অলৌকিক সংখ্যাতত্ত্ব ….

 

অলৌকিক সংখ্যাতত্ত্ব ….

 

 

নাস্তিকের ধর্মকথা

এক


২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর বিশ্ব বিস্ময়ে হতবাক হয়ে দেখে যুক্তরাষ্ট্রের উপর হামলার এক বিরল, কিন্তু মর্মান্তিক দৃশ্য । বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার টুইন টাওয়ারটি চোখের নিমিষে ধ্বসে পড়ে। গোটা দুনিয়া নাড়া খায়, তারপর থেকে বিশ্বের রাজনৈতিক পরিস্থিতি পাল্টে যেতে থাকে- সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক যুদ্ধের ঘোষণা দেয়া হয়- আর আমরা দেখতে পাই এই ঘোষনার মধ্য দিয়ে দুনিয়াজুড়ে এক সর্বগ্রাসী দানবের সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করতে। দানবটি হলো যুক্তরাষ্ট্র। দানব রাষ্ট্রপতি George W. Bush। George W. Bush এ মোট অক্ষর সংখ্যা হলো ১১টি। “১১” সংখ্যাটি হলো দারুন অশুভ সংখ্যা। সমস্ত কিছুর মূলেই আছে এই ১১এক নজরে তাহলে সেটাই দেখি:
*হামলার তারিখ: সেপ্টেম্বরের ১১
* হামলার তারিখ: ৯/১১ ==>> ৯+১+১=১১
*সেপ্টেম্বর ১১ হলো বছরের ২৫৪ তম দিন ==>> ২+৫+৪=১১
* সেপ্টেম্বের ১১ এর পরে বছর শেষ হতে আর ১১১ দিন বাকি ছিল
*টুইন টাওয়ার পাশাপাশি দাঁড়ানো- যা দেখতে ১১
* প্রথম বিমান যেটি আঘাত হানে সেটি ১১ নং ফ্লাইট
*American Airlines মানে AA। A হচ্ছে ইংলিশ বর্ণমালার প্রথম অক্ষর: মানে American Airlines>> AA>> ১১
* নিউইয়র্ক স্টেট হচ্ছে ইউনিয়নে যুক্ত হওয়া ১১ নাম্বার স্টেট।
*New York City – ১১ টি অক্ষর
*Afghanistan – ১১ টি অক্ষর
*The Pentagon – ১১ টি অক্ষর
*ফ্লাইট ১১ – ৯২ অন বোর্ড ->> ৯+২=১১
*ফ্লাইট ৭৭ – ৬৫ অন বোর্ড ->> ৭৭= ১১*৭ ->> ৬+৫=১১
** Air Force One ==>> ১১ অক্ষর
*Saudi Arabia =>> ১১ অক্ষর
*ww terrorism =>> ১১ অক্ষর
* ইউ এস স্টেট সেক্রেটারি Colin Powell ==>> ১১ অক্ষর
* নভেম্বর ১১ হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের Remembrance day, নভেম্বর হলো ১১ তম মাস।
* বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থায় আঘাত হানা বিমানের পাইলট Mohamed Atta ==>> ১১ অক্ষর

দুই
উপরের আলোচনা থেকে আমরা কি সিদ্ধান্তে আসতে পারি?
একমাত্র সিদ্ধান্ত এটাই হতে পারে যে, ১১ একটি অলৌকিক সংখ্যা।
এবং ১১ সেপ্টম্বরের ঘটনাটি একটি অলৌকিক ঘটনা।
বাইবেল ও বিভিন্ন প্রাচীণ মিথে শয়তানের চিহ্নের সাথে ১১ এর একটা যোগ পাওয়া যায়। নিউ টেস্টামেন্ট এ শয়তানের চিহ্ন ৬৬৬ যাও ১১ দ্বারা বিভাজ্য।

সুতরাং বুঝা যাচ্ছে- এটি অবশ্যই শয়তানের কাজ। এই ১১ সেপ্টেম্বরেই শয়তান দুনিয়ায় নেমে এসেছে এবং তার রাজত্ব প্রতিষ্ঠা করেছে George W. Bush এর উপর ভর করার মাধ্যমে।

তিন
এক ও দুই নং অনুচ্ছেদের আলোচনাটি দেখে তো চমকেই উঠেছিলাম। dharmakatha এতেও দেখি ১১ টি অক্ষর। নিজের জীবনে তো দেখি আরো অনেক ১১ও আছে। খাইছে!! আমারেও কি শয়তানে পাইলো না-কি?

চার
আসেন এবার মজা বাদ দিয়ে একটু যুক্তি করা যাক…
অলৌকিক ১১ এর তত্ত্বটি সম্পূর্ণই ভয়া ও বাজে।৬৬৬ কে ১১ দিয়ে ভাগ করলে পাওয়া যায় ৬০.৫৪৫৪৫৪.. মানে এটা ১১ দিয়ে বিভাজ্য নয়।

অসংখ্য বিষয় পাওয়া যাবে যার সাথে ১১ এর কোন সম্বন্ধ নেই:
# হামলার বছর ২০০১=> ২+০+০+১= ৩ (১১ নয়)
# বিমান গুলো আঘাত হানে সকাল ৯ টার দিকে (১১ টার দিকে নয়!!)।
# ৪ টি (১১টি নয়) বিমান হামলা করেছে।
# বিমানে লোকের সংখ্যা ২৬৬=> ২+৬+৬=১৪ (১১ নয়)
# একটি প্লেন এর নাম্বার ৭৬৭ => ৭+৬+৭=২০ (১১ নয়)
# আরেকটি প্লেন এর নাম্বার ৭৫৭ => ৭+৫+৭= ১৯ (১১ নয়)
# ৭৫৭ নং প্লেন এর ফুয়েল ক্যাপাসিটি ২০,০০০ গ্যালন (১১ হাজার গ্যালন নয়)
# ৭৫৭ নং প্লেন এর ডানার দৈর্ঘ ১২৪ ফুট =>১+২+৪ = ৭ (১১ নয়)
# ৭৫৭ নং প্লেন এর ডানার দৈর্ঘ ১৫৬ ফুট =>১+৫+৬ = ১২ (১১ নয়)
# একটি টাওয়ারের উচ্চতা ১৩৬২ ফুট=> ১+৩+৬+২ = ১২ (১১ নয়)
# অন্যটির উচ্চতা ১৩৬৮; ১+৩+৬+৮ = ১৮ (১১ নয়)
# অন্য ফ্লাইট গুলো হচ্ছে: UA ৯৩=> ৯+৩= ১২ (১১ নয়)
UA ১৭৫=> ১+৭+৫= ১৩(১১ নয়)
# ফ্লাইট ১১ এর প্যাসেঞ্জার ছিল ৮১ জন=> ৮+১ = ৯ (১১ নয়)
# Boston =>> ৬ টি অক্ষর (১১ নয়)
# Massachusetts => ১৩ টি অক্ষর (১১ নয়)
# Pennsylvania => ১২ টি অক্ষড় (১১ নয়)
# Washington D.C. =>> ১২ টি অক্ষর (১১ নয়)
# Los Angeles =>> ১০ অক্ষর (১১ নয়)
# হাইজ্যাকারদের সংখ্যা ১৯ =>> ১+৯= ১০ (১১ নয়)
# Tony Balair => ১০ অক্ষর (১১ নয়)


একই ঘটনাকে অন্য সংখ্যা দিয়েও প্রমাণ করা যাবে যে অন্য আরেকটি সংখ্যা অলৌকিক। যেমন ধরা যাক ২।

* হামলার তারিখ: ১১/৯ =>> ১১-৯= ২
* হামলার তারিখ: সেপ্টেম্বর ১১ => ১+১=২
* হামলার বছর: ২০০১ => ২+ ০*০*১=২
* ১১ সেপ্টেম্বর হচ্ছে বছরের ২৫৪ তম দিন=> ২+৫+৪= ১১=> ১+১=২
* বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা => ২ টি টাওয়ার
* World Trade Center কে আঘাত হেনেছে ২ টি বিমান
* প্রতি বিমানে ২ টি ডানা আছে।
* প্রথম আঘাতকারী বিমানের ফ্লাইট নাম্বার ১১=> ১+১=২
*New York => ২ টি শব্দ
* The Pentagon => ২ টি শব্দ ……….. ইত্যাদি।

পাঁচ
কোরআনের ম্যাথমেটিকল মিরাকল অব ১৯ তত্ত্বের প্রতি যারা বিস্মিত ও মুগ্ধ তাদের জানিয়েছিলাম:
অনেক কিছুই আছে যা ১৯ এর সাথে খাপ খায় না:
* কোরআনে পারা ৩০ যা ১৯ দিয়ে বিভাজ্য না
* কোরআনে রুকু ৫৫৮ টি, যা ১৯ দ্বারা বিভাজ্য নয়
* সিজদাহ ১৫ টি যা ১৯ দ্বারা বিভাজ্য নয়
* মাক্কী সুরা ৮৬, মাদানী সুরা ২৬ টি- কোনটিই ১৯ দ্বারা বিভাজ্য নয়
* নোকতা ১,০৫,৬৮৪ টি যা ১৯ দ্বারা বিভাজ্য নয়
* আল্লাহ শব্দটি সংখ্যা ১৯ দ্বারা বিভাজ্য ধরে নিলেও (আসলে না)- রাসুল, মুহাম্মদ সা, জীব্রাইল, মানুষ প্রভৃতি অসংখ্য শব্দ আছে যার সংখ্যা ১৯ দ্বারা বিভাজ্য নয়।
* বিসমিল্লায় ১৯ টি অক্ষর থাকলেও কলেমা তাইয়েব্যা (লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ…), কলেমা শাহাদাত, আউজুবিল্লাহ…, এমন অসংখ্য গুরুত্বপূর্ণ বাক্যের অক্ষর ১৯ টি নয়।
* সুরা ৯৬ এর অক্ষর সংখ্যা ৩০৪টি যা ১৯ দ্বারা বিভাজ্য হলেও সুরা ১, ২, …. এমনকি ১১০ বা অন্য সুরাগুলো অক্ষর সংখ্যা ১৯ দ্বারা বিভাজ্য না।
*১১০ নং সুরায় শব্দের সংখ্যা ১৯ টি। বাকি সুরাগুলোর শব্দসংখ্যা ১৯ নয়।
….. ইত্যাদি।

অন্য যেকোন আরেকটি সংখ্যা দিয়েও তালিকা বের করে অলৌকিক তত্ত দেয়া যেতে পারে:
* আল্লাহ শব্দটিতে অক্ষর ৪ টি
* ৪ নং সুরায় আয়াত ১৭৬ => ৪*৪৪=১৭৬
* সুরা এখলাসের আয়াত সংখ্যা ৪
* সুরা এখলাসের প্রথম আয়াত যেখানে আল্লাহর একত্ব সম্বন্ধে ঘোষণা দেয়া হয়েছে (কুলহু আল্লাহু আহাদ)- প্রথম আয়াতটিতে শব্দ সংখ্যা ৪ টি।
* সুরা এখলাস ১১২ নং সুরা, যা ৪ দ্বারা বিভাজ্য => ১১২/৪=২৮=> ২+৮=১০=> ১+০=১ অর্থাৎ আল্লাহ এক
* কোরআনে আয়াত সংখ্যা ৬২৩৬, যা ৪ দ্বারা বিভাজ্য
* আসমানী কিতাবের সংখ্যা ৪ টি
* আসমানি কিতাব নাযিলকৃত রাসুল ৪ জন
* প্রধান ফেরেশতা ৪ জন
….. ইত্যাদি।

অতএব প্রমাণিত হলো যে কোরআন অলৌকিক এবং এই ৪ সংখ্যাটি একটি অলৌকিক সংখ্যা। এই অলৌকিক ৪ এর তত্ত আবিষ্কার করেছেন নাস্তিকের ধর্মকথা (যদিও তিনি রাশাদ খলীফার ন্যায় নিজেকে নবী দাবি করেননি…)। এখনো তত্তটি খসড়া পর্যায়ে আছে। আরবী টেক্সট ওয়ার্ডে নেয়ার কাজ চলছে- সেটা হয়ে গেলেই সুদীর্ঘ তালিকা নিয়ে তিনি অচিরেই জনসম্মুখে হাজির হবেন। ভদ্রলোক তার সমস্ত হিসাবাদি কম্পিউটারের ক্যালকুলেটর টুলটি ব্যবহার করে করেছেন- আগামিতে কম্পিউটারের আরো নানা বাহারি ব্যবহারে ৪ এর অলৌকিকতার তালিকাটিকে সম্পূর্ণ করে তোলা হবে। সুতরাং নিসন্দেহে বলা যায় এই ৪ এর তত্ত সম্পূর্ণ (১০০%) কম্পিউটারাইজড পদ্ধতিতে পাওয়া।

এছাড়াও তিনি জানিয়েছেন- প্রকৃতিতেও অলৌকিক সংখ্যা ৪ এর উদাহরণ গণ্ডায় গণ্ডায় আছে। পরবর্তীতে এহেন তালিকাও তিনি হাজির করবেন, তবে এক্ষণে একটি উদাহরণ দিয়ে বর্তমান নিবন্ধটি শেষ করা যাক:
নুরানী পশু ছাগলের ঠ্যাং ৪টি।

সহযোগী লিংক:
১। http://skepdic.com/lawofnumbers.html
২।

 

http://www.snopes.com/rumors/elevens.asp

মন্তব্যসমূহ

  1. খালেদ মে 16, 2010 at 12:53 পূর্বাহ্ন - Reply

    অন লাইনের বাইরে প্রাত্যহিক কথোপকথনে আমরা এ যুক্তিগুলো তুলে ধরছিনা কেন? অন লাইন ছাড়া বাইরের প্রাত্যহিক জগত্‍টা অন্ধকার মনে হয়।নাস্তিকের ধর্মকথা কি এদেশে থাকেন, আপনার প্রাত্যহিক জীবনটা কি অন লাইনের মতই আলোকিত?

  2. tanvy জুন 9, 2009 at 11:51 অপরাহ্ন - Reply

    ুন!! সত্যি দারুন। আমিও আপনার সাহাবি হইতে রাজি আছি!!

  3. রিফাত মার্চ 5, 2009 at 3:19 পূর্বাহ্ন - Reply

    জটিল!!
    বস আপনে যদি কোনদিন নবুয়াত প্রাপ্ত হন তাইলে একটু আওয়াজ দিয়েন ! খোদার কসম আমি আপনার ১ নম্বর সাহাবী হব !! 😀

  4. opu ফেব্রুয়ারী 22, 2009 at 12:03 অপরাহ্ন - Reply

    wow !

  5. wasim moyna ফেব্রুয়ারী 4, 2009 at 11:49 পূর্বাহ্ন - Reply

    dine dine gadhar poriman bartese……………………..sorry moha gadha………….
    eder ki arr kono kaj nai………………….
    okamer kam kore…………..

  6. Mufakharul Islam ফেব্রুয়ারী 3, 2009 at 12:28 অপরাহ্ন - Reply

    Not only Saagol…….Goru… Gadha…shohoo shomosto chotush-podee praneeer paaa charteeee……………………. See what a analysis…….Hahahahaha…… Thanks for your analysis………

  7. Mithoon ফেব্রুয়ারী 2, 2009 at 9:48 অপরাহ্ন - Reply

    Absolutely Amazing

  8. vib ফেব্রুয়ারী 2, 2009 at 11:59 পূর্বাহ্ন - Reply

    Really a great calculation to find out the miracle numbers.

  9. emdad ফেব্রুয়ারী 2, 2009 at 10:18 পূর্বাহ্ন - Reply

    বতর্মান সময়ের নবী আিম নিজেেক দাবী করি। কিন্তু আপনার লেখা পড়ে মনে হচ্ছে আপনি আমার প্রতিপক্ষ। তাই সাবধান করে দিচ্ছি এদিকে পা বাড়া‍বেন না। আমার পতিপক্ষ হবার চেষ্টা করবেন না। আপনার গবেষনামূলক লেখাটি খুবই ভাল লাগলো। বাকী অংশ পড়ার অ‍‍পেক্ষায় রইলাম।

    • nastiker dharmakatha ফেব্রুয়ারী 2, 2009 at 9:36 অপরাহ্ন - Reply

      @emdad,
      বাকী অংশ তো নেই- এখানেই সমাপ্ত, এক পর্বের পোস্ট….

  10. জুয়েল খান ফেব্রুয়ারী 1, 2009 at 10:03 অপরাহ্ন - Reply

    great

মন্তব্য করুন