নভেম্বর বিপ্লব না প্রতি-বিপ্লব?

বিপ্লব পাল

 

 খ্রীষ্ঠানদের যেমন ক্রীসমাস, মুসলমানদের মহরম-তেমন ই কম্যুনিউস্টদের পবিত্র তিথি নভেম্বর বিপ্লব ছোটবেলা হইতে বঙ্গজ কম্যুনিউস্টদের মুখ হইতে কর্ণ কুহরে ইহার মাহাত্ম্যজ্ঞান এত শুনিয়াছি-শোষিত নিপীড়িত মানুষদের ইতিহাসে এত বড় ঘটনা আর আসে নাই বলিয়া সংশয়াতীত ছিলাম৭ ই নভেম্বর লক্ষ লক্ষরাশিয়ান আম-আদমী জারের উইন্টার প্রাসাদ আক্রমন করিয়া দখল করিয়াছিল! নিন্দুক এবং বুর্জোয়ারা যদিও বলিয়া থাকেন সাকুল্যে একশোজন রেড আর্মির লোক, দশজনের অরক্ষিত প্রাসাদ দখল করিয়াছিল-“পুঁজিবাদি”  প্রচারে কর্ণপাত করি নাই-পাছে বাপপ্রদ্ত্ত কানটি প্রতিবিপ্পবী হইয়া ওঠেবুর্জোয়াকেরেনাস্কি সরকারকে বলশেভিকরা সপ্তাহ পূর্বেই কোনঠাসা করিয়াছিলেন-জারের প্রাসাদ দখলের মধ্যে দিয়ে তা সিম্বলিক পূর্নতাপাইলতাই পরবর্ত্তীকালে সোভিয়েত সরকার ১০০ জন রেড আর্মিকে একলাখ প্রলেতারিয়েট বানাইয়া ফিল্ম তুলিল-হাজার হইলেও বিপ্লবের লেহিহান শিখা বলিয়া কথা- মাহাত্ম্যযজ্ঞে ঘি কম পড়িলে আগুনের উত্তাপ কম পড়িবার সম্ভাবনা বিলক্ষন!

  যাহাইহোক  ১৯১৭ সালে ফেব্রুয়ারী থেকে নভেম্বরে রাশিয়াতে ঠিক কি কি ঘটিয়াছিল যাহার জন্যে এই মহান নভেম্বর গাথা রচিত হইয়াছেইহার সম্পূর্ন ইতিহাস না জানিলে, ঐতিহাসিক ঢপবাজি কাহারে কয়, তাহা জানাও অসম্পূর্ণ থাকিবেকহিতে পাড়িতাম অনেক-কিন্তু পাঠকের ধৈর্য্যচ্যুতি না ঘটাইয়া, টু দ্য পয়েন্ট থাকিব

  প্রথম বিশ্বযুদ্ধে জার্মানীর হাতে মার খাইয়া, ক্ষুদাক্লান্ত রাশিয়া ২৮শে ফেব্রুয়ারী, সন ১৯১৭, জার দ্বিতীয় নিকোলাস-২ কে ট্রেন হইতে গ্রেফতার করিলএই যুগসন্ধিক্ষনে রাশিয়াতে গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠার চেস্টায় স্যোসালিস্ট এবং লিবারাল ডেমোক্রাটরা কোয়ালিশন গড়িয়াছিলেন আলেক্সজান্ডার গুচকভের প্রগ্রেসিভ ব্লক এবং স্যোসালিস্টদের “সোভিয়েট পেট্রোগাড (শ্রমিক কাউন্সিল)”  মার্চের পহেলা তারিখে প্রথম অর্ডারে ক্ষমতা ভাগাভাগি করিলেন গুচকভ সরকারের প্রধান হইলেন-কিন্ত সোভিয়েতে অনুমতি ব্যাতীত কোন মিলিটারী অর্ডার পাশ করাইবার ক্ষমতা তাহার রহিল নামার্চ মাসেই সোভিয়েট চালকের আসনে‘  বসিল

 প্রশ্ন করিবেন ইহাতে লেনিনের তথা বলশেভিকগণের ভূমিকা কি? আমি উহাদিগের নাম উহ্য রাখিতেছি কেন

  ১৯১৭ সালের ফেব্রুয়ারী বিপ্লবের দিনে বলশেভিক পার্টি নিষিদ্ধ- লেনিন এবং লিওন ট্রটস্কি উভয়ে রাশিয়া থেকে নির্বাসিত লেলিন ঘরে ফিরিলেন তেশরা এপ্রিলসোভিয়েতের নির্দেশেই তাহার ওপর হইতে নিধেষাজ্ঞা উঠিলএমনকি ট্রটস্কি যখন রাশিয়াতে ফিরিতেছিলেন-তাহাকে বৃটেন গ্রেফতার করিয়াছিল তাহা হইতেও ট্রটকে উদ্ধার করিয়া দেশে আনা হইলকোন যাদুবলে নতুন সরকার লেনিন এবং ট্রটের পুনর্বাসন ঘটাইল?

 তাহা হইলে কোন স্যোসালিস্টদের নেতৃত্বে সোভিয়েতের কাছে ক্ষমতা আসিল? ইহাদের নেতার নাম ইরাকি জেরেটালিমেনশেভিক পার্টিই সোস্যালিস্টদের তথা সোভিয়েতের নেতৃত্বে এবং ক্ষমতায় তখনইনারা ছারাও রাশিয়ান স্যোস্যালিস্ট রিভোল্যুশনারী পার্টি (SRP) বিপ্লবে সক্রিয় ভূমিকা লইয়াছিল  ইহারাই সক্রিয় হইয়াছিলেন লেনিন, ট্রটস্কি, কার্মানভ, স্টালিন ইত্যাদি বলশেভিক মহারথীদের দেশে ফিরাইবার ব্যাপারেজারের পতনে বলশেভিকদের সাথে শত্রুতা অতীত ধরিয়া, ইহারা ভাবিয়াছিলেন লেনিন সহ বাকী বলশেভিকরা সবাই সোভিয়েত তথা স্যোসালিস্ট আন্দোলনকে শক্তিশালী করিবেনমহারথীরদল তাহাদের ইচ্ছা ষোলকলা পূর্ন করিয়াছিলেন-তবে পুনর্বাসনের কৃতজ্ঞতা মিটাইতে, পরবর্ত্তীকালে মেনশেভিকদের লেনিন হত্যা করেন এবং  সরকারি ইতিহাসে বুর্জোয়া ভিলেন বলিয়া তাহাদের স্থান দিলেনসেই ইতিহাস বিকৃতির প্রসঙ্গে  আসিতেছি

 ২শরা মে প্রথম প্রভিন্সিয়াল সরকারের পতন হইলএপ্রিল মাসে দেশে ফিরিয়াই লেনিন জানাইলেন, লিবার‌্যালদের সাথে সমঝোতা তিনি করিবেন নাসোভিয়েতের হাতে পূর্ণ ক্ষমতা চাই  জমি কৃষকের হাতে পুনর্বন্টনের ব্যাপারে মেনশেভিক, বলশেভিক বা বিপ্লবী সোস্যালিস্ট কাহারও মতানৈক্য হয় নাই-পার্থক্য দাঁড়াইল পদ্ধতিরমেনশেভিকরা অক্টবরের কনস্টিটিউশনাল এসেম্বলী পর্যন্ত অপেক্ষা করিতে চাহিলেন-কিন্ত লেনিনের রক্ত ফুটিতেছিলফলে জুলাই মাসে বিপ্লবী সোস্যালিস্ট পার্টির কেরেনাস্কী সরকারের প্রধান হইলেও এবং বলশেভিকরা সোভিয়েতের মাধ্যমে ক্ষমতা ভোগ করিতে থাকিলেও, লেনিন নিরঙ্কুশ ক্ষমতার মোহে নেশাগ্রস্থ হইয়া কেরেনাস্কির বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষনা করিলেন এবং কেরেনাস্কি তা সফল ভাবে দমন করিলেন লেনিন ফিনল্যান্ডে পালাইলেনকেরেনাস্কির জনপ্রিয়তা হ্রাস পাইতেছিলতবে বলশেভিকদের জনপ্রিয়তা তাহাদের “শান্তি, রুটি এবং চাকরী”  শ্লোগানে খুব বেশী বৃদ্ধি পাইতেছিল এমন কোন প্রমান নাইতাই পেট্রোগাডের অভ্যুত্থান কেরেনাস্কি অতি সামান্য সৈন্যবলেই দমন করিলেন

 কেরেনাস্কি সম্মন্ধে কিছু না বলিলে এই ঢপবাজির ইতিহাস অসম্পূর্ণ থাকিবেকারণ পরবর্ত্তীকালে ইনাকেও বুর্জোয়াবলিয়া বলশেভিকরা ইতিহাসের কাঠগড়ায় দাঁড় করাইবেনতাই প্রক্ষাপট জানা প্রয়োজন

 আলেক্সন্ডার কেরেনাস্কি কাজ়াণ বিশ্ববিদ্যালয়ে  লেনিনের  ভূতপূর্ব শিক্ষক ফ্রিওডরের সন্তান১৯১২ সালে রাশিয়ান ডুমায় প্রথম নির্বাচিত হনআইনের স্নাতক কেরনাস্কি তকালীন রাশিয়ার সেরা বক্তা, নিখাদ গণতন্ত্রপ্রেমী এবং উদারনৈতিক রাজনীতিবিদ ছিলেন  বলশেভিকদের সহিত তাহার দূরত্ব তৈরী হইল, লেনিন ক্যু ঘটাইবার চেস্টা করিলেলেনিন কেরেনাস্কিকে বিপ্লবী সমাজতান্ত্রিকনা গণ্য করিয়া “পুঁজিবাদের” সমর্থকদের দলে ফেলিলেনইহার কারন কেরেনাস্কি যুদ্ধ হইতে রাশিয়ান সেনা সরাইলেন নাবৃটেন এবং ফ্রান্সের সমর্থনে যুদ্ধ চালাইতে থাকিলেন-ফলে লেনিন তাহার “পুঁজিবাদ সাম্রাজ্যবাদের সর্বোচ্চ স্তর” এই তত্ত্ব অনুসারে পুঁজিবাদী ঠাওরাইলেনহবসন হইতে টোকা লেনিনের এই তত্ত্ব আজ যতই হাস্যকর হউক না কেন, কালেকেরেনাস্কির এই মূল্যায়ন মারাত্মক ভুলঐতিহাসিকরা নিশ্চিত হইয়াছেন, যুদ্ধ বন্ধ করিলে ইংল্যান্ড এবং ফ্রান্স হইতে যে খাদ্য এবং অর্থ সাহায্য আসিতেছিল তাহা বন্ধ হইত-জার্মানী রাশিয়ার অনেক জমি দখল করিত-বিচক্ষন কেরেনাস্কি রাশিয়ার স্বার্থেই যুদ্ধ চালাইতেছিলেন-তাহার পার্টির নীতি অনুসারে কৃষকদের হাতে আর দুমাসের মধ্যেই জমির গণবন্টন করিবেন বলিয়া স্থির করিয়াছিলেনএবং তা সম্পূর্ণ গণতান্ত্রিক ও সুষ্ঠ ভাবে সম্পন্ন করিবার প্ল্যান-যাহাতে রাশিয়া খাদ্যাভাবের সম্মুখীন না হয়, তাহার জন্যে ধীরে চলো নীতি লইয়াছিলেন 

ইতিহাস সাক্ষী কেরেনাস্কি ঠীক ই করিতেছিলেন  কারন বলশেভিকরা ক্ষমতা দখল করিবার পর, রাশিয়া বিরাট খাদ্যাভাবের সম্মুখীন হয়বলপূর্বক খেত দখল করিয়া চাষিকে নামে মাত্র কৃষি জমি বন্টন করিয়া, তাহা হইতে রাষ্ট্রের গুদামের জন্যে অধিকতর লেভি আদায়ের চেস্টায় আধকোটি কৃষক ১৯২০-২৩ সালের মধ্যে মৃত্যু মুখে পতিত হয়বিপ্লবের পর হইতে অর্ধাহারে অনাহারে থাকিয়া চাষিরা তাহাদের খাদ্যশষ্যকে রাষ্ট্রের হাতে তুলিয়া দিতে বাধ্য হয়অবাধ্য চাষিদের নগ্ন করিয়া রাশিয়ান শীতে ঘোড়ার ঠান্ডা ঘরে বা খোলা মাঠে রেড আর্মি বাঁধিয়া রাখিত  ঠান্ডায় পটল না তুলিলে, বৈপ্লবিক অনাহারে চাষিরা মারা যাইতেছিল-যাহাতে খাদ্যসমস্যা বাড়িতেছিল

 শ্রমিক শ্রেনী যেমন বলশেভিকদের সাথে ছিল-কেরেনাস্কির সমাজবাদি বৈপ্লবিক পার্টির স্তম্ভ ছিল কৃষক শ্রেণীযাহাইহোক আগস্টেও ক্ষমতায় সুরক্ষিত  কেরেনাস্কি-বলশেভিকরা তখনও সাংগঠনিক ভাবে দুর্বলএমন অবস্থায় জীবনের বৃহত্তম ভুলটি করিলেন কেরেনাস্কিকর্লিনভ নামে এক সেনাপতিকে মিলিটারী কম্যান্ডার ইন চিফ নিযুক্ত করিলেনকর্লিনভ দেখিলেন কেরেনাস্কি দুর্বল কেরেনাস্কি সন্দেহ করিলেন কর্লিনভ মিলিটারী ক্যু করিয়া ক্ষমতা দখলে উদ্যত 

 এই সন্দেহ তাহাকে শেষ করিয়াছিল-বলশেভিকদের ক্ষমতার দরজা খুলিয়া দিলকর্লিনভের ভয়ে, কেরেনাস্কি সোভিয়েতের মধ্যে অস্ত্র বিলাইতে লাগিলেনসোভিয়েতের মধ্যে বলশেভিকরা এই অস্ত্র অধিক পরিমানে গ্রহন করিল- ট্রটস্কি সুযোগের সদব্যাবহার করিলেন ইহাদের দ্বারা রেড আর্মি গঠন করিয়াকেরেনাস্কি ভাবিলেন ইহারা বন্ধু-ইহারাই তাহার রক্ষক হইবেকারন তিনি এবং বলশেভিকরা একই আদর্শের মানুষভুল ভাবিয়াছিলেন  কারন ইহার পর আমরা দেখিব, নভেম্বর বিপ্লবের পর কেরেনাস্কির সমাজবাদি পার্টি বলশেভিক অপেক্ষা দ্বিগুন ভোট অর্জন করা সত্ত্বেও শুধু রেড আর্মির বন্দুকের জোড়ে  ট্রটস্কি তাহাকে তাড়াইবেনকেরেনাস্কি যাহা স্বপ্নেও ভাবেন নাই! তাহার স্বপ্ন ছিল গণতান্ত্রিক সমাজতন্ত্রী রাশিয়াকখনোই ভাবেন নাই, যে সোভিয়েতকে তিনি নিজ হস্তে তৈরী করিয়াছেন এবং বলশেভিকদের আদরের সাথে তাহাতে স্থান দিয়াছেন-তাহারাই গণতান্ত্রিক মত অগ্রাহ্য করিয়া, তারই  প্রদত্ত বন্দুকে, তাহাকেই গদিচ্যুত করিবে! ইতিহাসে তাহাকে ফেলিবে পুঁজিবাদের দালাল হিসাবে-আর সোভিয়েতের যাবতীয় কৃতিত্ব নিজেরা হস্তগত করিবে!

 বলশেভিক বিপ্লবের জন্যে কেরেনাস্কিকেই দায়ী করিয়া থাকে রাশিয়ার আপামর রাজনৈতিক নির্বাসিত জনগণকেরেনাস্কি যখন আমেরিকাতে মারা যান ১৯৭০ সালে, কোন রাশিয়ান অর্থডক্স চার্চ তাহাকে  সমাধিস্থ করিতে রাজী হয় নাইকারন, বলশেভিক বিপ্লবের জন্যে তাহারা লেনিনকে যত ক্রেডিট দিয়া থাকে, তাহা হইতে শতগুন ডিসক্রেডিট কেরেনাস্কির জন্যে বরাদ্দ করিয়াছে  কেরেনাস্কি সোভিয়েতের হাতে অস্ত্র তুলিয়া না দিলে রেড আর্মি গঠিত হইত নানভেম্বর বিপ্লবের পুণ্যতিথি এবং কমিনিউস্টদের অমানবিক নরমেধ যজ্ঞ যত পৃথিবীতে হইয়াছে, তাহার কিছু ই আমরা দেখিতাম না-যদি কেরেনাস্কি ট্রটস্কিকে রেড আর্মি গঠন করিতে না দিয়া, নিজে আর্মি গঠনে সক্রিয় হইতেন বা কর্নিলভকে নিয়োগ না করিতেনজনগন তাহার সাথেই ছিল-তাহারাও লেনিনের স্বৈরাচারী একনায়কতন্ত্র অপেক্ষা তাহার গণতান্ত্রিক পথেই বিশ্বাস রাখিয়াছিলকিন্তু মিলিটারী স্ট্রাটেজীতে ভুল করিয়া তিনি সমগ্র বিশ্বের আশু সর্বনাশ করিলেনযাহার ফলশ্রুতি স্বরূপ ১৯৭০ সালে তাহাকে কোন রাশিয়ান চার্চ কবরস্থ করিতে চাহিল না!

যাহাই হৌক ৭ ই নভেম্বরে কেরেনাস্কি সরকারকে গদিচ্যুত করার পর, ৬৫০ সদস্যের নতুন কনস্টিটুয়েন্ট এসেম্বলী গঠন করিলেন লেনিনযাহাতে বলশেভিকরা ৩৯০টি আসন দাবী করিলেনমেনশেভিক এবং বিপ্লবী সমাজতন্ত্রীদের জন্য ২৬০ টি আসন বরাদ্দ হইলদক্ষিন পন্থী 

পুঁজিবাদিকনস্টিটুশনাল ডেমোক্রাটিক পার্টিকে নিষিদ্ধ ঘোষনা করা হইলসমাজতান্ত্রিক ব্যাতীত সমস্ত প্রেসের কন্ঠ রোধ করা হইল

   মেনশেভিক এবং বিপ্লবী সমাজতন্ত্রীরা এ সিদ্ধান্ত মানিলেন নাইনারা দেখিলেন লেনিন গণতন্ত্রের কন্ঠ রোধ করিয়া, যথাসময়ে তাহাদেরও আস্তাকুপে নিমজ্জিত করিবেরাশিয়ান মিলিটারি তখন দুর্বল-কিন্ত অটুটমেনশেভিক, বিপ্লবী সমাজতন্ত্রী এবং দক্ষিনপন্থী সবার হাতেই অস্ত্র আছেজোর করিয়া ক্ষমতা দখল করিতে গেলে গৃহযুদ্ধ আসন্ন দেখিয়া, লেনিন ১২ই নভেম্বর গণতান্ত্রিক নির্বাচন করিতে বাধ্য হইলেনতাহার আশা ছিল জনগন তাহার পাশেই আছে

  রাশিয়ান জনগণ কিন্তু লেনিননামক অগণতান্ত্রিক দৈত্যটিকে ঠিক ই চিনিয়াছিল১২ই নভেম্বর নির্বাচনে, বলশেভিকদের ভরাডুবি হইল-কেরেনাস্কির বিপ্লবী সমাজতন্ত্রীরা বলশেভিকদের দ্বিগুনেরও বেশী ভোট পাইলেন

Party

Votes

Number of deputies

Socialist Revolutionaries

17,100,000

380

Bolsheviks

9,800,000

168

Mensheviks

1,360,000

18

Constitutional Democrats

2,000,000

17

Minorities

 

77

Left Socialist Revolutionaries

 

39

People’s Socialists

 

4

Total:

41,700,000

703[6]

 লেনিনের বলশেভিক বিপ্লবের স্বপ্ন ধুলিস্যাত হইলনভেম্বর বিপ্লবেরপরেও রাশিয়ান জনগণ তাহাদের কমিনিউজমের বুলিতে” না ঠকিয়া, গণতান্ত্রিক সমাজতন্ত্রীদের চাহিয়াছিল 

 লেনিন দেখিলেন রাশিয়ান জনগণ তাহাদের প্রত্যাখাত করিয়াছেএতেব রেড আর্মিদিয়া জোর করিয়া ক্ষমতা দখল ব্যাতীত উপায় নাইডিসেম্বরের ছাব্বিশ তারিখে এই গণতান্ত্রিক সরকারকে নিশিদ্ধ করিবার উদ্দেশ্যে এবং নিজের নিরঙ্কুশ ক্ষমতা দখলের অভিপ্রায়ে, কনস্টিটুশনাল এসেম্বলি বন্ধ করিবার ডিক্রী জারি করিলেনদাবি করিলেন সোভিয়েত, কনস্টিটুশনাল ডেমোক্রাসি হইতে উঁচুতে-

     2. While demanding the convocation of a Constituent Assembly, revolutionary Social-Democracy has ever since the beginning of the Revolution of 1917 repeatedly emphasised that a republic of Soviets is a higher form of democracy than the usual bourgeois republic with a Constituent Assembly.

 এবং কনস্টিটুশনাল এসেম্বলী জনগণের প্রতিনিধি নয়—

5. … the party which from May to October had the largest number of followers among the people, and especially among the peasants — the Socialist-Revolutionary Party — came out with united election lists for the Constituent Assembly in the middle of October 1917, but split in November 1917, after the elections and before the Assembly met.

 সুতরাং কনস্টিটুশনাল এসেম্বলী ধ্বংশ করিতে হইবে–

the interests of this [October 1917] revolution stand higher than the formal rights of the Constituent Assembly […]

কনস্টিটুশনাল এসেম্বলী প্রতিবিপ্লবী!

17. Every direct or indirect attempt to consider the question of the Constituent Assembly from a formal, legal point of view, within the framework of ordinary bourgeois democracy and disregarding the class struggle and civil war, would be a betrayal of the proletariat’s cause, and the adoption of the bourgeois standpoint[

 কনস্টিটুশনাল এসেম্বলী প্রতিবিপ্লবী! অর্থা জনগণের রায়ে লেনিন যখন দেখিলেন ক্ষমতা দখল সম্ভব নহে, জনগন তাহাদের ক্ষমতার লোভ এবং লালসাকে বিলক্ষন চিনিয়াছে এবং প্রত্যাখ্যাত করিয়াছে, জনগণের সেই রায়কে বাতিল করিবার জন্যে লেনিনসুলভ ছেঁদো “প্রতিবিপ্লবী” তত্ত্বের অবতাড়না করিলেন 

পৃথিবীর “ডিক্টটর শিপের” ইতিহাসে ইহা বারংবার ঘটিয়াছেহিটলারত তাও থার্ড রাইখে নিরঙ্কুশ সংখ্যাধিক্যে জিতিয়া-একই কারনে থার্ড রাইখ তথা গণতন্ত্রের বলি চড়াইয়াছিলেনহিটলারের বক্তব্য লেনিন হইতে এক অক্ষরও পৃথক নয়-ক্ষমতা দখলের জন্য গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে মূল বক্তব্য সেই এক-গনতান্ত্রিক পার্লামেন্ট বিপ্লবী পরিবর্ত্তন আনিতে ব্যার্থ হইয়াছে! 

  তবেও ইহাও ইতিহাস বলে বলশেভিক পার্টির অধিকাংশ সদস্য লেনিনের গণতন্ত্রকে ধ্বংশ করিবার এই ডিক্রির বিরুদ্ধেই ছিলেনকিন্তু কম্যুনিউস্ট পার্টি চিরকালই সেক্রেটারী জেনারেলের কথায় কান ধরিয়া উঠবোস করিয়াছেফলে ১১ই ডিসেম্বর এক ডিক্রির মাধ্যমে বলশেভিক পার্টির সবাইকে লেনিনের “গণতন্ত্রকে ধ্বংশ করিবার” ডিক্রী মানিতে বাধ্য করা হইল-তাহাদের ইচ্ছার সম্পূর্ণ বিরুদ্ধে

 লেনিনের রেড আর্মি ক্ষমতা দখলের প্রক্রিয়া শুরু করিলরাশিয়াতে গৃহযুদ্ধ শুরু হইলদক্ষিনপন্থীরা হোয়াইট আর্মি গঠন করিয়া রেড আর্মির সহিত যুদ্ধে লিপ্ত হইলেনএসেম্বিলীতে সংখ্যাগরিষ্ঠ সমাজতন্ত্রী বিপ্লবীরা গৃহযুদ্ধে বলশেভিকদের সমর্থন করিলেন-তবুও তাহাদের কারাগারে নিক্ষেপ করিয়া কোতল করা হইল১৯১৮ সালে সমাজতন্ত্রী বিপ্লবী পার্টির (SR) নেতাদের খুন এবং কারাগারে বন্দি করার মাধ্যমে রাশিয়ান গণতন্ত্রকে চিরতরে ধ্বংশ করিলেন লেনিন  গৃহযুদ্ধে লেনিন এবং ট্রটস্কি, কৃষকদের বিরুদ্ধে কি নৃশংস খুন এবং অত্যাচারের রাজত্ব ১৯২৩ সাল পর্যন্ত কায়েম করিয়াছিলেন-তাহা লইয়া আলোচনা করিলাম নাবলশেভিকদের অত্যাচারে ১৯১৭ থেকে ২৩ সালের মধ্যে পঞ্চাশ লক্ষ কৃষক মৃত্যুমুখে পতিত হয় জর্জিয়াতে মেনশেভিকদের দমন করিতে, অত্যাচারের কি স্টিমরোলার ইনারা চালাইয়াছিলেন-আজকের জর্জিয়া এবং ইউক্রেন, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ানে তাহার প্রতিকার দাবি করিতেছে

   আমাদের বঙ্গজ লালপন্থীরা নভেম্বর মাসকে বিপ্লবের পবিত্র মাস বলিয়া গণ্য করিতে পারেন-কিন্তু বাস্তবে তাহা ছিল গণতন্ত্রের ধ্বংশের মাসকৃষকদের জমি বন্টণ করিয়া তাহাদের উপর হইতে লেভি তুলিবার জন্য অমানবিক অত্যাচার ও হত্যা শুরু করিবার মাসজর্জিয়া, ইউক্রেনের স্বাধীনতাকামী মানুষদের বিরুদ্ধে বলশেভিক সাম্রাজ্যবাদের মাস

   ইতিহাস কাহাকেও ক্ষমা করে নাই লেনিন এবং স্টালিনকেও নাতাই আজ ইউরোপিয়ান ইউনিয়ানে বলশেভিকদের অত্যাচারকে হিটলারে সমতুল্য নাজিদের ঘৃণ্য বর্বরতার সহিত তুলনা করিবার দাবি উঠিয়াছে২০০৭ সালে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ানের জাস্টিস মিনিস্টার বিগ্রেট জাইপ্রেস ২৭টি ভূতপূর্ব সোভিয়েত দেশের দাবি মানিয়া লেনিন এবং স্টালিনের কৃত অপরাধের নবমূল্যায়ন করিতে রাজি হইয়াছেন নাজিদের যেমন নিশিদ্ধ ঘোষনা করা হইয়াছে- ইউরোপিয়ান ইউনিয়ানে-২৭টি দেশ দাবি তুলিয়াছে বলশেভিক মতাদর্শে বিশ্বাসী কমিনিউস্টদেরও একই ভাবে নিশিদ্ধ ঘোষনা করিতে হইবে- কেননা তাহাদের অপরাধ হিটালারের নাজি বাহিনী অপেক্ষা কোন অংশে কম নহেবঙ্গজ লালপন্থীরা অবশ্য ইহাকে “পুঁজিবাদের চক্রান্ত” বলিয়া উড়াইয়া দিবে! যাহারা বলশেভিকদের হাতে অত্যাচারিত হইয়াছিল, তাহাদের অপেক্ষা বঙ্গজ কমিনিউস্টরা অবশ্যই বেশী জানিয়া থাকিবেন-বাঙালী জ্ঞান গর্ভসারের ইহাই ধর্ম–তবে আমরা বিলক্ষন অবগত আছি- তাহাদের এই অধিক জ্ঞানে পশ্চিম বঙ্গের গঙ্গাপ্রাপ্তি এবং বাংলাদেশের ইসলামায়ন সম্পূর্ণ হইয়াছে

  ইতিহাস ঠাট্টা করিতেও ওস্তাদলেনিন গণতান্ত্রিক সমাজতন্ত্রীদের ধ্বংশ করিয়াছিলেন-তাহাদের পুঁজিবাদের দালাল বলিয়া আখ্যায়িত করিয়া  আজ ভারতীয় পার্লেমেন্টারী সিপিএম যখন লেনিন এবং স্টালিনের পুজা দিতেছে-নভেম্বর বিপ্লবের পবিত্র দিনে বলশেভিক বিপ্লবের বিরোধিদের ধিক্কার দান করিতেছে-তাহারা একবারের জন্যেও ভাবিয়াছেন-এই বিরোধিরা ছিল তাহাদেরই মতাদর্শে বিশ্বাসী গণতান্ত্রিক সমাজতন্ত্রী গণসমাজতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টি সম্পূর্ণ গণতান্ত্রিক উপায়ে জমির গণবন্টন করিতে চাহিয়াছিল -যাহা সিপিএম পশ্চিমবঙ্গ এবং কেরলে করিয়াছেঅথচ ইহাদেরকেই পুঁজিবাদের দালাল বলিয়া লেনিন হত্যা করিয়াছিলেন-বাকীরা অত্যাচারে বলশেভিক পার্টিতে জয়েন করিতে বাধ্য হইয়াছিলঠাট্টা এখানেই শেষ হয় নাই আজ মাওবাদিরা গোটা ভারতে সশস্ত্র বিপ্লব শুরু করিয়াছে১৯১৭ সালের প্রেক্ষাপটে বর্তমান ভারতে মাওবাদির অবস্থান বলশেভিকদের ন্যায় এবং সিপিএমের ভুমিকা অবিকল স্যোশাল রিভল্যুশনরী” বা সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবীদের সমতুল্যলেনিন ইহাদের পুঁজিবাদের দালাল” বলিয়া হত্যা করিয়াছিলেনতাহা হইলে আজকের পশ্চিম বঙ্গে মাওবাদিরা যখন সিপিএমের নেতাদের হত্যা করিতেছেন তখন মাওবাদিরা বিলক্ষন লেনিনের পথই অনুসরন করিতেছেতাহা হইলে সিপিএমের নিকট লেনিন ভগবান আর মাওবাদিরা ঘৃণিত জীব হইল কিরূপেএকই কৃতকর্মের জন্যে কেন এই দ্বিচারিতা সুলভ অবমুল্যায়ন?

   ইহার উত্তর আমরা বিলক্ষন জানি বাপুজি দিয়াছিলেনকেও শোনে নাইগান্ধীজি বলিতেন আন্দোলনের মূললক্ষ্য  হইতেও আন্দোলনের পথে সততা এবং নিষ্ঠার অনুশীলন অধিক জরুরীলক্ষ্য পথ হইতে পৃথক হইতে পারে নাস্বয়ং ওবামাও গান্ধীর এই কথা বারংবার তাহার ভাষনে বলিয়াছেনকিন্তু লেনিন সহ  সমস্ত কমিনিউস্ট আন্দোলনের ইতিহাস আসলেই মানুষের প্রতি বিশ্বাসঘাতকতার ইতিহাস গণতন্ত্রে পরাজিত হইয়া, লেনিন গণতন্ত্রকে নিষ্ঠুর ভাবে হত্যা করিয়াছিলেন-জনগণের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করিয়াছিলেন-তাহাদের হত্যা করিয়া দমন করিয়াছেনমৃত আধকোটি কৃষক কোন পুঁজিপতির ভাইরাভাই ছিল নাতাহারা ছিল সাধারন জনগণতাই বলশেভিক বিপ্লবের নামে রাশিয়াতে এক ভয়ংকর একনায়কতন্ত্রী সাম্রাজ্যবাদি জনবিরোধি বুরোক্রাটিক রাজত্ব শুরু হয়-যাহার পতন ছিল অবসম্ভাবী

 আর আমাদের বঙ্গজ লালেদের কথাখুনীদের অনুসরন করিলে তাহারাও খুনী হইবেন-ইহাতে আশ্চর্য্য কি? নন্দীগ্রাম সেই সত্যকেও স্বরণ করাইয়াছেলেনিনও চাষিদের ওপর অত্যাচার করিয়াছেন-তাহারাও করিয়াছেআসল খেলাটা সর্বদাই “বিবর্তন মুখী” ক্ষমতারআমজনতার দারিদ্র এবং দুঃখে ক্রন্দন এবং সাম্যের জন্য বিপ্লবের প্রতিশ্রুতি দরিদ্রক্লিষ্ট জনগণকে ভুলাইবার ললিপপ গণতন্ত্রের সঠিক চর্চা এবং মূল্যায়নের মাধ্যমে এই সমাজে সাম্য এবং ন্যায় প্রতিষ্ঠা সম্ভবউন্নততর ধণতন্ত্রের সহিত ভারসাম্যযুক্ত সমাজতন্ত্রের প্রতিষ্ঠা সম্ভব গণতন্ত্রে একদিনে পরিবর্ত্তন আসিবে না-সময় লাগিবে-কিন্ত গণতন্ত্র ই গণতন্ত্রকে ঠিক পথে চালাইবেবিপ্লবের নামে কোটি কোটি মানুষের জীবনকে ধ্বংশ করিবার লীলাখেলার” কোন অধিকার কাহারও নাই

যাহারা আরো জানিতে চান-এই ভিডিওটি দেখিতে পারেনঃ

 

[518 বার পঠিত]