বাংলাদেশের অফিস আদালতে ঘুষ আদান প্রদানের প্রকোপে সবাই অতিষ্ঠ।
তাই ঘুষ যদি দিতেই হয় আসুন সবাই মিলে টাকা ছাপিয়ে ঘুষ দেই!

আইডিয়াটা আমার না এক যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ভারতীয়র প্রফেসরের!
তিনি সম্প্রতি পিতৃভূমে যেয়ে সবখানে ঘুষের আধিক্য দেখে,
নিজেই কম্পুট্যারে বসে “০” মানের রুপি ছেপেছেন।
তার সংস্থার নাম “ফিফ্থপিলার”।

তারপর অফিস,আদালত যখন যেখানে প্রয়োজন পড়েছে হাসিমুখে “শূন্য”
মানের রুপির বান্ডিল ঘুষ দিয়েছেন!
ঐ রুপি ঘুষ পেয়ে আমলারা নাকি তাড়াতাড়ি ফেরত দিয়েছেন লজ্জিত হয়ে।
নিসন্দেহে ভারতে তিনি অফিস আদালতে ‘দূর্নীতি’বিষয়ক টাবু ভেঙ্গেছেন!
ভারতের জনসাধারনও শক্তি খুঁজে পাবে ঐ প্রবাসীর সংগঠন তাদের পিছনে আছে বলে।
এতে অন্ততঃ ঘুষখোর আমলা ও কর্মচারীদের শিক্ষা দেয়ার একটা ব্যবস্থা হয়েছে।

মুক্তমনার পাঠকরাও হয়ত এ ধরনের চমতকার আইডিয়া বের করতে পারেন
আমাদের দেশের প্রেক্ষিতে।বাংলাদেশে দূর্নীতি দেশের উন্নতির প্রতিবন্ধক।
প্রধানমন্ত্রি থেকে সবাই এটা স্বীকার করেন।

সূত্রঃ নেদারল্যান্ডের “ইন্টারন্যাশনাল কোঅপারেশন”বিষয়ক পত্রিকা থেকে।

[18 বার পঠিত]