আজ সারা পৃথিবীতে অর্থনীতি নিয়ে তোলপাড়। হয়ত আমাদের ও ভাবার কিছুটা অবকাশ আছে!

জানিনা মুক্তমনার সবার কেমন লাগবে!

‘কে বলে অর্থনীতিবিদদের কৌতুকবোধ নেই’?

টিচার্স রুমের নোটিস র্বোডে একটি কাগজ ঝুলছিলো।
যার বাংলা করলে দাঁড়ায় অর্থনীতি
যদি ২টি গরু দিয়ে ব্যাখ্যা করা হয় তাহলে-

সমাজতান্ত্রিক-তোমার যদি ২টি গরু থাকে তাহলে দরিদ্র প্রতিবেশীকে ১টি দিয়ে দাও!

কম্যুনিজম -তোমার ২টি গরু আছে, সরকার ২টিই নিয়ে নিল তোমাকে দিল একপোয়া করে দুধ!

ফ্যাসিজম -তোমার দুটি গরু ছিলো, সরকার দুটিই নিয়ে নিল, তোমাকে কিছুই দিলনা!

ব্যুরোক্রাসি-তোমার গরু সরকার নিয়ে একটিকে মেরে ফেলল, আরেকটা গরুর দুধ কাউকেও না দিয়ে অবহেলায় নষ্ট করল!

পুরোনো ধনতান্ত্রিকতা-দুটি গরু ছিলো।একটি গরু বদলে ষাড় কেনা হলো।অপর গরুটি বিক্রি করে তার সুদ দিয়ে সমস্ত খরচ চলতে থাকলো।

আমেরিকার অর্থনীতি- দুটি গরুর একটি বিক্রি করা হলো, আরেকটার ওপর এমন চাপ সৃষ্টি করা হলো যাতে সে চারটি গরুর সমান দুধ দেয়।অতিরিক্ত চাপে গরুটা মারা যাবে কি না সে খেয়াল কারো নেই।

জাপানের অর্থনীতি-দুটি গরুকে জেনেটিক ম্যানিপুলেশনের মাধ্যমে ১০ গুন ছোট ও ২০ গুন বেশি দুধ দেয়ার ব্যবস্থা করা হলো।গরুর কার্টুন (গরুমনস) বানিয়ে সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে দেয়া।

জার্মান অর্থনীতি-দুটি গরুকে জেনেটিক ম্যানিপুলেশনে ১০০টি গরু বানিয়ে তাদের মাসে একবার খাবার দেয়া ও দোয়ানো।

বৃটিশ অর্থনীতি-দুটি গরু, দুটোই পাগল।

ইটালিয়ান অর্থনীতি-দুটি গরু, কিন্তু তারা জানেনা কোথায়….তারপর স্প্যাগেটি খেতে যাওয়া।

রাশিয়ান অর্থনীতি-দুটি গরু।গোনার পর দেখা গেল ৫টি, আবার গুনে দেখা গেল ৩০টি, নুতন করে গুনে দেখা গেল ১৭টি।তারপর গোনা বন্ধ করে সকালবেলাই চারনম্বর ভদকার বোতল খুলে গ্লাসে চুমুক দেয়া।

ফ্রান্সের অর্থনীতি-দুটি গরু, তারা পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ গরু।

সুইজারল্যান্ডের অর্থনীতি-৫০০ গরুর একটিও তাদের নয়, অপরিচিত বিদেশীদের। এভাবে ধনী হওয়া।

ভারতীয় অর্থনীতি-দুটি গরুকে সকাল-বিকাল পূজা করা।

চীনা অর্থনীতি-দুটি গরুকে প্রতিদিন ৩০০ মানুষ দিয়ে দুইয়ে উচ্চ উতপাদন করা।

মুক্তমনার বুদ্ধিমান লেখক ও পাঠকরাই বলতে পারবেন বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী দেশে কোন ধরনের অর্থনৈতিক ব্যবস্থা প্রয়োগ করেছেন!

[18 বার পঠিত]