্টুনের জবাব দেয় রক্ত দিয়ে। বলাই বাহুল্য এই উগ্রপন্থার কারণে ইসলামের সমালোচনাও হয় অনেক বেশি, কিন্তু আমার খুব খারাপ লাগে যখন দেখি যে সমালোচনাটা বিদ্বেষের পর্যায়ে চলে যাচ্ছে।
প্রথম যখন “ফেইথ ফ্রীডম” সাইটটা দেখি, বলাই বাহুল্য, মুসলমান হিসেবে সাইটটাকে আমার কাছে খুব কুরুচিকর মনে হয়েছিল। “We are against hate, not faith”- সাইটের প্রতিষ্ঠাতা সাইটের এই আদর্শবাণী কতটুকু বিশ্বাস করেন জানি না তবে সাইটের সদস্যদের মধ্যে মোটেই তা দেখা যায় না। একবার বাংলাদেশ সম্পর্কিত এক প্রবন্ধে “proud_kafir” বা অনুরুপ নিকের একজন মন্তব্য করেছিলেন যে বিশ্ব উষ্ণায়নের মাধ্যমে এই মুসলমান ভূমি এর ডুবে যাওয়া উচিত। সাইটটার মূল বক্তব্য হল “বিশ্বাস” কোন সমস্যা না, ইসলামই সব সমস্যার মূল। অন্য সব ধর্মের মত ইসলামের ভিত্তিও কিন্তু বিশ্বাস, মুসলমানরা ওই বিশ্বাস দ্বারা আক্রান্ত হয়েই কোরানকে অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলে। কোরানে এমন কিছু বলা নেই যা নৃশংসতার দিক দিয়ে অন্য ধর্মগ্রন্থকে হার মানায়। সোলায়মা্নের শত শত বউ, পুরুষ অতিথিদের বাঁচানোর জন্য উচ্ছৃঙ্খল জনতার কাছে লুতের কন্যা দান প্রভৃতি গল্পগুলো তো কোরানের অনেক আগে থেকেই প্রচলিত। সাইটটা যখন দাবি করে তারা বিশ্বাসের বিরুদ্ধে না কিন্তু একনাগাড়ে ইসলামের উপর আক্রমন চালিয়ে যায়, তখন সেটা নিঃসন্দেহে পক্ষপাতদুষ্টতার পর্যায়ে পড়ে। ইসলামের সমালোচনা করা ভাল, কিন্তু অন্য সব ধর্মকে “বিকল্প” হিসেবে উপস্থাপন করা বা ইঙ্গিত করাটা ভন্ডামি। তবে আলি সিনার যুক্তিবোধ তীক্ষ্ণ, এতে কোন সন্দেহ নেই। আলি সিনার কয়েকটা বিতর্ক পড়েই ঈমানের অধঃপতন শুরু হয়েছিল।
আজকে অন্য কারণে এই পোষ্ট লিখতে বসেছি। ফেসবুকে আমার কয়েকজন বন্ধুকে একটা গ্রুপে যোগ দিতে দেখলাম, গ্রুপটা মূলত কয়েকটা ইসলামবিদ্বেষী ফ্যান পেইজের বিপরীতে সৃষ্টি হয়েছে। নিচের লিংকগুলো দেখুন,

1.ALLAH IS A CRIMINAL
http://www.facebook.com/pages/ALLAH-IS-A-CRIMINAL/107982012573321?v=wall&ref=mf

2.MUHAMMAD WAS A HOMOSEXUAL
http://www.facebook.com/pages/MUHAMMAD-WAS-A-HOMOSEXUAL/121468601206453?ref=mf

3.Allah is a pig
http://www.facebook.com/pages/ALLAH-IS-A-PIG/106867459355597?ref=mf

তাছাড়া ফেসবুকের সেই কুখ্যাত “ফাক ইসলাম” গ্রুপটা তো আছেই। আমি মনে করি যুক্তিবাদী হিসেবে আমার এসব বিদ্বেষমূলক কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করা উচিত। তাই, সম্যকরুপে বিশ্বাসকে ঘৃণা করা সত্ত্বেও আমি “রিপোর্ট দিস পেইজ” লিংকে ক্লিক করলাম।

[110 বার পঠিত]