২৭শে ফেব্রুয়ারিকে  স্মরণ করে গতবছরে দেওয়া ছোট একটি নোটকে সামনে নিয়ে আসা হল। এ ছাড়া আগের বছরের ব্যানারটিও সামান্য পরিবর্তন করে নতুনভাবে ব্যানার তৈরি করা হল। মুক্তমনার ব্লগারেরা এই দিনটিকে স্মরণ করে লেখা পাঠাতে পারেন।

২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০১১।

:line:

২৭শে ফেব্রুয়ারি দিনটির কথা হয়তো অনেকেই ভুলে গেছেন, এতদিনে। এদিনটির একটি আলাদা তাৎপর্য আছে, অন্ততঃ মুক্তমনাদের জন্য তো বটেই। ২০০৪ সালের এই দিনে বহুমাত্রিক এবং প্রথাভাঙ্গা লেখক অধ্যাপক হুমায়ুন আজাদকে নির্মমভাবে চাপাতি দিয়ে বাংলা একাডেমির বই মেলার পথে কুপিয়ে রক্তাক্ত করে ধর্মান্ধ মৌলবাদীরা, যা তাকে পরবর্তিতে প্রলম্বিত মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়। কাজেই ২৭শে ফেব্রুয়ারির একটি আলাদা গুরুত্ব আছে আমাদের কাছে।

দিনটি গুরুত্বপূর্ণ হলেও বাংলাদেশের পত্র-পত্রিকাগুলোতে এ নিয়ে কোন লেখা চোখে পড়লো না। পেপার খুলে দেখলাম – সবাই ঈদেমিলাদুন্নবী নিয়েই ব্যস্ত। কেবল দৈনিক সমকালে খুব ছোট করে ছাপা হয়েছে হুমায়ুন আজাদের পুত্র অনন্য আজাদের ‘তিনি যে বাংলাদেশ চেয়েছিলেন’ নামের একটি লেখা। এ ছাড়া আর কোথাও কোন প্রাসঙ্গিক লেখা চোখে পড়লো না।

অনেকেই হয়তো জানেন না যে, মুক্তমনার সাথে অধ্যাপক হুমায়ুন আজাদের একটি ঘনিষ্ট সম্পর্ক ছিলো। তিনি তার তার বিখ্যাত ‘ধর্মানুভূতির উপকথা’ নামের প্রবন্ধটি মুক্তমনায় প্রকাশের জন্য পাঠিয়েছিলেন, প্রিন্টেড মিডিয়ায় কোথাও ছাপা হবার আগেই।  এ ছাড়াও তার পাক সার জমিন সাদ বাদ উপন্যাসটি সিরজ আকারে দৈনিক ইত্তেফাকে ২০০৩ সালে প্রকাশের সময় মৌলবাদীদের কাছ থেকে যে ক্রমাগত হুমকি ধামকি পাচ্ছিলেন তার কিছু নমুনা পাঠিয়েছিলেন আমাদের মুক্তমনা ফোরামে।  তিনি তার কিছু দুর্লভ ছবিও আমাকে পাঠিয়েছিলেন ব্যক্তিগত ইমেইলে। আমি সেগুলো উল্লেখ করে গতবছর হুমায়ুন আজাদের মৃত্যুদিবসে আমি একটি লেখা লিখেছিলাম – স্মৃতিতে হুমায়ুন আজাদ। আজকের দিনে লেখাটি পুনরায় পড়া যেতে পারে। এ ছাড়াও মুক্তমনায় হুমায়ুন আজাদকে উৎসর্গ করে একটি পাতা রেখে দেয়া হয়েছিলো, আমাদের পুরানো ওয়েব সাইটে, সেটি দেখা যাবে এখান থেকে

গতকাল রাতে মুক্তমনার তরফ থেকে একটা ব্যানার করার চেষ্টা করলাম,  উপরে ব্যানারের জায়গায় দেখা যাচ্ছে বড় আকারে। ছোট করে দিলাম এখানেও –


(ক্লিক করে বড় করে দেখুন)

আমরা কি ২৭শে ফেব্রুয়ারিকে ‘আজাদ দিবস’ কিংবা ‘মুক্তচিন্তা দিবস’ হিসবে ঘোষণা করে বাংলাদেশে প্রতি বছর যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের জন্য দাবী করতে পারি? এ ব্যাপারে পাঠক লেখকদের অভিমত কামনা করছি।

২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০১০

প্রাসঙ্গিক পোস্ট:

স্মৃতিতে হুমায়ুন আজাদ

[49 বার পঠিত]